0 votes
29 views
in পরিবার,বিবাহ,তালাক (Family Life,Marriage & Divorce) by (6 points)
edited by
০১/হুজুর আমার ব্যাপক সন্দেহ রোগ আছে।আর সাম্প্রতিক তালাকের মাসালা পর্যালোচনা করে ব্যাপক সন্দেহ বেড়ে গেছে।বউের সাথে কথা বলতেও ভয় লাগে কখন কোন কথা বলি বা কোন শর্ত বলি।আবার আমি যেহেতু বউের কাছ থেকে দূরে থাকি, তাই মনের মধ্যে খালি তালাক আর তালাকের শর্ত আসে।ভয় হয় মুখ দিয়ে কিছু বলে ফেলি কিনা। খুব কষ্টে আছি

০২/ আমার বউ তার আত্মীয় বাড়ি যেতে চাইছিলো, আমি বলছিলাম না গেলে ভালো হয়,আমি কোন তালাকের শর্ত  দি নাই। কিন্তুু আমার মনে ভিতর শর্ত এসেছে।আমি মুখ দিয়ে বলি নি তার সামনে বা তার অগোচরে,,কিন্তু আমার ব্যাপক সন্দেহ হয়। রোগের কারনে সন্দেহ হয়। ফলে যেতে নিষেধ করছিলাম কিন্তুু আমার সন্দেহর কথা বলি নি।সে গেছে। আমি মুখ দিয়ে কোন শর্ত বলি নি,,, আমি নিশ্চিত।তাও সন্দেহ আসে যদি বলি।করনীয় কি।

০৩/ অত্যাধিক সন্দেহর কারনে কি নিজে নিজে বিবাহ নবায়ন করা,যাবে?

০৪/ কোন কারন ছাড়া শুধু সন্দেহর কারনে বিবাহ নবায়ন করলে গুনাহ হবে কি?মনে করেন কিছুই হয় নি,,,শুধু মনের শান্তির জন্য?

1 Answer

0 votes
by (213,760 points)
জবাব
بسم الله الرحمن الرحيم 


শরীয়তের বিধান হলো  শুধু  মনে মনে তালাক বললে তালাক হয়না।
মুখে উচ্চারণ করতে হবে।
(নাজমুল ফাতওয়া ৬/১৬)

তাই মনে মনে শর্তযুক্ত তালাক দিলে স্ত্রী সেই কাজ করলেও তালাক পতিত হবেনা। 

হাদীস শরীফে এসেছেঃ  

حَدَّثَنَا مُسْلِمُ بْنُ إِبْرَاهِيمَ، حَدَّثَنَا هِشَامٌ، عَنْ قَتَادَةَ، عَنْ زُرَارَةَ بْنِ أَوْفَى، عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: إِنَّ اللَّهَ تَجَاوَزَ لِأُمَّتِي عَمَّا لَمْ تَتَكَلَّمْ بِهِ، أَوْ تَعْمَلْ بِهِ، وَبِمَا حَدَّثَتْ بِهِ أَنْفُسَهَا 

আবূ হুরাইরাহ (রাযি.) সূত্রে বর্ণিত। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ নিশ্চয় আল্লাহ আমার উম্মাতের মনে যা উদয় হয় তা যতক্ষণ না সে মুখে বলে অথবা কার্যে পরিণত করে ততক্ষণ তা উপেক্ষা করেন।
(আবু দাউদ ২২০৯)

أَخْبَرَنَا عُبَيْدُ اللَّهِ بْنُ سَعِيدٍ قَالَ حَدَّثَنَا ابْنُ إِدْرِيسَ عَنْ مِسْعَرٍ عَنْ قَتَادَةَ عَنْ زُرَارَةَ بْنِ أَوْفَى عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ إِنَّ اللَّهَ عَزَّ وَجَلَّ تَجَاوَزَ لِأُمَّتِي مَا وَسْوَسَتْ بِهِ وَحَدَّثَتْ بِهِ أَنْفُسَهَا مَا لَمْ تَعْمَلْ أَوْ تَتَكَلَّمْ بِهِ 

উবায়দুল্লাহ ইবন সাঈদ (রহঃ) ... আবু হুরায়রা (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ আমার উম্মতের মনে যা উদয় হয় বা খটকা লাগে, আল্লাহ্ তাআলা তা ক্ষমা করে দেবেন, যতক্ষণ না সে তা করে অথবা বলে।
(নাসায়ী শরিফ ৩৪৩৮)

(০১)
এগুলো শয়তানের পক্ষ থেকে আসছে।  
আপনি ওয়াসওয়াসাকে এড়িয়ে চলবেন। 
ওয়াসওয়াসার দিকে কোনোরুপ ভ্রুক্ষেপ করবেননা।  
আপনি তালাকের মাসয়ালা পড়বেননা।
 
(০২)
তালাক হবেনা।
,
(০৩)
না,নিজে নিজে বিবাহ নবায়ন করা যায়না।
,
(০৪)
এটি অনার্থক কাজের শামিল হবে,যার অনুমতি শরীয়ত দেয়না।
তবে মনের শান্তির জন্য স্ত্রীর উপর চাপ সৃষ্টি না করে তার সন্তুষ্টি চিত্তে বিবাহ নবায়ন করা হলে গুনাহ হবেনা।  


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...