0 votes
61 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (2 points)
আসসালামু আলাইকুম শাইখ।
আমার দুটি প্রশ্ন:
১) আমরা জানি আল্লাহ্ আরশের উর্ধ্বে আছেন। এখন যারা বিশ্বাস করে "আল্লাহ্ সশরীরে সর্বত্র বিরাজমান" বিশ্বাস করে, তাদের এই আকীদকে কুফরী আকিদা বা জাহমিয়াদের আকীদ বলা যাবে?
আরো স্পষ্ট করি শাইখ, ব্যাক্তি ধরে তাকফির করার কথা বলিনি, শুধু তাদের ওই স্পেসিফিক আকীদকে কুফরী আকিদা বা জাহমিয়াদের আকীদ বলা যাবে কিনা!
২) আরশ সৃষ্টির পূর্বে আল্লাহ্ কোথায় ছিলেন? এ ব্যাপারে কোরআন সুন্নাহ্ থেকে প্রমাণ পাওয়া যায়? আর এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা কি জায়েজ না বিদআত?
জাযাকাল্লাহু খাইরান।

1 Answer

0 votes
by (254,600 points)


ওয়া আলাইকুম আসসালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
https://www.ifatwa.info/3161 নং ফাতাওয়ায় আমরা বলেছি যে,
যেভাবে কোনো পৃথিবীর কোনো বস্তুকে বিদ্যমান ধরে নেওয়া হয়,তথা শরীরের উপস্থিতির সাথে কোনো কিছুর উপস্থিতিকে গণ্য করা হয়ে থাকে,সে হিসেবে আল্লাহ তা'আলাকে সর্বত্র বিরাজমান মানা ও বিশ্বাস রাখা কখনো কখনো উচিৎ হবে না, জায়েয হবে না। তবে যদি 'আল্লাহ সর্বত্র বিরাজমান' এ কথা অর্থ হয় যে,আল্লাহ বেষ্টনকারী, তথা আল্লাহ ইলম ও কদরত হিসেবে সর্বত্র বিরাজমান তাহলে এমন আকিদা বিশ্বাস রাখা নিন্দনীয় হবে না।
কেননা আল্লাহ তা'আলা বলেন,
هُوَ الَّذِي خَلَقَ السَّمَاوَاتِ وَالْأَرْضَ فِي سِتَّةِ أَيَّامٍ ثُمَّ اسْتَوَى عَلَى الْعَرْشِ يَعْلَمُ مَا يَلِجُ فِي الْأَرْضِ وَمَا يَخْرُجُ مِنْهَا وَمَا يَنزِلُ مِنَ السَّمَاء وَمَا يَعْرُجُ فِيهَا وَهُوَ مَعَكُمْ أَيْنَ مَا كُنتُمْ وَاللَّهُ بِمَا تَعْمَلُونَ بَصِيرٌ
তিনি নভোমন্ডল ও ভূ-মন্ডল সৃষ্টি করেছেন ছয়দিনে, অতঃপর আরশের উপর সমাসীন হয়েছেন। তিনি জানেন যা ভূমিতে প্রবেশ করে ও যা ভূমি থেকে নির্গত হয় এবং যা আকাশ থেকে বর্ষিত হয় ও যা আকাশে উত্থিত হয়। তিনি তোমাদের সাথে আছেন তোমরা যেখানেই থাক। তোমরা যা কর, আল্লাহ তা দেখেন।(সূরা হাদীদ-৪) বিস্তারিত জানুন-
https://www.ifatwa.info/2719

(১)
জ্বী, যারা বলে আল্লাহ স্বশরীরে সর্বত্র বিরাজমান,তাদের এই আকিদা কুফরি আকিদা।

(২) এরকম প্রশ্ন করা বিদ'আত।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...