আইফতোয়াতে ওয়াসওয়াসা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে না। ওয়াসওয়াসায় আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও করণীয় সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

0 votes
33 views
in কুরবানী (Slaughtering) by (11 points)
আমার ১.৫ ভরি সোনা আর ৪ ভরি রুপা আছে,, রুপার জন্য যাকাত ফরজ হয়েছে, আলহামদুলিল্লাহ যাকাত দিয়েছি।কিন্তু কুরবানি দেওয়ার সামর্থ নেই তাই যদি আমি রুপাটা এমন কারো কাছে বিক্রি করি যার কাছ থেকে পরে আবার কিনে নিতে পারবো ( যখন কুরবানী দেওয়ার সামর্থ হবে)।আর রুপা বিক্রির টাকাটা সাথে সাথে খরচ করে ফেলবো।বুঝতে পারছি না এমন করা ঠিক হবে কিনা।

নামাজ যেমন কাজা পড়া যায়,,ঠিক তেমনি কুরবানী কি পরের বছর দেওয়া যাবে না??
আমার সোনার গহনা আমার কাছে নেই,থাকলে হয়ত বিক্রি করে কুরবানী দিতাম।

1 Answer

0 votes
by (724,520 points)
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
সোনা, রূপা,টাকা,এবং ব্যবসায়িক মালে যাকাত আসে, যদি তা নেসাব পরিমাণ হয়।
স্বর্ণের নেসাবঃ৭.৫ ভড়ি।
রূপার নেসাবঃ৫২.৫ ভড়ি।
এখানে একটি বিষয় লক্ষণীয় যে, কারো কাছে শুধুমাত্র স্বর্ণ বা শুধুমাত্র রূপা থাকলে সেটার নেসাব পূর্ণ হলেই যাকাত আসবে, অন্যথায় যাকাত আসবে না। তবে হ্যাঁ, যদি কারো নিকট স্বর্ণ এবং রূপা অথবা টাকা এভাবে থাকে যে, কোনোটিরই নেসাব পূর্ণ হয়নি, তাহলে এক্ষেত্রে রূপার নেসাবকেই মানদন্ড ধরে নেয়া হবে। এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- 121

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
প্রশ্নের বিবরণমতে আপনার উপর যাকাত ফরয হওয়ার সাথে সাথে কুরবানিও ফরয হবে। আপনি অল্প টাকায় এক বৎসর বয়সের একটি বকরি কুরবানি দিয়ে দিবেন। হ্যা, আপনি যদি রুপাকে বিক্রি করে দেন, তাহলে কুরবানি ওয়াজিব হবে না। এমন কারো কাছে বিক্রি করা যার কাছ থেকে আবার আপনা ক্রয় করে নিবেন, এমন হিলা বাহানা না করাই উচিৎ। তারপরও কেউ করে নিলে তার উপর যাকাত কুরবানি আপাতত ওয়াজিব হবে না যদি তার নিকট নগদ টাকা না থাকে।

কোনো কারণে কুরবানি করতে না পারলে, একটি বকরির মূল্যকে সদকাহ করে দিতে হবে। গহেনা বর্তমানে আপনার নিকট থাকুক বা না থাকুক, আপনাকে যাকাত কুরবানি দিতে হবে।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন। এই প্রশ্ন ও উত্তরগুলো আমাদের ফেসবুকেও শেয়ার করা হবে। তাই প্রশ্ন করার সময় সুন্দর ও সাবলীল ভাষা ব্যবহার করুন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি স্থানীয় মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

Related questions

...