0 votes
49 views
in পরিবার,বিবাহ,তালাক (Family Life,Marriage & Divorce) by (2 points)

পাত্র পক্ষ পাত্রী কে ১ লক্ষ নগদ মোহরানা দিবে আর কাবিন নামায়  ১ টাকা বাকী রাখবে না। আর পাত্রী পক্ষের আভিবক সামাজিক ভাবে  এত কম টাকায় তারা মেনে নিতে পারবে না। তাই তারা পাত্র পক্ষকে বলে কাবিন নামায় ৩ লক্ষ টাকা উল্লেখ করতে। পাত্র ১ লক্ষ নগদ দিবে আর পাত্রী ২ লক্ষ টাকা বিয়ের আগে দাবি ছেড়ে দিয়েছে। তাই পাত্র এখন বিয়েতে কাবিন নামায়  ৩ লক্ষ টাকা উসুল দেখাতে পারবে। এর মধ্যে পাত্র ১ লক্ষ টাকা নগদ আর পাত্রী আগ্রিম ২ লক্ষ টাকার দাবি ছেড়ে দিয়েছি।

এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে, এভাবে পাত্রিদের সমাজে সম্মান রক্ষার জন্য পাত্র পক্ষ ৩ লক্ষ টাকা কাবিন নামায় উসুল দেখাতে পারবে কিনা? 
 

1 Answer

0 votes
by (283,200 points)

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
মহর সম্পূর্ণ স্ত্রীর অধিকার।সে চাইলে সম্পূর্ণ মহরকে মাফ করে দিতে পারে,আবার চাইলে সে সম্পূর্ণ উসূলও করতে পারবে।সে চাইলে কিছু নগদ রাখতে পারবে, এবং কিছু বাকী।
https://www.ifatwa.info/422 নং ফাতাওয়ায় আমরা বলেছি যে,
ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়াতে বর্ণিত রয়েছে,
لَا خِلَافَ لِأَحَدٍ أَنَّ تَأْجِيلَ الْمَهْرِ إلَى غَايَةٍ مَعْلُومَةٍ نَحْوَ شَهْرٍ أَوْ سَنَةٍ صَحِيحٌ وَإِنْ كَانَ لَا إلَى غَايَةٍ مَعْلُومَةٍ فَقَدْ اخْتَلَفَ الْمَشَايِخُ فِيهِ قَالَ بَعْضُهُمْ يَصِحُّ وَهُوَ الصَّحِيحُ وَهَذَا؛ لِأَنَّ الْغَايَةَ مَعْلُومَةٌ فِي نَفْسِهَا وَهُوَ الطَّلَاقُ أَوْ الْمَوْتُ أَلَا يَرَى أَنَّ تَأْجِيلَ الْبَعْضِ صَحِيحٌ، وَإِنْ لَمْ يَنُصَّا عَلَى غَايَةٍ مَعْلُومَةٍ، كَذَا فِي الْمُحِيطِ.
এ বিষয়ে কারো কোনো মতবেদ নেই যে,নির্দিষ্ট সময়ে পরিশোধযোগ্য সম্পূর্ণ মহরকে বাকী রাখা জায়েয। যেমনঃ- এক মাস বা এক বৎসর। কিন্তু যদি নির্দিষ্ট দিন-তারিখ উল্লেখ না থাকে, তাহলে এ সম্পর্কে উলামায়ে কেরামদের মতবিরোধ রয়েছে,কিছুসংখ্যক উলামায়ে কেরাম জায়েয বলে থাকেন। এটাই বিশুদ্ধ মত। কেননা বাস্তবে একটি দিন-তারিখ অবশ্যই নির্দিষ্ট রয়েছে। আর ইহা হল,তালাক বা মৃত্যু। কেননা দিন-তারিখ উল্লেখ ব্যতীত মহরের কিছু অংশ বাকী রাখা জায়েয[মুহিত] (তাই সম্পূর্ণ মহরকেও বাকী রাখা জায়েয) (ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়া-১/৩১৮)

সুপ্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন!
সামাজিকতা রক্ষার স্বার্থে আংশিক মহরকে অগ্রিম মাফ করে দিয়ে আংশিক মহরকে রাখা যাবে।এতে কোনো বিধিনিষেধ নাই।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...