0 votes
10 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (33 points)
আসসালামু আলাইকুম,
১. কোন ব্যক্তি কাজ না করে উপার্জন এর ভাবনা করে, পড়াশোনা না করে শিক্ষিত হতে চায়, চিকিৎসা না নিয়ে সুস্থ হতে চায়। এক্ষেত্রে সে বলে আল্লাহই সব করবে?

২. আবার কোন ব্যক্তি পরিশ্রম করে উপার্জন এর আশা রাখে, অনেক পড়াশোনা করে শিক্ষিত হতে চায়, অসুস্থ হলে চিকিৎসা নেয়। এক্ষেত্রে সে ধারণা করে আমার চেষ্টা আমি করলাম সফলতা দিলে আল্লাহ দিবেন নাহলে দিবেন না।
১ও ২ এর মধ্যে কোনটা তাওয়াক্কুল? আর ১ নং কি আল্লাহ কেই পরীক্ষা করা বুঝায়? ২ নং ধারণাই কি উত্তম?

1 Answer

0 votes
by (170,760 points)
edited by

ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ-

https://www.ifatwa.info/16183 নং ফাতাওয়ায় আমরা বলেছি যে,

আল্লাহ তা’আলা বলেন,

لَهُ مُعَقِّبَاتٌ مِّن بَيْنِ يَدَيْهِ وَمِنْ خَلْفِهِ يَحْفَظُونَهُ مِنْ أَمْرِ اللَّهِ ۗ إِنَّ اللَّهَ لَا يُغَيِّرُ مَا بِقَوْمٍ حَتَّىٰ يُغَيِّرُوا مَا بِأَنفُسِهِمْ ۗ وَإِذَا أَرَادَ اللَّهُ بِقَوْمٍ سُوءًا فَلَا مَرَدَّ لَهُ ۚ وَمَا لَهُم مِّن دُونِهِ مِن وَالٍ

তাঁর পক্ষ থেকে অনুসরণকারী রয়েছে তাদের অগ্রে এবং পশ্চাতে, আল্লাহর নির্দেশে তারা ওদের হেফাযত করে। আল্লাহ কোন জাতির অবস্থা পরিবর্তন করেন না, যে পর্যন্ত না তারা তাদের নিজেদের অবস্থা পরিবর্তন করে। আল্লাহ যখন কোন জাতির উপর বিপদ চান, তখন তা রদ হওয়ার নয় এবং তিনি ব্যতীত তাদের কোন সাহায্যকারী নেই। (সূরা রা’দ-১১)


আনাস ইবনু মালিক (রাঃ) হতে বর্ণিত, 

قَالَ: سَمِعْتُ أَنَسَ بْنَ مَالِكٍ، يَقُولُ: قَالَ رَجُلٌ: يَا رَسُولَ اللَّهِ أَعْقِلُهَا وَأَتَوَكَّلُ، أَوْ أُطْلِقُهَا وَأَتَوَكَّلُ؟ قَالَ: «اعْقِلْهَا وَتَوَكَّلْ»

«سنن الترمذي ت شاكر» (4/ 668)

তিনি বলেন, কোন একজন লোক বললো, হে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম! আমি কি সেটা (উট) বেঁধে রেখে আল্লাহ তা'আলার উপর ভরসা করবো, না বাধন খুলে রেখে আল্লাহ্ তা'আলার উপর ভরসা করবো? তিনি বললেনঃ তুমি সেটা বেঁধে রেখে (আল্লাহ্ তা'আলা উপর) ভরসা করবে। ) ( সুনানে তিরমিযি-২৫১৭) (শেষ)


সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!

”কোন ব্যক্তি পরিশ্রম করে উপার্জন এর আশা রাখে, অনেক পড়াশোনা করে শিক্ষিত হতে চায়, অসুস্থ হলে চিকিৎসা নেয়। এক্ষেত্রে সে ধারণা করে আমার চেষ্টা আমি করলাম সফলতা দিলে আল্লাহ দিবেন নাহলে দিবেন না।”

এটাই সঠিক ও সাধারণ মুসলমানের উপযোগী তাওয়াকুল । হ্যা যারা কামিল ও এমন পাক্কা ঈমানদার যাদের নিশ্চিত ধারণা ও বিশ্বাস থাকে যে অবশ্যই আল্লাহ দিবেন, এবং কখনো আল্লাহ না দিলে তারা নাশুকরি করবে না, বরং তারা রেজা বিল কা’যা সব সময় থাকে, তাদের জন্য প্রথমোক্ত তাওয়াকুলের অনুমোদন রয়েছে। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (170,760 points)
সংযোজন ও সংশোধন করা হয়েছে।

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...