+1 vote
475 views
in সালাত(Prayer) by (49 points)

শায়খ আসসালামুআলাইকুম,

মাগরিবের নামাজের পর অনেকে দেখি কপালে হাত দেন এর কারণ কি? আরেকটা বিষয়, অনেক সময় দেখা  যায় নামাজের ইকামতের সময় দুই আঙ্গুল চুমা দিয়ে চোখের পাতায় লাগান। এর কারণ কি?

1 Answer

0 votes
by (49,760 points)
বিসমিহি তা'আলা

ওয়া আলাইকুম আসসালাম।

জবাবঃ-

(১)

নামাযের পর ডান হাত মাথায় দিয়ে দু'আ পড়া হাদীস দ্বারা প্রমাণিত রয়েছে।

হযরত আনাস ইবনে মালিক রাযি থেকে বর্ণিত,

ﻋَﻦْ ﺃَﻧَﺲِ ﺑْﻦِ ﻣَﺎﻟِﻚٍ، ﺭَﺿِﻲَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻨْﻪُ ﺃَﻥَّ ﺍﻟﻨَّﺒِﻲَّ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﻛَﺎﻥَ ﺇِﺫَﺍ ﺻَﻠَّﻰ ﻭَﻓَﺮَﻍَ ﻣِﻦْ ﺻَﻠَﺎﺗِﻪِ ﻣَﺴَﺢَ ﺑِﻴَﻤِﻴﻨِﻪِ ﻋَﻠَﻰ ﺭَﺃْﺳِﻪِ ﻭَﻗَﺎﻝَ : « ﺑِﺴْﻢِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺍﻟَّﺬِﻱ ﻟَﺎ ﺇِﻟَﻪَ ﻏَﻴْﺮُﻩُ ﺍﻟﺮَّﺣْﻤَﻦِ ﺍﻟﺮَّﺣِﻴﻢِ، ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺃَﺫْﻫِﺐْ ﻋَﻨِّﻲ ﺍﻟْﻬَﻢَّ ﻭَﺍﻟْﺤَﺰَﻥَ » ﺍﻟﻜﺘﺎﺏ : ﺍﻟﺪﻋﺎﺀ ﻟﻠﻄﺒﺮﺍﻧﻲ ﺍﻟﻤﺆﻟﻒ : ﺳﻠﻴﻤﺎﻥ ﺑﻦ ﺃﺣﻤﺪ ﺑﻦ ﺃﻳﻮﺏ ﺑﻦ ﻣﻄﻴﺮ ﺍﻟﻠﺨﻤﻲ ﺍﻟﺸﺎﻣﻲ، ﺃﺑﻮ ﺍﻟﻘﺎﺳﻢ ﺍﻟﻄﺒﺮﺍﻧﻲ ( ﺍﻟﻤﺘﻮﻓﻰ : 360 ﻫـ ) ﺍﻟﻤﺤﻘﻖ
রাসূলুল্লাহ সাঃ যখন নামায থেকে ফারিগ হতেন,তখন ডান হাত মাথায় দিয়ে নিম্নোক্ত দু'আটি পড়তেন।

বিসমিল্লাহি-ল্লাহযি লা-ইলাহা গায়রুহু-র-রাহমািনর রাহিম,আল্লাহুম্মা আযহিব আ'ন্নিল-হাম্মা ওয়াল-হুযনা।

(আদ্দু'আ-তাবারানী রাহ)

আনাস ইবনে মালিক রাযি পর্যন্ত ১২ রাবীর মধ্যে ৪ জন রাবী
১.দাউদ ইবনুল মুবাহ্হির

২.কাছির ইবনে সুলাইম

৩.সাল্লাম ইবনে সুলাইম

৪) বিশর ইবনুল হুসেন

এই চার হাদীস বর্ণনাকারীকে মুহাদ্দিসগণ অত্যন্ত দুর্বল (ﺿﻌﻴﻒ ﺟﺪﺍ) হিসাবে গণ্য করেছেন।

তবে কাশফুল আস্তারের বর্ণনায় উপরের বর্ণিত দুর্বল বর্ণনাকারীর কেউ নেই। সুতরাং এই সনদ  এবং ইহার সমর্থনকারী অন্যান্য সনদের কথা বিবেচনা করে, এই বর্ণনাকে হাসান-লিগায়ারিহি ( حسن لغيره ) হিসাবে বিবেচনা করা যেতে পারে।

সে হিসেবে নামাযের পর মাথায় হাত দিয়ে নিম্নোক্ত দু'আকে দু'আ পড়া যেতে পারে।হাদীসে বর্ণিত দু'আটি ফরয নামাযের ব্যাপারে এসেছে।কিন্তু নফল নামাযেও পড়া যাবে।

হাশিয়াতুত তাহতাবী তে বর্ণিত  রয়েছে-
ﻭﺃﻣﺎ ﺑﻌﺪ ﺍﻟﺴﻼﻡ ﻓﻼ ﻳﻜﺮﻩ ﻟﻤﺎ ﺭﻭﻯ ﺍﺑﻦ ﺍﻟﺴﻨﻲ ﻓﻲ ﻛﺘﺎﺑﻪ ﻋﻦ ﺃﻧﺲ ﻗﺎﻝ ﻛﺎﻥ ﺭﺳﻮﻝ ﺍﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﺇﺫﺍ ﻗﻀﻰ ﺻﻼﺗﻪ ﻣﺴﺢ ﺟﺒﻬﺘﻪ ﺑﻴﺪﻩ ﺍﻟﻴﻤﻨﻰ ﺛﻢ ﻗﺎﻝ ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ ﺍﻟﻠﻪ ﺍﻟﺮﺣﻤﻦ ﺍﻟﺮﺣﻴﻢ ﺍﻟﻠﻬﻢ ﺃﺫﻫﺐ ﻋﻨﻲ ﺍﻟﻬﻢ ﻭﺍﻟﺤﺰﻥ ”ﺣﺎﺷﻴﺔ ﺍﻟﻄﺤﻄﺎﻭﻱ ( 346/1 ) ﺩﺍﺭ ﺍﻟﻜﺘﺐ ﺍﻟﻌﻠﻤﻴﺔ

সালামের পর মাথায় হাত দেওয়া মাকরুহ নয়।কেননা ইবনুস-সুন্নি উনার কিতাব 'আ'মলুল ইয়াওম ওয়াল-লাইলাতি' গ্রন্থে হযরত আনাস রাযি থেকে বর্ণনা নকল করেন যে,রাসূলুল্লাহ সাঃ যখন নামায শেষ করতেন,তখন উনার ডান হাত দ্বারা তিনি কপালকে স্পর্শ করতেন।অতঃপর বলতেন,

আশহাদু আন লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহুর রাহমানির রাহিম,আল্লাহুম্মা আযহিব আ'ন্নিল-হাম্মা ওয়াল-হুযনা।(হাশিয়াতুত তাহতাবী-১/৩৪৬)

আরো বর্ণিত রয়েছে-

কিতাবুন-নাওয়াযিল-৫/৫৪৩

(২)

ইক্বামতের সময় আঙ্গুলে চুমু দেয়া অতঃপর চক্ষুতে বুলানো সম্পর্কে কোনো বিবরণ সম্পর্কে আমাদের জানাশোনা নেই।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, Iom.

পরিচালক

ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (49 points)
জাজাকআল্লাহ।উত্তর পেয়েছি মুহতারাম ।

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...