0 votes
19 views
in পরিবার,বিবাহ,তালাক (Family Life,Marriage & Divorce) by (1 point)
edited by
আমি যদি ২-১ ওয়াক্ত নামাজ ইচ্ছাকৃত বাদ দেই এবং পরবর্তীতে আমার ভুল বুঝতে পেরে তওবা করি তাহলে কি আমাকে আবার বিবাহ নবায়ন করতে হবে? যেহেতু অনেক আলেমেরাই বলেন ইচ্ছাকৃত বা অলসতা করে নামাজ ত্যাগকারী কাফের হয়ে যায়। আর কাফের হয়ে গেলে আমার সব আমল নষ্ট হয়ে যাবে। আমার বিবাহ কি নষ্ট হয়ে যাবে? তাহলে তওবা করে মুসলিম হয়ে আবার আমার বিয়ে কি আবার নবায়ন করতে হবে?
by (1 point)
আপনি আমার প্রশ্নটা বুঝতে পারেন নি মনে হয়।

1 Answer

0 votes
by (283,200 points)


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহাম।
জবাবঃ-
https://www.ifatwa.info/2260 নং ফাতাওয়ায় বলেছি যে,
ফরয নামায পরিত্যাগ করা কবিরাহ গোনাহ। আর
কোনো কবিরাহ গোনাহ করলে মুসলমান ঈমান থেকে খারিজ হবে না।এটাই আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আকিদা এবং বিশ্বাস।অবশ্যই হত্যাকারী শাস্তিভোগ করবে।তবে যদি সে তাওবাহ করে নেয়,এবং কেসাস হিসেবে তাকেও হত্যা করে দেয়া হয়,বা সে দিয়ত আদায় করে নেয়,তাহলে হয়তো আল্লাহ তাকে ক্ষমা ও করে দেবেন।(ফাতাওয়ায়ে মাহমুদিয়্যাহ-১/৬৬৫)

আপনি যে হাদীসের কথা উল্লেখ করেছেন,
قال عبد الله: قال النبي صلى الله عليه وسلم: «سباب المسلم فسوق، وقتاله كفر»
মুসলমানকে গালি দেয়া ফিসক।এবং হত্যা করা কুফরী।(সহীহ বেখারী-৭০৭৬)

ইমাম নববী রাহ উক্ত হাদীসের ব্যখ্যায় বলেন,
وأما قتاله بغير حق فلا يكفر به عند أهل الحق كفرا يخرج به من الملة كما قدمناه في مواضع كثيرة إلا إذا استحله فإذا تقرر هذا فقيل في تأويل الحديث أقوال أحدها أنه في المستحل والثاني أن المراد كفر الاحسان والنعمة وأخوة الاسلام لاكفر الجحود والثالث أنه يؤول إلى الكفر بشؤمه والرابع أنه كفعل الكفار والله أعلم
মুসলমানকে অন্যায়ভাবে হত্যা করলে হত্যাকারী আহলে হক তথা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের মতানুসারে কাফির হবে না।তবে যদি কেউ হত্যাকে হালাল মনে করে হত্যা করে,তবে সে কাফির হয়ে যাবে।তাই উপরোক্ত হাদীসের কয়েকটি ব্যখ্যা হতে পারে।যথাঃ-(১)কেউ যদি হত্যাকে হালাল মনে করে অন্যায়ভাবে কাউকে হত্যা করে,তবে সে কাফির।(২)কাফির অর্থ অস্বিকারককারী।সুতরাং এখানে অর্থ হলো,আল্লাহর নিয়ামত,ইসলামী ভ্রাতৃত্ববোধ কে অস্বীকারকারী।ইসলামকে অস্বীকারকারী নয়।(৩)উক্ত কাজ এত অলক্ষণীয় যাকে কুফুর দ্বারা ব্যখ্যা করা যায়।(৪)এটা যেন কাফিরেরই কাজ।এটা কোনো মুসলমানের কাজ হতে পারে না।(আল-মিনহাজ শরহে মুসলিম-২/৫৪) আল্লাহ-ই ভালো জানেন।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...