0 votes
171 views
in ব্যবসা ও চাকুরী (Business & Job) by (30 points)
আসসালামুআলাইকুম,


অনলাইনে অনেক সাইট আছে যারা একাউন্ট খুললে ফ্রী সার্ভিস ও টাকার বিনিময়ে প্রিমিয়াম সার্ভিস দিয়ে থাকে ৷ ফ্রী সার্ভিসে খুব কম সংখ্যক ফিচার ব্যবহার করা যায়, অন্যদিকে প্রিমিয়ামে সব ফিচার আনলক করে দেয় ব্যবহারের জন্য ৷ বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় তারা প্রিমিয়াম সার্ভিস নেওয়ার আগে চাইলে ৭দিন/১৫দিন/১মাস/৩ মাস ইত্যাদি বিভিন্ন মেয়াদের ফ্রী ট্রায়াল নেওয়ারও সুযোগ দেয়, যেখানে প্রিমিয়াম সব সার্ভিস ব্যবহার করে যাচাই করে নেয়া যায় ৷ ফ্রী ট্রায়ালের পর মন চাইলে প্রিমিয়াম সার্ভিসটা নেওয়াও যায়, আবার বাতিলও করে দেয়া যায় ৷ ফ্রী ট্রায়ালে টাকার দরকার হয়না কিন্তু একটি ক্রেডিট কার্ডের নাম্বার দেয়া লাগে, সেটা রিয়েল কার্ডের নাম্বারও  দেয়া যায়, আবার চাইলে অনলাইন থেকে ফেক ক্রেডিট কার্ড বানিয়েও অনেকসময় করা যায় ৷

,

আমার প্রশ্ন হচ্ছে আমি যদি ব্যবসার উদ্দেশ্যে ফেক ক্রেডিট কার্ড দিয়ে ঐ ফ্রী ট্রায়ালের একাউন্টগুলো বানাই ( যেহেতু একজনের কাছে এতগুলো রিয়েল ক্রেডিট কার্ড থাকা সম্ভব নাহ ) এবং বিক্রি করি সেক্ষেত্রে এধরনের ইনকাম হারাম হবে কিনা...

তাছাড়া ফ্রী ট্রায়ালের ভার্সনে কোন টাকা না কাটলেও একটি ক্রেডিট কার্ডের নাম্বার অবশ্যই দিতে হয়, আর ক্রেডিট কার্ড সবার কাছে থাকেও না বিধায় ফ্রী ট্রায়াল সবাই নিতেও পারেনা, সেক্ষেত্রে ফেক ক্রেডিট কার্ড দিয়ে ফ্রী ট্রায়ালের একাউন্ট বানিয়ে যদি ৭দিন/১৫দিন/১মাস/৩ মাস মেয়াদী প্রিমিয়াম একাউন্ট হিসেবে বিক্রি করি সেক্ষেত্রে এই বিজনেসটা হারাম হবে কি ???

1 Answer

0 votes
by (469,840 points)

ওয়া আলাইকুম আসসালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ।
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
https://ifatwa.info/22757 নং ফাতাওয়ায় আমরা বলেছিলাম যে,
ধোকা এবং প্রতারণা সম্পর্কে হাদীসে ধমকি বর্ণিত হয়েছে,
হযরত আবু-হুরায়রা রাযি থেকে বর্ণিত,
عن أبي هريرة رضي الله عنه أن رسول الله صلى الله عليه وسلم قال : ( مَنْ حَمَلَ عَلَيْنَا السِّلَاحَ ، فَلَيْسَ مِنَّا ، وَمَنْ غَشَّنَا ، فَلَيْسَ مِنَّا )
রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেন-যে ব্যক্তি আমরা মুসলমানদের বিরুদ্ধে অস্র ধরলো, সে আমাদের অন্তর্ভুক্ত নয়।এবং যে কাউকে ধোকা দিলো সেও আমাদের অন্তর্ভুক্ত নয়।(সহীহ মুসলিম-১৪৬)

হযরত আবু-হুরায়রা রাযি থেকে বর্ণিত,
عن أبي هريرة رضي الله عنه – أيضاً - ، وفيه : مَنْ غَشَّ ، فَلَيْسَ مِنِّي
ভাবার্থঃ যে কাউকে ধোকা দিলো সে আমাদের অন্তর্ভুক্ত নয়।(সহীহ মুসলিম-১৪৭)

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
এরকম ব্যবসা ধোকা ও প্রতারণার আওতাধীন হয়ে যাবে। যা হারাম ও নাজায়েয।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...