0 votes
10 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (28 points)
আসসালামু আলাইকুম,
বর্তমানে-
* অনেকেই কানে হেডফোন লাগিয়ে বিছানায় শুয়ে শুয়ে ওয়াজ শুনে।
* আবার অনেকে খাওয়ার সময় মোবাইল পাশে রেখে ওয়াজ শোনে।
* শ্রমিকদের দেখা যায় কাজের পাশাপাশি ওয়াজ শুনতে।
এভাবে ওয়াজ শোনা কী ঠিক? নাকি উত্তম কোনো ত্বরীকা আছে?

1 Answer

0 votes
by (60,680 points)
ওয়া আলাইকুম আসসালাম।
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
আল্লাহ তা'আলা কুরআন অধ্যায়ন সম্পর্কে বলেন,
ﺇِﻥَّ ﻓِﻲ ﺫَﻟِﻚَ ﻟَﺬِﻛْﺮَﻯ ﻟِﻤَﻦ ﻛَﺎﻥَ ﻟَﻪُ ﻗَﻠْﺐٌ ﺃَﻭْ ﺃَﻟْﻘَﻰ ﺍﻟﺴَّﻤْﻊَ ﻭَﻫُﻮَ ﺷَﻬِﻴﺪٌ
এতে উপদেশ রয়েছে তার জন্যে, যার অনুধাবন করার মত অন্তর রয়েছে। অথবা সে নিবিষ্ট মনে শ্রবণ করে।(সূরা ক্বাফ-৩৭)

উক্ত আয়াত থেকে বুঝা যায় যে,কোনো কিতাব অধ্যায়ন বা কোনো বায়ান শুনার জন্য অপরিহার্য বিষয় হলো,অন্তরকে উপস্থিত রেখে দিলের কর্ণ দ্বারা তা শ্রবণ করা।
অন্তরকে উপস্থিত রেখে দিলের কর্ণ দ্বারা কিছু শ্রবণ করলে বা অধ্যায়ন করলে তবেই কিছুটা ফায়দা হবে।এটাই কিতাব অধ্যায়ন বা নসিহত শ্রবণের মূলনীতি।

বয়ানকে যেকোনো ভাবে শ্রবণ করা যাবে।দাড়িয়ে, বসে,শুয়ে যেকেনোভাবে বয়ানকে শ্রবণ করা যাবে।তবে অন্তর দিয়ে শ্রবণ করতে হবে। অন্তর দিয়ে শ্রবণ না করলে তেমন কোনো ফায়দা হবে না।
বক্তা উপস্থিত থাকলে,বক্তার চেহাররার দিকে তাকিয়ে বক্তার সম্মুখে বসে বয়ান শ্রবণ করাই কাম্য এতে অনেক ফায়দা নিহিত রয়েছে--.............বিস্তারিত জানুন- 1356


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...