0 votes
59 views
in পবিত্রতা (Purity) by (4 points)
হাদিসে ওযু করে ঘুমানোর গুরুত্বপূর্ণ ফযিলতের ব্যাপারে উল্লেখ আছে। উস্তাদ, আমি আপনার নিকট জানতে চাচ্ছি যে, রাতে ওযু করে ঘুমানোর পর যদি হটাৎ ঘুম ভেঙে যায়, তবে কি পুনরায় ওযু করে এসে ঘুমাতে হবে নাকি ওই অবস্থায় ওজু না করেও ঘুমানো যাবে?
জাযাকাল্লাহু খাইরান।

1 Answer

+1 vote
by (59,920 points)
জবাব
بسم الله الرحمن الرحيم 

মৃত্যুর সাথে ঘুমের অনেক মিল রয়েছে। এদিক থেকে ঘুম হচ্ছে জাগরণ ও মৃত্যুর মাঝামাঝি একটা অবস্থা। তাই মুমিনদের কর্তব্য ঘুমাতে যাওয়ার সময় আল্লাহকে স্মরণ করা। গুনাহ থেকে ক্ষমা চাওয়া এবং এসময়ের উপযোগী মাসনূন দুআগুলো পাঠ করা। 
হাদীস শরীফে ঘুমানোর আগে অযু করার কথা বলা হয়েছে, অযু করে ঘুমানো সুন্নাত।  

হাদীস শরীফে এসেছেঃ   
হযরত বারা ইবনে আযিব রা. হতে বর্ণিত তিনি বলেন, আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাকে বলেছেন, তুমি যখন ঘুমুতে যাও তখন নামাযের মত ওযু করবে তারপর ডান কাতে শোবে এবং বলবে,
اللّهُمَّ أَسْلَمْتُ وَجْهِي إِلَيْكَ، وَفَوَّضْتُ أَمْرِي إِلَيْكَ، وَأَلْجَأْتُ ظَهْرِي إِلَيْكَ، رَغْبَةً وَرَهْبَةً إِلَيْكَ، لاَ مَلْجَأَ وَلاَ مَنْجَأَ مِنْكَ إِلَّا إِلَيْكَ، اللّهُمَّ آمَنْتُ بِكِتَابِكَ الَّذِي أَنْزَلْتَ، وَبِنَبِيِّكَ الَّذِي أَرْسَلْتَ.
অর্থ : ইয়া আল্লাহ! আমি আমার সত্তাকে তোমার কাছে সমর্পণ করলাম, আমার সকল বিষয় তোমার উপর ন্যস্ত করলাম আর তোমাকেই আমার পৃষ্ঠপোষক বানিয়ে নিলাম। তোমার প্রতাপের ভয় ও রহমতের আশা নিয়ে। তুমি ছাড়া নেই কোনো আশ্রয়স্থল, কোনো আত্মরক্ষার স্থান। তোমার কিতাবের উপর ঈমান এনেছি, যা তুমি নাযিল করেছ এবং তোমার নবীর উপর ঈমান এনেছি, যাঁকে তুমি প্রেরণ করেছ।
এ দুআ শিক্ষা দিয়ে বলেন, তুমি যদি এ দুআ পড়ে মারা যাও তাহলে তোমার মৃত্যু হবে দ্বীনে ফিতরতের উপর তথা ঈমানের উপর। আর এ দুআ যেন হয় তোমার ঘুমের আগের শেষ কথা। (অর্থাৎ এটা পাঠ করার পর আর কোনো কথা যেন না বলা হয়।) -সহীহ বুখারী, হাদীস ৬৩১১; সহীহ মুসলিম, হাদীস ২৭১০

হযরত হুযায়ফা রা. থেকে বর্ণিত তিনি বলেন, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যখন রাতে শয্যাগ্রহণ করতেন তখন নিজের হাতটি গালের নীচে রাখতেন। (অর্থাৎ ডান হাত ডান গালের নীচে রেখে ডান কাতে কেবলামুখি হয়ে শুয়ে যেতেন। যেমন অন্যান্য হাদীসে বর্ণিত হয়েছে) তারপর বলতেন,
اَلّلهُمَّ بِاسْمِكَ أَمُوْتُ وَأَحْيَا
অর্থ : ইয়া আল্লাহ! তোমার নামেই আমার মরণ, তোমার নামেই আমার জীবন। আর যখন ঘুম থেকে জাগ্রত হতেন তখন বলতেন,
اَلْحَمْدُ لله الَّذِيْ أَحْيَانَا بَعْدَ مَا أَمَاتَنَا وَإِلَيْهِ النُّشُوْر.
অর্থ : সকল প্রশংসা আল্লাহরই যিনি আমাদের মৃত্যু দিয়ে আবার জীবনস্ফ দান করেছেন। আর অবশেষে আমাদেরকে তাঁরই কাছে ফিরে যেতে হবে। -সহীহ বুখারী, হাদীস ৬৩১৪; সহীহ মুসলিম, হাদীস ২৭১১ 
,
★প্রিয় প্রশ্ন কারী দ্বীনি ভাই বোন!
ঘুমানোর আগে অযু করা সুন্নাত,কেহ যদি অযু না করেই ঘুমায়,সেটা নাজায়েজ নয়।
তবে সুন্নাতের খেলাফ। 
কেহ কেহ এটাকে মুস্তাহাবও বলেছেন।
,  
 তবে প্রশ্নে উল্লেখিত  ওযু করে ঘুমানোর পর যদি হঠাৎ ঘুম ভেঙে যায়,আর আপনি যদি বিছানাতেই থাকেন,কোনো কাজে উঠে না যান, তবে  পুনরায় ওযু করতে হবেনা, ঐ অবস্থায় ওজু না করেও ঘুমানো যাবে।
,
আর যদি আপনি ঐ মুহুর্তে উঠে গিয়ে বাহিরে কোনো ইস্তেঞ্জা,ইত্যাদি করে আসেন,তাহলে আবার ঘুমাইলে অযু করে ঘুমানো মুস্তাহাব।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (4 points)
JazakAllahu Khairan 

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...