0 votes
15 views
in সালাত(Prayer) by (2 points)
আস সালামু আলাইকুম

আমার কুরআন তেলাওয়াতের উচ্চারণে অনেক ভুল আছে। সালাত আদায় করতে অনেক অসুবিধা হয়ে যায়, সূরা ফীল উচ্চারণের সময় "বিহিজারতিম মিন " এখানে মীম এর মধ্যে যে টান ছিল তা উচ্চারণ হচ্ছিল না আমার, " ফাজাআলাহুম কাআছফিম মা' কুল " এ "  মা' " এ আইন এর উচ্চারণ হয়ে যাচ্ছিল আলিফ এর বদলে, এসব পারতেছিলাম না তাই সালাত এ অন্য সূরা পরি, কাউসার এ " ফাসললিলি রব্বিকা ওয়ান হার " এ হা এর উচ্চারণ পারি না, গাঢ় হবে না পাতলা,
প্রথম সূরায় উচ্চারণ পারি না দ্বিতীয় সূরায় উচ্চারণ জানি না, তাও কাউসার পরি , হার উচ্চারণ টা গলার ভেতর দিয়ে না , একেবারে সোজা সোজা। সালাত ওয়াক্ত প্রায় শেষের সময়, আমার এই অপারগতার জন্য কি সালাত হবে? অন্য সূরা পারতাম কিন্তু তাতে একটু অসুবিধা হয় আর সময় ও কম , এই কম পারা সূরা ( কাউসার) দিয়েই সালাত করি , আমার সালাত কি কবুলযৌগ?

২. সূর্যোদয় এর ১ বা ২ মিনিট আগে সালাত শেষ করলে কি সালাত আদায় হবে? আমি ফোনের বাংলাদেশের সময় এর ঘড়ি  দেখি আর পেপার থেকে সূর্যোদয় এর সময় দেখি।

৩. মহিলাদের সালাত আদায়কালে হেজাবে পিঠের দিকে সেলাইয়ের ফাঁক ফাঁক থেকে খোঁচা খোঁচা চুল বের হয় , কখনো বড় চুল বের হয়। কিন্তু এই ব্যাপারে আমার কিছুর জানার অবকাশ থাকে না যেহেতু সেটা পিঠের দিক। কিন্তু গালে চুল আসলে ওগুলো সরাই। এগুলোর জন্য সালাত আদায় হবে না?

1 Answer

0 votes
by (226,320 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
(১)
https://www.ifatwa.info/4350 নং ফাতাওয়ায় আমরা উল্লেখ করেছি যে,
নামাযের কেরাতে যদি তাজবীদে ভূল হয়,যাকে লাহলে খাফী বলা হয়,তাহলে উক্ত নামাযকে দোহড়ানের প্রয়োজন নেই।তাজবীদ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন-https://www.ifatwa.info/1126
তবে যদি নামাযে এমন কোনো ভূল হয়,যার কারণে অর্থ পরিবর্তন হয়ে যায়,(এক্ষেত্রে তাজবীদ বিভাগের লাহনে জালী গ্রহণযোগ্য নয়,কেননা তাজবীদের পরিভাষায় এক হরফের স্থলে অন্য হরফ পড়ে নিলেই লাহনে জলী হয়ে যায়,চায় নিকটবর্তী মাখরাজ হোক বা দূরবর্তী মাখরাজ হোক,চায় অর্থ সঠিক থাকুক বা নাই থাকুক)কিন্তু ফুকাহায়ে কেরাম দূরবর্তী মাখরাজের উচ্ছারণের সময়ে এবং অর্থ বিগড়ে যাওয়ার সময়ে নামাযকে ফাসিদ হওয়ার ফাতাওয়া দিয়ে থাকেন।

সুতরাং নামাযে কোনো হরফ উচ্ছারণের সময়ে,সেই হরফের স্থলে তার দূরবর্তী মাখরাজের কোনো হরফ উচ্ছারিত হয়ে গেলে,এবং অর্থ বিগড়ে গেলে নামায ফাসিদ হয়ে যাবে।

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
আপনি যদি এত্থেকে আর ভালো ভাবে কিরাত পড়তে না পারেন, তাহলে এভাবেই নামায পড়ে নিবেন।আপনার নামায হবে।  এবং সাথে সাথে বিশুদ্ধ ত্বরিকায় তাজবীদের সাথে আপনি পড়ার চেষ্টা করবেন। কেননা পূর্ণ তাজবীদের সাথে কুরআন তিলাওয়াত মুস্তাহাব। 

(২) জ্বী, সূর্যোদয়ের দুয়েক মিনিট আগে ফজরের নামাযকে শেষ করে নিলে নামায আদায় হয়ে যাবে। তবে সতর্কতামূলক অন্তত বিশ মিনিট পূর্বে নামায শুরু করা উচিৎ এবং দশ মিনিট পূর্বে নামায শেষ করা উচিৎ ।আপনি ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রকাশিত ক্যালেন্ডার দেখবেন। জাযাকুমুল্লাহ। 

(৩) https://www.ifatwa.info/4911 নং ফাতাওয়ায় আমরা বলেছি যে, 
বেশী পরিমাণে চুল বের হলে তথা এক দিরহাম পরিমাণ বের হলে নামায ফাসিদ হবে। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

Related questions

...