আইফতোয়াতে ওয়াসওয়াসা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে না। ওয়াসওয়াসায় আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও করণীয় সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

0 votes
85 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (64 points)


১। আমি নাবালক থাকা অবস্থায় হিন্দুর মন্দিরে খেলনা পিস্তল দিয়ে গুলি করি একটু দুর থেকে আমার মনে হয় না কোনো ক্ষতি হবে এখন কি আমার মাফ চাইতে হবে প্রশ্ন করার কারন হলো এই বেপারটা মাথা থেকে সরতেছেনা।

২।পেটের অসুখের জন্য নাভি খোলায় নামে একটা চিকিৎসা আছে সেখানে একটা পাথর দিয়ে নাভির উপর ঘষে কি জানি বের করে এবং ঔষধ দেয় এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা নেওয়া জায়েজ হবে কি।

৩।আমাদের বাড়ির ছোটো পোলাপান দুষ্ট বেশি কিছু বলিনা দেখে আমার গায়ে হাত তোলে আমি মাঝে মাঝে তাদের কে একটা দুইটা মারলে তারা আর আমার গায়ে হাত তোলে না এখন যদি তারা বেয়াদবি করে গায়ে হাত তোলা যাবে কি? আর যদি তোলি গুনাহ হবে কি?

৪।আমার ইনকাম নাই আমার মন চায় যদি অল্প কিছু নফল দান করি কিন্তু ওসওয়াসা আসে তুই কম দান করস তুই কৃপন এখন আমার কি করনীয় এই ওসওয়াসা থেকে বাচতে?<!--/data/user/0/com.samsung.android.app.notes/files/clipdata/clipdata_bodytext_230610_183209_981.sdocx-->

1 Answer

0 votes
by (701,080 points)
জবাবঃ- 
বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম 


(০১)
প্রশ্নের বিবরন মতে আপনাকে মাফ চাইতে হবেনা।

(০২)
আকীদা বিশুদ্ধ রেখে ও শরীয়াহ বিরোধী কোনো বাক্য না বলার শর্তে এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা নেওয়া জায়েজ হবে। 

(০৩)
এক্ষেত্রে শাসনের নিয়তে হালকা ভাবে প্রহার করা যাবে।

তবে কোনোভাবেই চেহারায় মারবেননা।

(০৪)
মহান আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেনঃ- 

وَالَّذِينَ إِذَا أَنفَقُوا لَمْ يُسْرِفُوا وَلَمْ يَقْتُرُوا وَكَانَ بَيْنَ ذَٰلِكَ قَوَامًا [٢٥:٦٧]

এবং তারা যখন ব্যয় করে, তখন অযথা ব্যয় করে না এবং কৃপণতাও করে না, বরং তাদের পন্থা হয় এতদুভয়ের মধ্যবর্তী। [সূরা ফুরকান-৬৭]

وَلَا تَجْعَلْ يَدَكَ مَغْلُولَةً إِلَىٰ عُنُقِكَ وَلَا تَبْسُطْهَا كُلَّ الْبَسْطِ فَتَقْعُدَ مَلُومًا مَّحْسُورًا [١٧:٢٩]

(কৃপণতাবশে) নিজের হতা ঘাড়ের সাথে বেধে রেখো না এবং (অপব্যায়ী হয়ে) তা সম্পূর্ণরূপে খুলে রেখো না। তাহলে তুমি তিরস্কৃত ও নিঃস্ব হয়ে পড়বে। [সূরা বনী ইসরাঈল-২৯]

সঞ্চয় করতে গিয়ে কৃপণতাও করা যাবে না। আবার খরচ করতে গিয়ে যেন অপব্যয় এবং অপচয় না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। মধ্যমপন্থা অবলম্বন করবে।

★প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন,
আপনি মনে করবেন যে এটি তো আপনার যাকাত নয় যে আদায় করতেই হবে।

সুতরাং এক্ষেত্রে কম দান করলে এটি কৃপণতার অন্তর্ভুক্ত হবেনা। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন। এই প্রশ্ন ও উত্তরগুলো আমাদের ফেসবুকেও শেয়ার করা হবে। তাই প্রশ্ন করার সময় সুন্দর ও সাবলীল ভাষা ব্যবহার করুন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি স্থানীয় মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

Related questions

...