0 votes
16 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (27 points)
reshown by
আমাদের এখনো বিয়ে হয়নি কয়দিন পর আমাদের বিয়ে। একদিন রাতে আমি তালাকের মাসালা পরতেছিলাম।তো সেখানে দেখলাম যে বিয়ের আগে শর্তযুক্ত তালাক দেয়া যায়,তো তখন আমার মনে সন্দেহ ঢুকলো যে আমি ওকে এরকম কোনো শর্ত দিয়েছিলাম কিনা, তো মনে পরে একবার ওকে বলেছিলাম তুমি কখনো কোনো ছেলের সাথে নাইচোনা নাচলে ব্রেকাপ[কথা টা তখন বলেছিলাম কারণ ও ওর একটা ছেলে বন্ধুর সাথে নেচেছিলো তাই], তো আমি ভেবেছিলাম যে এটার জন্য শর্ত পরে গেছে তো পরে ঘাটাঘাটি করে দেখলাম যে না এভাবে শর্ত পরে না।তারপর আমি মনে মনে ভাবি যে, এটার কারণে শর্ত যে পররেনা এটা আমি জানি ও তো আর জানেনা তো ওকে ভয় দেখাবো যে শর্ত পরে গেছে।তো এরকম চিন্তা ভাবনা আত নিয়ত করার কারণে আমার সাথে সাথে মনে হলো যে এরকম ভাবার বা নিওত করার কারণে কি শর্ত পরে গেলো কিনা তো এটা নিয়ে আমি অনেক টেনসন এ ছিলাম যে শর্ত পরলো কি পরলো না অনেক সন্দেহে ছিলাম তো এজন্য ওকে সতর্ক করার জন্য  মেসেজ দিয়ে বলি যে তুমি কখনো এরোকম কোনো কাজ করোনা নয়তো কিন্তু বিয়ের পর তালাক হয়ে যাবে।তো তখন আবার দেখলাম যে মনে মনে যে ভেবেছিলাম যে ওকে ভয় দেখাবো ব্রেকাপ এর কথার দারা  শর্ত পরে গেছে বলে,তো এটার জন্য শর্ত পরবেনা।তো এখন আবার মনে ভয় ঢুকে গেলো যে,ওকে মেসেজ এ এভাবে শতর্ক করার কারণে কি কোনো শর্ত পরে গেলো কিনা তো এটা নিয়েও অনেক সন্দেহে ছিলাম যে পরলো কি পরলো না তাই সিদ্ধান্ত নেই যে ধুর এতো টেনসন আর সন্দেহে থাকতে পারবো না আমি ,আর ভাল্লাগতাসে না তাই একা বসে মুখে একবার বলেই দেই তাহলে তো সিওর থাকবো যে শর্ত পরে গেছে তো আমি বলি যে ও যদি কোনো ছেলের সাথে নাচে তাহলে ওর সাথে আমার বিয়ে হলে বিয়ের পর তালাক হয়ে যাবে।কথাটা বলার সময় আমার কোনো বেপারেই কোনো নিয়ত ছিলো না, আমার মনে শুধু একটাই ছিলো যে সন্দেহ দুর করবো তাই বলতেছি মুখে।তো কথাটা বলার পর সাথে সাথে ভাবি মনে মনে যে, "বিয়ের আগে নাচলে তালাক নাকি পরে নাচলে কি জানি মনে হয় সারাজীবন"।কথাটা বলার সময় আমার কি এ বেপারে কোনো নিয়ত ছিলো কি ছিলোনা আমি এটাও জানিনা।শুধু এতুটুক জানি যে, সন্দেহ দূর করতে হবে তাই মুখে একবার বলে দেই।

এই ছিলো পুরো ঘটনা।

1শর্ত টা বিয়ের আগ পরজন্ত নাকি সারাজীবন ?

2.এখানে কোনো ছেলে বলতে পরপুরুষ ধরা হবে নাকি বাবা আপন ভাই ও ধরা হবে?[এ বেপারে নিয়ত ছিলো না কোনো ঘটনা পরলে বুঝবেন]

1 Answer

0 votes
by (25,640 points)
edited by

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ

https://ifatwa.info/34517/ নং ফাতাওয়াতে আমরা বলেছি যে,

পূর্বের কিছু ফতোয়াতে উল্লেখ করা হয়েছে যে,  

বিবাহ পূর্বক মুয়াল্লাক তালাক দিলে সেটি বিবাহ করা মাত্র পতিত হবে।

,

মুয়াল্লাক তালাক দেওয়ার পদ্ধতি হলো কেহ যদি এমন বলে যে আমি যাকেই বিবাহ করবো,সেই তালাক,বা এমন বলে যে  আমি যদি অমুক মহিলাকে বিবাহ করি,তাহলে সে তালাক,বা এমন বলে যে আমি যখনই বিবাহ করিবো,তখনই তালাক ইত্যাদি।

