0 votes
82 views
in পরিবার,বিবাহ,তালাক (Family Life,Marriage & Divorce) by (55 points)
সামি স্ত্রি এর মেসেজ এর কথা
সামিঃ তোমাকে অবশ্য ই তালাক দেওয়া হবে
স্ত্রিঃ এমন কাজ কর না
সামিঃ তোমাকে অনেক আগেই তালাক দেওয়া উচিত ছিল এতদিন ছার দিছি র না
স্ত্রিঃ আমাকে মাফ করে দাও
সামিঃ চিরতরে চলে যাও
১০ মিনিট কোন কথা হয় না
১০ মিনিট পর স্ত্রি মেসেজ দেয়
স্ত্রিঃ তোমার বাসার সবাই এসে আমাকে জেরা করতেছে আমি কি করব  
সামিঃ চলে যাও
স্ত্রিঃ আমার সাথে একটু   কথা বল

সামিঃ তোমার সাথে কথা বলতে চাই না
তুমি আমার কেও না আজ থেকে
স্ত্রিঃ দয়া করে এটা কর না, আমাকে মাফ করে দাও

সামিঃ আমি কখনোই মাফ করব না কোনদিন না   
স্ত্রিঃ এভাবে বল না, আমার সাথে একটু কথা বল

তুমি আমাকে রাকবনা এই কথা বাবা মাকে বইল না   
তারপর ১ ঘন্টা ৪৫ মিনিট  কোন   কথা হয় না
১  ঘন্টা ৪৫ মিনিট   পর স্ত্রি মেসেজ দেয়  
স্ত্রিঃ  সবাই আমাকে কথা শোনায়,  তুমি ও আমাকে ignore করতেছ, আমি কোথায় যাব
সামিঃ(((((((((( তুমি finally ignored,  আমার জীবন থেকে চলে যাও,  কোথায় যাবা জানি না, তোমাকে অবশ্যই আমার জীবন থেকে জেতে হবে, তুমি আর আমার জীবন এর অংশ না )))))))))
স্ত্রিঃ আমি তোমাকে ভালোবাসি তাই সন্দেহ করছি আমাকে ক্ষমা করে দাও

সামিঃ ভালবাস্লে সন্দেহ করতা না, আমি আর   তোমাকে চাই না আমার জীবন এ    
কিছুক্ষণ পর আবার কথা হয়
সামিঃ শান্তির জন্যই তোমাকে ত্যাগ করা ফরয
স্ত্রিঃ আমাকে মাফ করে দাও
সামিঃ তুমি আমাকে  হারায়ে ফেলছ আর ফিরে পাবা না   
স্ত্রিঃ আর একবার আমার পাশে থাক

সামিঃ আমি কোন ভাবেও  তোমাকে আর গ্রহন করব না, কোন দিন না কোন ভাবেও না         
এসব কথায় কি তালাক হয়,  মাঝে মাঝে কথা হয় নাই এতে কি মজলিশ হবে

হুযুর আর একটি প্রস্ন
২)))) সামি বলে যে না পুসাইলে চলে যাও,  তারপর  ঝগড়া,  কান্নাকাটি পর এক সময় বলে তোমার সাথে সম্পক আজই সেশ
এতে কি তালাক হয়
৩)))) একদিন স্ত্রি তার সামি কে জিজ্ঞাসা করে,  তোমার সাথে জারা কাজ করে সবাই কি বিবাহিত,  সামি বলে কেও বিবাহিত কেও অবিবাহিত আর আমি ডিভোর্স,  তখন স্ত্রি বলে তুমি কি, সামি বলি আমি ডিভোর্স,  তখন স্ত্রি বলে তাই নাকি, তখন সামি বলে তুমি সব কিছু seriously কেন নেও,  সামি বলে নাই তাদের ডিভোর্স হইছে বা সে তার বউকে ডিভোর্স দিয়েছে এতে কি সমস্যা হব,  সামি নিজের কথা বলেছে যে  সে ডিভোর্স
৪)))))  হুযুর ৪৫৯৩৪   এর প্রথম প্রস্ন আর comment ta ektu দেখবেন, আপনি ফতোয়া দিয়েছিলেন,  কিন্তু ইমদাদ হুযুর সেটাকে সংসধন করবেন বলছিলেন, হুযুর আমি ১ নং প্রস্নের সেশে (((((মনে মনে)))) এই কথা টুকু লিখতে ভুলে যাই, আমি অন্নের দিকে ইংগিত করে প্রস্ন করছি এতে কি প্রস্ন কারির উপর  তালাক হয়

