0 votes
30 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (51 points)
closed by
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ, শাইখ

কিছু অজ্ঞ ভাই-বোনেরা মাঝে মাঝে এই প্রশ্ন করেন যে, কুরআন হাদিস থাকতে আবার মাযহাব মানা লাগবে কেন?
অনেক সময় হাতে তেমন সময় থাকে না যে ফিকহ কি? কেন? এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা ধরে ধরে তাদের বুঝাবো।

 এক্ষেত্রে সংক্ষেপে কিভাবে তাদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়া যায়?
closed

1 Answer

0 votes
by (58,320 points)
selected by
 
Best answer
ওয়া আলাইকুম আসসালাম।
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ-
দ্বীনে ইসলাম তথা শরীয়ত হলো,কুরআন এবং হাদীসের সমষ্টির নাম।প্রতমত কুরআন এবং হাদীস আরবী। দ্বিতীয়ত আরবী বাগধারা অনেক কঠিন ও একই বাক্য বহুঅর্থের বাহক হওয়ার দরুণ কুরআন এবং হাদীসের সুস্পষ্ট ব্যখ্যা প্রয়োজন।তাছাড়া নাসিখ মানসূখ পরিচয় লাভ করাও একটা জটিল বিষয়।ইত্যাদি ইত্যাদি।সুতরাং এ সব অস্পষ্টতাকে স্পষ্টকরে যে ব্যখ্যা প্রদান করা হয়,মূলত সেটার নামই হল মাযহাব।যেহেতু অস্পষ্টতাকে দূর করে স্পষ্ট ব্যখ্যা করতে যেয়ে উলামাদের মধ্যে মতবিরোধ হয়েছে,তাই ভিন্ন ভিন্ন মাযহাবের সৃষ্টি হয়েছে।

মাযহাব প্রশ্নে সংক্ষেপে এতটুকুই আপাতত বলতে পারেন।
মাযহাব ও তাকলীদ সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন- 1936


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...