0 votes
18 views
ago in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (15 points)
closed ago by

https://ifatwa.info/16835/ এখানে আপনারা বলেছেন ক্লিক না করলে তা থেকে ইনকাম হয় না ইউটিউবের। ইউটিউব ইনকাম করে এডসেন্স দিয়ে। আমি wikipedia তে দেখলাম এডসেন্স এর "প্রতি ক্লিক এ পেমেন্ট" এবং "প্রতি এক হাজার দেখাতে পেমেন্ট" এ দুইটি অপশন আছে। তার প্রমান সব নিচে দিলাম যা https://en.m.wikipedia.org/wiki/Google_AdSense থেকে নিয়েছিলাম।
এখন বলেন, যেহুতু তারা বিজ্ঞাপন ১ হাজার ভিউ হলেই অর্থ পেয়ে যাচ্ছে তাই ইউটিউব কে চালানোতে বৈধতা কোন ভাবে হতে পারে কি?

closed

1 Answer

0 votes
ago by (124,480 points)
selected ago by
 
Best answer
জবাব
بسم الله الرحمن الرحيم 


ইউটিউব থেকে দেখা হোক বা অন্য কোনক ভাবে দেখা হোক,   ভিডিও দেখা নিয়ে উলামায়ে কেরামদের মাঝে মতবিরোধ রয়েছে। 

কিছু উলামায়ে কেরামগন বলেনঃ          
তাসবীর বা ফটো নাজায়েজ ,তাই ভিডিও দেখাও নাজায়েজ।   

হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে উমর(রা.)থেকে বর্ণিত,তিনি বলেন,
عَنْ نَافِعٍ، أَنَّ عَبْدَ اللَّهِ بْنَ عُمَرَ، رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا أَخْبَرَهُ: أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: " إِنَّ الَّذِينَ يَصْنَعُونَ هَذِهِ الصُّوَرَ يُعَذَّبُونَ يَوْمَ القِيَامَةِ، يُقَالُ لَهُمْ: أَحْيُوا مَا خَلَقْتُمْ "

রাসূলুল্লাহ ﷺ ইরশাদ করেছেন,যারা ফটো বানায়, কিয়ামতের দিন তাদের শাস্তি দেয়া হবে এবং তাদের উদ্দেশ্যে বলা হবে,যা তোমরা বানিয়েছ তাতে জীবন দাও।[সহীহ বুখারী-৫৯৫১]
বিস্তারিত জানুন-২২৫৩

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!

মু'মিন একটি মুহুর্তও অযথা কাটাবে না।বরং সর্বদাই আল্লাহর ইবাদতে লিপ্ত থাকবে।নামায পড়বে,কুরআন তিলাওয়াত করবে,নয়তো যিকির করবে।যদি ইবাদত করতে করতে মন ক্লান্ত হয়ে যায়,তখন মনকে উৎফুল্ল করতে বৈধ বিনোধনের ব্যবস্থা শরীয়তে রয়েছে।.
,
আরো জানুনঃ https://ifatwa.info/7156/
.
★তবে অন্যান্য  উলামায়ে কেরামগন বলেছেন যেঃ    
যে সকল দৃশ্য বাস্তবে দেখা নাজায়েয, সেগুলো ভিডিওতে দেখা নাজায়েয। আর যে সকল দৃশ্য বাস্তবে দেখা জায়েয, সেগুলো ভিডিওতে দেখা জায়েয।

আরো জানুনঃ 

★যেহেতু ইউটিউবের মাধ্যমে দ্বীনের কিছু ফয়দা হচ্ছে, তাই কিছু সংখ্যক উলামায়ে কেরাম ইউটিউবের অনুমোদন দিয়েছেন। 
হ্যা অবশ্যই ইউটিউব থেকে দূরে থাকা উত্তম হবে।
,
★সেক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনে ক্লিক না করলেও যদি তারা অর্থ পেয়ে যায়,সেক্ষেত্রে এ সহযোগিতার গুনাহ হবে।
এর জন্য তওবা ইস্তেগফার চালিয়ে যেতে হবে।  

আরো জানুনঃ 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...