0 votes
9 views
in পবিত্রতা (Purity) by (4 points)
আমার নেফাস শেষ হওয়র ৪-৫ দিন পরে আবার ব্লিডিং শুরু হয়েছিল।  কিন্তু এখন আমি হায়েজ নিয়ে সমস্যাতে আছি।   গত তিন মাস যাবত আমার অনিয়মিত ভাবে ব্লিডিং হচ্ছে। ৪-৫ দিন ব্লিডিং হয়, তারপর ৮-১০ ব্লিডিং বন্ধ থাকে এরপর আবার ব্লিডিং হয়। যেমন, আমার হায়েজ শেষ হয় গত মাসের ২৪ তারিখ এবং আজ ৩ তারিখ আমার আবার হায়েজ হয়েছে অর্থাৎ ব্লিডিং শুরু হয়েছে।  এখন আমি কি ব্লিডিং চলা কালিন সময়েও নামজ পড়ব? উত্তরটি দিলে ভীষণ  উপকৃত হব। আল্লাহ আপনাদের উত্তম প্রতিদান দিক।

1 Answer

0 votes
by (170,760 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
https://www.ifatwa.info/16627 নং প্রশ্নে আমরা বলেছিলাম যে, 
সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন! 
সর্বোচ্ছ দশদিন পর্যন্ত হায়েয গণ্য হবে। আপনার নেফাস শেষ হওয়ার পর কতদিন পর ব্লিডিং শুরু হয়েছে? সেটা আমাদেরকে কমেন্টে জানাবেন? তখন উত্তর লিখতে আমাদের জন্য সহজ হবে ।
আপনি কমেন্টে বললেই ভালো হত। যাইহোক, 
ٌফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়াতে বর্ণিত রয়েছে,
أَقَلُّ النِّفَاسِ مَا يُوجَدُ وَلَوْ سَاعَةً وَعَلَيْهِ الْفَتْوَى وَأَكْثَرُهُ أَرْبَعُونَ. كَذَا فِي السِّرَاجِيَّةِ.وَإِنْ زَادَ الدَّمُ عَلَى الْأَرْبَعِينَ فَالْأَرْبَعُونَ فِي الْمُبْتَدَأَةِ وَالْمَعْرُوفَةُ فِي الْمُعْتَادَةِ نِفَاسٌ هَكَذَا فِي الْمُحِيطِ. الطُّهْرُ الْمُتَخَلِّلُ فِي الْأَرْبَعِينَ بَيْنَ الدَّمَيْنِ نِفَاسٌ عِنْدَ أَبِي حَنِيفَةَ - رَحِمَهُ اللَّهُ تَعَالَى - وَإِنْ كَانَ خَمْسَةَ عَشَرَ يَوْمًا فَصَاعِدًا وَعَلَيْهِ الْفَتْوَى.ثُمَّ الْعَادَةُ فِي النِّفَاسِ تَنْتَقِلُ بِرُؤْيَةِ الْمُخَالِفِ مَرَّةً عِنْدَ أَبِي يُوسُفَ. هَكَذَا فِي الْخُلَاصَةِ. الفتاوى الهندية» (1/ 37)
মর্মার্থ--নেফাসের সর্বনিম্ন সময় এক মুহুর্তও হতে পারে। আর সর্বোচ্ছ ৪০ দিন পর্যন্ত হতে পারে। 


لَوْ رَأَتْ الدَّمَ بَعْدَ أَكْثَرِ الْحَيْضِ وَالنِّفَاسِ فِي أَقَلِّ مُدَّةِ الطُّهْرِ فَمَا رَأَتْ بَعْدَالْأَكْثَرِ إنْ كَانَتْ مُبْتَدَأَةً وَبَعْدَ الْعَادَةِ إنْ كَانَتْ مُعْتَادَةً اسْتِحَاضَةٌ وَكَذَا مَا نَقَصَ عَنْ أَقَلِّ الْحَيْضِ وَكَذَا مَا رَأَتْهُ الْكَبِيرَةُ جِدًّا وَالصَّغِيرَةُ جِدًّا. هَكَذَا فِي الْمُحِيطِ. وَكَذَا مَا تَرَاهُ الْحَامِلُ ابْتِدَاءً أَوْ حَالَ وِلَادَتِهَا قَبْلَ خُرُوجِ الْوَلَدِ. كَذَا فِي الْهِدَايَةِ. الفتاوى الهندية» (1/ 38)
মর্মার্থ- হায়েয নেফাসের মুদ্দত তথা হায়েযের ১০ দিন পর এবং নেফাসের ৪০ দিন পর সর্বনিম্ন ১৫ দিনের ভিতর যদি আবার রক্ত দেখা যায়, তাহলে ঐ রক্তকে ইস্তেহাযার রক্ত বলে গণ্য করা হবে। 

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন! 
যেহেতু নেফাসের ৪০ দিন পর আবার ১৫ দিন পবিত্র অবস্থায় অতিক্রম হয়নি, তাই এটা আপনার ইস্তেহাযা। সুতরাং আপনার বর্ণিত পরিস্থিতিতে এখন আপনি নামায রোযা করবেন। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...