 

হাদীস শরীফে এসেছেঃ  

عَنْ الشَّعْبِیِّ أَنَّهُ سُئِلَ عَنْ رَجُلٍ قَالَ لامْرَأَتهِ: کُلُّ امْرَأَةٍ أَتَزَوَّجُهَا عَلَیْک فَهَیَ طَالِقٌ، قَالَ: فَکُلُّ امْرَأَةٍ یَتَزَوَّجُهَا عَلَیْهَا، فَهِیَ طَالِقٌ.

ابن أبي شیبة، المصنف، 4: 65، رقم: 17838، الریاض: مکتبة الرشد

যার সারমর্ম হলো কেহ যদি বলে যে আমি যেই মহিলাকেই বিবাহ করবো,সে তালাক।

তাহলে তালাক পতিত হয়ে যাবে।    

 

আরো জানুনঃ 

https://ifatwa.info/32810/

 

তালাককে শর্তের সাথে সংযুক্ত করলে সেই শর্ত পাওয়া গেলেই বক্তব্য অনুপাতে তালাক পতিত হয়ে যাবে।

واذا اضافه إلى الشرط، وقع عقيب الشرط اتفاقا، مثل أن يقول لامرأته: إن دخلت الدار فأنت طالق، (الفتاوى الهندية، الفصل الثالث فى تعليق الطلاق-1/420، الهداية، كتاب الطلاق، باب الأيمان فى الطلاق-2/385، تبيين الحقائق، باب التعليق-3/109)

সারমর্মঃ যদি তালাককে কোনো শর্তের সাথে যুক্ত করে,তাহলে শর্ত পাওয়ার পরেই তালাক পতিত হয়ে যাবে।

 

ألفاظ الشرط إنومتی ومتی ما ففي ہٰذہٖ الألفاظ إذا وجد الشرط انحلت الیمین وانتہت؛ لأنہا لا تقتضي العموم والتکرار، فبوجود الفعل مرۃ تم الشرط وانحلت الیمین فلا یتحقق الحنث بعدہ۔ (الفتاویٰ الہندیۃ ۱؍۴۱۵)

সারমর্মঃ শর্তের কিছু বাক্য আছে,যখন শর্ত পাওয়া যাবে,কসম ভেঙ্গে যাবে এবং শেষ হয়ে যাবে। সেই শর্ত অনুপাতে হুকুম ফিরে আসবেনা।

কেননা এটি বারংবার কে চায়না। 

 

আরো জানুনঃ

https://ifatwa.info/26032/

 

★★প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই,

প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে সেই মেয়েটি বিবাহের আগে সেই শর্তযুক্ত কাজ (কোনো পরপুরুষ এর সাথে নাচানাচ) করলে আপনার সাথে বিবাহ হওয়া মাত্র তালাক হবে।

পরে আবার তাকে বিবাহ করে নিতে পারবেন।

আপনি মুয়াল্লাক তালাক বলার পর যেই বাক্য গুলি মনে মনে বলেছেন মর্মে প্রশ্নে উল্লেখ রয়েছে,তা হলোঃ-

কিন্তু বাক্য টা বলার পর মনে মনে ভেবেছিলাম "বিয়ের আগে নাচলে  নাকি পরে নাচলে তালাক হবে, হয়তো সারাজীবন ই" এটা মনে মনে ভেবেছি বাক্য টা বলার পর মুখে বলিনি।

 সেই সময়ের আপনার নিয়ত দেখে বুঝা যাচ্ছে আপনি নিজের নিয়ত সম্পর্কে সন্দিহান।

তাই এই সন্দেহ যুক্ত নিয়তের ধর্তব্য নেই।

এটি সারাজীবনের জন্য শর্ত হবেনা।

বিবাহের পর সে অন্য ছেলের সাথে নাচলে তালাক হবেনা।

 

(০২)

পূর্বের  জবাব সংশোধন করে নেওয়া হয়েছে।

মেয়েটি তার বাবা/ভাইয়ের সাথে নাচলে তালাক হবেনা।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী আব্দুল ওয়াহিদ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...