0 votes
98 views
in ব্যবসা (Business) by
আসসালামুআলাইকুম।    আমি কানিজ ফাতিমা । আমার একটি ইউটিউব চ্যানেল আছে।  আমি ইউটিউব চ্যানেল থেকে আয় করতে চাই । আমার প্রশ্নগুলো  হচ্ছে,  
১. আমি যদি আমার কন্ঠ কোন সফটওয়্যার দিয়ে সম্পূর্ণ ছেলেদের মতো করে দিই তাহলে কি কোন গোনাহ হবে?

২. কার্টুন দেখা বা বানানো কি জায়েজ আছে?
৩. ভিডিও তে যে ব্যাকগ্রাউন্ড মিইজিক দেয় তা কি দেয়া বা শোনা জায়েজ?
৪. কোন প্রয়োজনেে যদি আমি  গায়রে মাহরাম কারো সাথে কথা বলি তাহলে কি গোনাহ হবে ?

৫. ছবি এবং ভিডিও সংক্রান্ত সকল মাসায়েল যদি জানান খুবই উপকৃত।
আমি অনেকদিন যাবত মাসালা গুলো জানতে চাচ্ছি তাই দয়া করে একটু তাড়াতাড়ি জানাবেন।

1 Answer

0 votes
by (32.1k points)

বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-

(১)

ধোকা দেয়ার জন্য নয় বরং পুরুষের অন্তরকে নারীর চিন্তা থেকে বিরত রাখার খেয়ালে যদি হয় তাহলে করতে পারেন।

তবে ইহা দ্বারা কখনো ধোকাবজীর নিয়ত করা জায়েয হবে না।

(২)

দুয়েকজন জায়েযের পক্ষে থাকলেও অধিকাংশ ফুকাহায়ে কিরাম নাজায়েয বলেছেন।

(৩)

মিউজিক সর্বাবস্থায় হারাম ও নাজায়েয।

অন্যকিছু দিতে পারেন।যেমন সাগর বা বহমান পানির কলতান, পাখির কিচিরমিচির, ইত্যাদি।

(৪)

বিশেষ ও বাস্তব প্রয়োজন হলে আওয়াজকে রুক্ষ রেখে পর্দার আড়াল থেকে গায়রে মাহরাম পুরুষের সাথে প্রয়োজন পর্যন্ত আলাপ করতে পারেন।যদি কোনো মাহরাম পুরুষ থাকেন তবে তার মাধ্যমেই আলাপ করাতে হবে।

(৫) আপনি যেটা জানতে চাইবেন,সেটা আমাদের এখানে প্রশ্ন আকারে পাঠিয়ে দিবেন। জাযাকিল্লাহ।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

পরিচালক

ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...