0 votes
23 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (33 points)
edited by
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ।

আমার বয়স ২৩, একজন মেয়ে।  পরিবারের সবার ছোট। কিন্তু পরিবারে সবাই এখনো আমাকে ছোট করেই দেখে। আমাকে ছোট বেলা থেকে তেমন কিছু শেখানো হয়নি। আমার আগ্রহ ছিল কাজ করার বা শেখার কিন্তু সবসময় একটা কথাই শুনতে হয় তুই ছোট। আমার আচার আচরণ এজন্য বাচ্চাদের মতোই। মেচুরিটির অভাব। কোনো কাজ সুন্দর ভাবে গুছিয়ে করতে পারি না। তাই খালি বকা শুনি। আম্মু অনেক সময় ভালো ব্যবহার করলেও প্রায় খুব বকা ঝকা করে আমি কিছু করতে গেলেই। চেষ্টা করি সহ্য করার কিন্তু আমি কেমন যেন খুব খিটখিটে মেজাজের হয়ে গেছি। আমার কথা বার্তায় কোনো মাধুরতা নাই। কেউ ভুল ধরলে আমার খুব রাগ লাগে। আর আম্মু খালি ভুল ধরে। আমার কিছুই ভালো লাগে না। তাই অনেক সময় খারাপ ব্যবহার করে ফেলি। মানসিক কষ্টে ভুগি। নন-প্র‍্যাক্টিসিং ফেমিলি। তাই কারো সাথে ইসলামিক আলাপ আলোচনার ও সুযোগ পাই না। আম্মুর সাথে মাঝে মাঝে একটু বলি কিন্তু তার মধ্যে আগ্রহ দেখি না। তাই আর বলা হয় না। পরিবার থেকে বিয়ের চিন্তা ও করে না। তারা জানে যে আমি বিয়ে করতে চাই। তারা আমাকে ছোট বানায়াই রাখসে। আমার তাদের প্রতি খুব রাগ হয়। ভালো লাগেনা কারো সাথে কথা বলতে। আবার নিজেকে নিয়াও কষ্ট পাই যে আমার আখলাক খুব খারাপ, যার কারণে হয়তো জাহান্নামে যেতে পারি

1 Answer

0 votes
by (154,240 points)
জবাব
وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته 
بسم الله الرحمن الرحيم 

অনেক বুজুর্গানে কেরাম ও শায়েখগণ বলেছেন যে নিম্নোক্ত  দোয়া খালেছ দিলে বেশি বেশি পাঠ করিলে দ্রুত বিবাহ হবে,ইনশাআল্লাহ। 

সূরা ফুরকান এর ৭৪ নং আয়াতে মহান আল্লাহ্পাক বলেন
وَالَّذِينَ يَقُولُونَ رَبَّنَا هَبْ لَنَا مِنْ أَزْوَاجِنَا وَذُرِّيَّاتِنَا قُرَّةَ أَعْيُنٍ وَاجْعَلْنَا لِلْمُتَّقِينَ إِمَامًا
এবং যারা বলে, হে আমাদের পালনকর্তা, আমাদের স্ত্রীদের পক্ষ থেকে এবং আমাদের সন্তানের পক্ষ থেকে আমাদের জন্যে চোখের শীতলতা দান কর এবং আমাদেরকে মুত্তাকীদের জন্যে আদর্শস্বরূপ কর।
অনেক উলামায়ে কেরাম এই আয়াতের ফজিলত স্বরুপ বলেছেন  যে এই আয়াতে রাব্বুল আলামিন আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি দোয়া শিখিয়েছেন।
এই দোয়া টি নিয়মিত পাঠ করলে আশা করা যায় যে নিজের স্ত্রী,সন্তানাদী চক্ষু শীতলকারি, দ্বীনদার পরহেযগার হবে,ইনশাআল্লাহ । 

যারা মহান আল্লাহর কাছে উত্তম জীবনসঙ্গী লাভের প্রত্যাশা করে, তাদের উচিত মহান আল্লাহর কাছে তারই শেখানো ভাষায় আবেদন করা। আল্লাহ তাআলা পবিত্র কুরআনুল কারিমে বান্দাকে উত্তম স্বামী/স্ত্রী ও সন্তান লাভের দোয়া শিখিয়েছেন। যেসব স্বামী/স্ত্রী ও সন্তান একে অন্যের চোখকে শীতল করবে। কুরআনুল কারিমের এ আয়াতের আমলে আল্লাহ তাআলা প্রত্যেক পুরুষকেই এমন উত্তম স্ত্রী ও সন্তান দান করবেন, যাদের দেখে পুরুষদের মন শান্ত হয়ে যাবে।
পক্ষান্তরে যে সব নারী এ দোয়ার আমল করবে, আশা করা যায়, আল্লাহ তাআলা সেসব স্ত্রীদেরকেও নয়নজুড়ানো স্বামী ও সন্তান দান করবেন।
,
দ্রুত বিবাহের জন্য আপনি ছলাতুল হাজত এর নামাজ পড়ে বেশি বেশি দুয়া করতে পারেন।
ইনশাআল্লাহ দ্রুত বিবাহ হবে।

আরো জানুনঃ https://ifatwa.info/2122


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...