0 votes
51 views
in কুরবানী (Slaughtering) by (17 points)
আসসালামু আলাইকুম।
১। যে হুজুর কুরবানীর পশু জবাই করে দেন তাকে কোন হাদিয়া দেওয়া জায়েজ আছে কি? জায়েজ হলে তা কিসের মাধ্যমে এবং কোন পদ্ধতিতে দিলে উত্তম হবে?


২। যে কসাই পশু কেটে মাংস বানিয়ে দিবেন তাকে পারিশ্রমিকের বাইরে এমনিতে আর ১০জন মানুষকে যেভাবে মাংস দান করা হয় সেভাবে দেওয়া জায়েজ হবে? না হলে তাকে এটি বুঝিয়ে বলার উত্তম পদ্ধতি কি হবে?

1 Answer

0 votes
by (15,000 points)

ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু।                                                   

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ-

জবাইকারী, কসাই বা কাজে সহযোগিতাকারীকে চামড়া, গোশত বা কুরবানীর পশুর কোনো কিছু পারিশ্রমিক হিসেবে দেওয়া জায়েয হবে না। অবশ্য নির্ধারিত পারিশ্রমিক দেওয়ার পর পূর্বচুক্তি ছাড়া       হাদিয়া হিসাবে গোশত বা তরকারী দেওয়া যাবে।-আদ্দুররুল মুখতার ৬/৩২৮

কুরবানী পশু জবাই করে পারিশ্রমিক দেওয়া-নেওয়া জায়েয। তবে কুরবানীর পশুর কোনো অংশ পারিশ্রমিক হিসাবে দেওয়া যাবে না। -কিফায়াতুল মুফতী ৮/২৬৫

 

কারণ, কুরবানীর গোশত বিক্রি করা জায়েজ নয়, তাই তা পারিশ্রমিক হিসেবে প্রদানও জায়েজ নয়।

 

হাদীস শরীফে এসেছে-

حديث عَلِيٍّ رضي الله عنه، أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَمَرَهُ أَنْ يَقُومَ عَلَى بُدْنِهِ، وَأَنْ يَقْسِمَ بُدْنَهُ كُلَّهَا لُحُومَهَا وَجُلُودَهَا وَجِلاَلَهَا وَلاَ يُعْطِيَ فِي جِزَارَتِهَا شَيْئًا

 

আলী (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তাঁকে নাবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) তাঁর নিজের কুরবানীর জানোয়ারের পাশে দাঁড়াতে আর এগুলোর সমুদয় গোশ্ত, চামড়া এবং পিঠের আবরণসমূহ বিতরণ করতে নির্দেশ দেন এবং তা হতে যেন কসাইকে পারিশ্রমিক হিসেবে কিছুই না দেয়া হয়। (বুখারী, হাঃ ১৭১৭, মুসলিম, হাঃ ১৩১৭)

 

ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়াতে রয়েছে-

ولا يعطى أجر الجزار والذابح منها

পারিশ্রমিক হিসেবে কসাই ও জবাইকারীকে কুরবানীর গোশত দেওয়া যাবে না । ( ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়া,৫/৩০১)

 

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!

 

১. কুররবানির পশু জবাই করে পারিশ্রমিক  নেওয়া- দেওয়া জায়েজ ।সুতরাং আপনি  তাকে নগদ অর্থও দিতে পারেন। তবে কুরবানির পশুর গোশত পারিশ্রমিক হিসেবে দেওয়া জায়েজ হবে না।

 

২. যে কসাই মাংস বানিয়ে দিবেন তাকে পারিশ্রমিক দেওয়ার পর অন্যান্য ১০ জন মানুষের মত কুরবানীর গোশত দিতে পারেন। এতে কোন সমস্যা নেই। তবে পারিশ্রমিক হিসেবে কুরবানির গোশত দিতে পারবেন না।

 

 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী আব্দুল ওয়াহিদ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...