0 votes
16 views
in কুরবানী (Slaughtering) by (2 points)
closed by
আসসালামু আ'লাইকুম। আমার বড় ভাইয়ের বিয়ে উপলক্ষে মোটামুটি চার লাখ টাকার মত লোন নিতে হয়েছে যা প্রতি মাসে বেতন থেকে কেটে নেয়া হয়। এই মূহুর্তেও তিন লাখ টাকা লোন আছে। এই অবস্থায় কুরবানীর ওয়াজিব হবার শর্ত কিভাবে হিসাব করবো?
closed

1 Answer

0 votes
by (41,600 points)
selected by
 
Best answer
বিসমিহি তা'আলা
জবাবঃ-
জরুরতে আসলী তথা জীবন পরিচালনার সাধারণ উপকরণ বা নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিষের অতিরিক্ত জিনিষ যদি ঘরে থাকে,যা বিক্রি করে ঋণ পরিশোধ করার পরও ৫২.৫ ভড়ি রুপা সমপরিমাণ সম্পদ হাতে থাকবে, তাহলে কুরবানি ওয়াজিব হবে।নতুবা কুরবানি ওয়াজিব হবে না।তবে কুরবানি করা ভালো(কিতাবুল-ফাতাওয়া-৪/১৩৪)


সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
যদি আপনার প্রয়োজন অতিরিক্ত কোনো জিনিষ থাকে,যা এই মুহুর্তে বিক্রি করে ঋণ পরিশোধ করার পরও এ পরিমাণ টাকা আপনার নিকট বাকী থাকবে,যার কারণে আপনার উপর কুরবানি ওয়াজিব হয়ে যায়।যেমন ৫২.৫ভড়ি রূপা সমপরিমাণ টাকা যদি আপনার নিকট অবশিষ্ট থাকে,তাহলে আপনার ভাইয়ের উপর কুরবানি ওয়াজিব হবে।নতুবা কুরবানি ওয়াজিব হবে না।
কুরবানি ব্যক্তির উপর ওয়াজিব হয়,ফ্যামিলির উপর ওয়াজিব হয় না।সুতরাং আপনার যদি নেসাব পরামাণ টাকা থাকে(ক্রমবর্ধমান হোক বা না হোক) আপনার উপর কুরবানি ওয়াজিব হবে।
আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ, IOM.


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...