0 votes
94 views
in ঈমান ও বিশ্বাস (Faith and Belief) by (2 points)
সচেতন মাওলানাদের কাছে আমার প্রশ্ন হল, আপনারা সবাই সাদকে বাতিল বললেন ২০১৮ তে আর প্রমাণ করেছেন যে তিনি আলেমই না অথচ আপনারা সবাই তার সাথে তাবলীগ করেছেন তার বাতিল এর আলামত প্রকাশ পাওয়ার পরও অথচ আপনাদের পরম বন্ধু চরমোনাই এর আক্বিদায় কুফরী আছে , তারা কেন কেউই বাতিল হলো না?? এখন প্রশ্ন হলো বাতিল কাকে বলে? কি কি কাজ করলে বাতিল ঘোষণা করা হবে ? বাতিল এর আলামত কি কি?? কোন ব্যক্তি বা দল কি কাজ করলে বাতিল হয়ে যায়?? একটুখানি জ্ঞান দিয়ে বুঝাতে সাহায্য করুন

1 Answer

0 votes
by (39.3k points)
বিসমিহি তা'আলা

সমাধানঃ-
আমাদের মূল উদ্দেশ্য হল, মুসলমানদের মাঝে পরস্পর ঐক্য ও সম্প্রীতি।
আমাদের এ ওয়েবসাইট সত্যান্বেষী মুসলিম উম্মাহর সকল দ্বীনী ভাই/বোনকে সমানভাবে  মহব্বত ও শ্রদ্ধা করে।

আমাদের এখানে নির্দিষ্ট করে এমন কোনো দল বা মতবেদ সম্পর্কে প্রশ্ন করা যাবে না,যা আমাদের মূল লক্ষ্য-উদ্দেশ্যকে ব্যাহত করে।হ্যা কোনো বিষয় সম্পর্কে কুরআন হাদীসের দৃষ্টিভঙ্গি কী? সেটা প্রশ্ন করা যাবে।সেই মাস'আলা যেকোনো সম্প্রদায়ের সাথে সম্পর্কিত হোক না কেন।তবে কোনো দল বা উপদলের নাম উল্লেখ করে নয়।আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করবো।

কে হক আর কে বাতিল?
এ প্রশ্ন রাসূলুল্লাহ সাঃ এবং খুলাফায়ে রাশেদীনের পরবর্তী সময়ে থেকে চলে আসছে।এবং হয়তো কিয়ামত পর্যন্ত চলবে।

কুরআন এবং হাদীসকে যারা রাসূলুল্লাহ সাঃ এর শিক্ষা এবং সাহাবায়ে কেরামের আ'মল অনুযায়ী জানবে ও মানবে একমাত্র তারাই হক্ব।

কোনো দল বা উপদলের কর্ম বা মতাদর্শ যদি রাসূলুল্লাহ সাঃ এর শিক্ষার বিপরীত হয় তাহলে অবশ্যই সেটা পরিত্যাজ্য হবে।

যারা কুরআন-সুন্নাহর আলোকে নিজেদেরকে পরিচালিত করছে,আপনি তাদেরকে ফলো করতে পারেন।দুনিয়া ও অাখিরাতে আপনি কামিয়াব হবেন।

দেখুন কোন দল হক? সে সম্পর্কে রাসূলুল্লাহ সাঃ কি বলছেন,
 ﻭَﺗَﻔْﺘَﺮِﻕُ ﺃُﻣَّﺘِﻲ ﻋَﻠَﻰ ﺛَﻠَﺎﺙٍ ﻭَﺳَﺒْﻌِﻴﻦَ ﻣِﻠَّﺔً ﻛُﻠُّﻬُﻢْ ﻓِﻲ ﺍﻟﻨَّﺎﺭِ ﺇِﻟَّﺎ ﻣِﻠَّﺔً ﻭَﺍﺣِﺪَﺓً ، ﻗَﺎﻟُﻮﺍ : ﻭَﻣَﻦْ ﻫِﻲَ ﻳَﺎ ﺭَﺳُﻮﻝَ ﺍﻟﻠَّﻪِ ؟ ﻗَﺎﻝَ : ﻣَﺎ ﺃَﻧَﺎ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺃَﺻْﺤَﺎﺑِﻲ )
আমার উম্মত তেহাত্তর দলে বিভক্ত হবে।সবাই জাহান্নামে যাবে একদল ব্যতীত। সাহাবায়ে কেরাম জিজ্ঞাসা করলেন,সেই নাজাতপ্রাপ্ত দল কোনটা? রাসূলুল্লাহ সাঃ বললেন,নাজাতপ্রাপ্ত দল তারাই যারা আমার নির্দেশিত পথ এবং আমার সাহাবায়ে কেরামের আ'মলকৃত পথকে অনুসরণ করবে।
সুনানে তিরমিযি-২৬৪১

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ, IOM.
পরিচালক
ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...