0 votes
15 views
in সালাত(Prayer) by (28 points)
হানাফি মাজহাবে নিম্নলিখিত কাজ গুলোর বিধান কি?  সুন্নত, নাকি নফল না মুস্তাহাব নাকি বিদায়াত?

১) জোরে আমিন বলা।

২) রাফালে ইয়াদিন করা

৩) সাহু সিজদাহ এই ভাবে দেয়াঃ (শেষ বৈঠকে দুয়া মাসুরা পড়ে আল্লাহু আকবার বলে ২ সিজদাহ দিয়ে তারপর সালাম ফিরানো) এটা কি জায়েজ?

৪)বুকের উপর হাত বাধা বা সালাফিরা যেভাবে হাত বাধে সেভাবে হাত বাধা।

৫)সম্মিলিত মুনাজাত করা।

৬) জুহর এবং আছড়ের নামাজে ইমামের পিছনে মুক্তাদি সুরা ফাতেহা পড়া।

৭)জলসাতুল ইসতিরাহা করা

হানাফি মাজহাব অনুযায়ী এগুলোর বিধান বললে উপকৃত হতাম

1 Answer

0 votes
by (306,320 points)
edited by


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
(১)
নামাযে নিম্নস্বরে আমিন বলা সুন্নত।
(২)
https://www.ifatwa.info/253 নং ফাতাওয়ায় বলেছি যে,
রাফয়ে ইয়াদাঈন সম্পর্কে পক্ষে বিপক্ষে উভয় রকম হাদীস দেখতে পাওয়া যায়। যেমন,

(পক্ষে)
হযরত ইবনে উমর রাযি থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন,
ﻋﻦ ﺍﺑﻦ ﻋﻤﺮ : ( ﺃَﻥَّ ﺭَﺳُﻮﻝَ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﻛَﺎﻥَ ﻳَﺮْﻓَﻊُ ﻳَﺪَﻳْﻪِ ﺣَﺬْﻭَ ﻣَﻨْﻜِﺒَﻴْﻪِ ﺇِﺫَﺍ ﺍﻓْﺘَﺘَﺢَ ﺍﻟﺼَّﻠَﺎﺓَ ، ﻭَﺇِﺫَﺍ ﻛَﺒَّﺮَ ﻟِﻠﺮُّﻛُﻮﻉِ ، ﻭَﺇِﺫَﺍ ﺭَﻓَﻊَ ﺭَﺃْﺳَﻪُ ﻣِﻦْ ﺍﻟﺮُّﻛُﻮﻉِ ﺭَﻓَﻌَﻬُﻤَﺎ ﻛَﺬَﻟِﻚَ ﺃَﻳْﻀًﺎ ﻭَﻗَﺎﻝَ ﺳَﻤِﻊَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻟِﻤَﻦْ ﺣَﻤِﺪَﻩُ ﺭَﺑَّﻨَﺎ ﻭَﻟَﻚَ ﺍﻟْﺤَﻤْﺪُ ، ﻭَﻛَﺎﻥَ ﻟَﺎ ﻳَﻔْﻌَﻞُ ﺫَﻟِﻚَ ﻓِﻲ ﺍﻟﺴُّﺠُﻮﺩِ )
তাকবীরে তাহরিমার সময় রাসূলুল্লাহ সাঃ কাধ বরাবর হাতদ্বয় তুলেছেন।এবং যখন রু'কুর জন্য তাকবীর বলেছেন,তখনও হাতদ্বয়(কাধ পর্যন্ত) তুলেছেন।এবং যখন রু'কু থেকে মাথা তুলেছেন তখনও হাতদ্বয় (কাধ পর্যন্ত) তুলেছেন।অতঃপর সা'মি আল্লাহু লিমান হামিদাহ এবং তারপর রাব্বানা লাকাল হামদ বলেছেন।কিন্তু তিনি সেজদায় এমনটা করেননি। তথা কাধ পর্যন্ত হাতদ্বয় তুলেননি।(সহীহ বুখারী-৭৩৫-৭৩৯,সহীহ মুসলিম-৩৯০)

(বিপক্ষে)
হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাযি থেকে বর্ণিত,তিনি বলেন,
ﻋﻦ ﻋﺒﺪ ﺍﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﻣﺴﻌﻮﺩ ﺭﺿﻲ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﻨﻪ ﻗﺎﻝ : ﺃَﻻ ﺃُﺻَﻠِّﻲ ﺑِﻜُﻢْ ﺻَﻼﺓَ ﺭَﺳُﻮﻝِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ؟ ﻓَﺼَﻠَّﻰ ﻓَﻠَﻢْ ﻳَﺮْﻓَﻊْ ﻳَﺪَﻳْﻪِ ﺇِﻻ ﻣَﺮَّﺓً .
আমি কি তোমাদেরকে সাথে নিয়ে রাসূলুল্লাহ সাঃ এর মত সালাত পড়ব?তাহলে চলো!অতঃপর ইবনে মাসউদ রাযি তাদেরকে সাথে নিয়ে সালাত আদায় করলেন।প্রথমবার ব্যতীত অার কখনো রাফয়ে ইয়াদাঈন করেননি। (সুনানে আবু-দাউদ;৭৪৮)

হযরত বারা' ইবনে আযিব রাযি, থেকে বর্ণিত,
ﻋَﻦْ ﺍﻟْﺒَﺮَﺍﺀِ ﺑﻦ ﻋﺎﺯﺏ ﺃَﻥَّ ﺭَﺳُﻮﻝَ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﻛَﺎﻥَ ﺇِﺫَﺍ ﺍﻓْﺘَﺘَﺢَ ﺍﻟﺼَّﻠَﺎﺓَ ﺭَﻓَﻊَ ﻳَﺪَﻳْﻪِ ﺇِﻟَﻰ ﻗَﺮِﻳﺐٍ ﻣِﻦْ ﺃُﺫُﻧَﻴْﻪِ ﺛُﻢَّ ﻟَﺎ ﻳَﻌُﻮﺩُ .
রাসূলুল্লাহ সাঃ যখন সালাত শুরু করতেন, তখন কানের লতি পর্যন্ত হাতদ্বয়কে উত্তোলিত করতেন।অতঃপর সালাতের ভিতর তা আর কখনো করতেন না। (সুনানে আবু-দাউদ;৭৪৯)

(৩)
জ্বী, এটাও জায়েয।

(৪)
নাভীর নীচে হাত বাধা সুন্নত।
(৫)
জায়েয।
(৬)
মাকরুহে তাহরিমী।

(৭)
জলসাতুল ইসতেরাহ তারাবিহর নামাযে মুস্তাহাব।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...