৫))) কেনেয়া শব্দ ১ তালাক হলে কি ইদ্দাত এর আগে র কোন তালাক হয়

1 Answer

0 votes
by (382,000 points)
জবাব
বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম

  
তালাক খুবই মারাত্মক  একটি শব্দ। নিকৃষ্ট হালাল বলা হয়েছে হাদীসে। 

হাদীস শরীফে এসেছেঃ 

حَدَّثَنَا كَثِيرُ بْنُ عُبَيْدٍ، حَدَّثَنَا مُحَمَّدُ بْنُ خَالِدٍ، عَنْ مُعَرِّفِ بْنِ وَاصِلٍ، عَنْ مُحَارِبِ بْنِ دِثَارٍ، عَنِ ابْنِ عُمَرَ، عَنِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم قَالَ " أَبْغَضُ الْحَلاَلِ إِلَى اللَّهِ تَعَالَى الطَّلاَقُ " .

কাসীর  ইবন  উবায়দ .......... ইবন  উমার  (রাঃ)  নবী  করীম  সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম  হতে  বর্ণনা  করেছেন যে,  আল্লাহ্  তা‘আলার  নিকট  নিকৃষ্টতম  হালাল বস্তু  হল  তালাক।

(আবূ দাউদ ২১৭৮, ইরওয়া ২০৪০, যইফ আবু দাউদ ৩৭৩-৩৭৪, আর-রাদ্দু আলাল বালীক ১১৩।) 

প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন, 
পূর্বের ফতোয়াতে বলা হয়েছিলোঃ
প্রশ্নে উল্লেখিত বাক্য ""চিরতরে চলে যাও"" এমন ধরনের বাক্য তালাকের নিয়ত ছাড়া বললে তালাক হয়না।
,
তাই উপরোক্ত ছুরতে যদিও তালাকের  মজলিস পাওয়া গিয়েছে, তবুও যদি স্বামীর তালাকের নিয়ত না থাকে,তাহলে তালাক হবেনা। 

আর স্বামীর যদি তালাকের নিয়ত থাকে,তাহলে তালাক হবে।
স্বামী যদি তিন তালাকের নিয়ত করে তাহলে তিন তালাক পতিত হবে। 
আর স্বামী যদি ১/২ তালাকের নিয়ত করে তাহলে ১/২ তালাক পতিত হবে।

স্বামী যদি কোনো সংখ্যার নিয়ত না করে,তাহলে শুধু এক তালাক হবে।

★★"তুমি আজ থেকে আমার কেউ না"
এ কথা বলার সময় যদি স্বামীর তালাকের নিয়ত না থাকে,তাহলে তালাক হবেনা। 

আর স্বামীর যদি তালাকের নিয়ত থাকে,তাহলে তালাক হবে।

বিস্তারিত জানুনঃ  

প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন, 
(০১)
এখানে অনেক গুলো কেনায়া বাক্য বলা হয়েছে।
এই বাক্য গুলির মধ্য হতে একটি বাক্য বলার সময়েও যদি স্বামীর তালাকের নিয়ত  থাকে,তাহলে তালাক পতিত হবে। 

আর কোনো বাক্য বলার সময়েও যদি তালাকের নিয়ত না থাকে,তাহলে তালাক হবেনা।
 
(০২)
এটা স্বামী তালাকের নিয়তে বললে তালাক হবে।। 
নতুবা নয়।

(০৩)
https://ifatwa.info/46542/ ফতোয়াতে উল্লেখ রয়েছেঃ  
স্বামী যদি নিজেকে লক্ষ্য করে বলে যে, "সে ডিভোর্স" তাহলে এদ্বারা তালাক হবে না।তবে যদি "সে ডিভোর্স" দ্বারা তার স্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলে, তাহলে এদ্বারা তালাক হয়ে যাবে।

(০৪)
না,তালাক হয়না।

(০৫)
ইদ্দতের মধ্যে কেনায়া বাক্য বলে আবার তালাক দিলে তালাক হবেনা।
তবে ইদ্দতের মধ্যে স্পষ্ট "তালাক" শব্দ ব্যবহার করে তালাক দিলে তাহা পতিত হবে। 

তালাকের বায়েনের পর পুনরায় তালাক দেয়া সংক্রান্ত মাসয়ালা বিস্তারিত জানুনঃ   


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (55 points)
হুযুর আমি ৩ নং প্রস্নে (((((সামি বলে )))) লিখতে গিয়ে (((((((সামি বলি)))))) লিখছি এএতে কি সমস্যা হবে   

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...