0 votes
74 views
in পবিত্রতা (Purity) by (3 points)
আসসালামুআলাইকুম, আমার কর্মস্থলের ডরমিটরি তে একটি ওয়াশিং মেশিন আছে যেটিতে কাপড় ধোয়ার পর পানি নিংড়িয়ে প্রায় ৬০-৭০ ভাগ শুকিয়ে দেয় অর্থাৎ একটি ফোঁটাও পানি ঝরে পড়েনা। এটিতে কাপড় প্রায় ১:১৫ ঘণ্টা থেকে ১:৩০ ঘণ্টা যাবত কাপড় ধৌত করে। যেহেতু ২০-২৫ জন এই ওয়াশিং মেশিন ব্যবহার করে তাই তিন বার ধোঁয়াও কিছুটা অসম্ভব। সেক্ষেত্রে যেটি করা যায় তা হলো ওয়াশিং মেশিনে কাপড় ধোয়ার আগে বা পরে সেই কাপড়কে আরো দুবার  নিজেই বালতিতে ধৌত করা। এক্ষেত্রে একটি বিষয় হলো নিজ হাতে কাপড় নিংরিয়ে রেখে দিলে তা থেকে ফোঁটা ফোঁটা পানি চুয়ে পড়তেই থাকে। আর অফিসের কয়েকটি ইউনিফর্ম আছে যেগুলোর কাপড় বেশ মোটা যার কারণে সেগুলো হাত দিয়ে সহজে নিংড়ানো যায়না।

আমার প্রশ্ন হল যদি কাপড়ে তরল নাপাক যেমন: প্রস্রাব, মজি ইত্যাদি লাগে এবং সেটিকে ওয়াশিং মেশিনে একবার ভালো করে ধুয়ে পানি নিংড়ে ফেলা হয় তাহলে সেটি পাক হবে কিনা? নাকি সেটিকে তিনবারই ধুতে হবে যদিও তা থেকে পুরোপুরি পানি নিংড়ে নাও যায়?

جزاك الله خيرا

1 Answer

0 votes
by (145,240 points)

ওয়া আলাইকুম আসসালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহ। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
পবিত্র করার পদ্ধতিঃ
পবিত্রকরণ এর দিক দিয়ে নাজাসত আবার দুই প্রকারঃ
যথা-
(ক) দৃশ্যমান নাজাসত
(খ)অদৃশ্যমান নাজাসত

(ক)
কাপড়ে প্রথম প্রকার তথা দৃশ্যমান নাজাসত লাগলে সেই নাজাসতকে  দূর করে দিলেই কাপড় পবিত্র হয়ে যাবে।এক্ষেত্রে নাজাসত দূর করতে ধৌত করার কোনো পরিমাণ নেই।যতবার ধৌত করলে নাজাসত দূর হবে ততবারই ধৌত করতে হবে।যদি একবার ধৌত করলে তা চলে যায় তবে একবারই ধৌত করতে হবে।

(খ)
কাপড়ে দ্বিতীয় প্রকার তথা অদৃশ্যমান নাজাসত লাগলে, কাপড়কে তিনবার ধৌত করে তিনবারই নিংড়াতে হতে।এবং শেষ বার একটু শক্তভাবে নিংড়ানো হবে যাতে করে পরবর্তীতে আর কোনো পানি বাহির না হয়।(ফাতাওয়ায়ে হাক্কানিয়া;২/৫৭৪
জা'মেউল ফাতাওয়া;৫/১৬৭)

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন-https://www.ifatwa.info/118

নাপাক কাপড় ওয়াশিং মেশিনে ধুয়েও পাক করা যায়। মূলত কাপড় পাক হওয়া না হওয়ার বিষয়টি নির্ভর করে ওয়াশ করার পদ্ধতির উপর। তিনবার যথানিয়মে নাপাক কাপড় মেশিনে ধৌত করলে তা পবিত্র হয়ে যাবে। এর জন্য প্রত্যেকবার নতুন পানি নিতে হবে এবং প্রতিবার ধোয়ার পর তা ফেলে দিতে হবে। 

এর সহজ পদ্ধতি এই যে, কাপড় মেশিনে রেখে পরিমাণ মতো পানি ও সাবান দিয়ে মেশিন চালু করবে। কাপড় ধোয়া হয়ে গেলে সমস্ত পানি ছেড়ে দিবে। অতঃপর আবার নতুন পানি দিয়ে মেশিন চালু করবে এবং ওয়াশ হওয়ার পর পানি ছেড়ে দিবে। এভাবে পরপর তিনবার নতুন পানি দিয়ে কাপড় ধৌত করতে হবে এবং প্রতিবার পানি ছেড়ে দিতে হবে। যখন মনে হবে যে, কাপড়ের ভেতরের নাপাকী বের হয়ে গেছে তখন কাপড় পাক হয়েছে বলে ধরে নিবে। 
[রদ্দুল মুহতার ১/৩৩০; আপকে মাসায়েল আওর উনকা হল ৩/১৭১; কিতাবুন নাওয়াযিল ৩/৩৯; ফাতাওয়া হাক্কানিয়া ২/৫৮২]

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন-করুন- https://www.ifatwa.info/6638


সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
যদি কাপড়ে তরল নাপাক যেমন: প্রস্রাব, মজি ইত্যাদি লাগে এবং সেটিকে ওয়াশিং মেশিনে একবার ভালো করে ধুয়ে পানি নিংড়ে ফেলা হয় তাহলে সেটি পাক হবে না।বরং তিনবার করে ধৌত করতে হবে।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...