0 votes
36 views
in ঈমান ও বিশ্বাস (Faith and Belief) by (12 points)
কুরআন এর প্রত্যেক সূরা, আয়াত এর মালিক একমাত্র আল্লাহ।

তাই যদি কুরআন না দেখেও রাস্তা দিয়ে হাটার সময় কিংবা অন্যান্য সময় যদি সূরা পাঠ করি, সেটা কি আল্লাহর ইবাদাত হবে?

কেননা, ইবাদাত হলে আমার সেই কাজ হবে একমাত্র আল্লাহর জন্য অর্থাৎ ওই কাজের মালিক আল্লাহ একাই হবেন।

তাই জানতে চাচ্ছিলাম তা ইবাদাত হবে কিনা।

আর ওই সূরা পাঠ করার সময় যে বিসমিল্লাহ পড়বো সেটার মালিক ও তো একমাত্র আল্লাহই হবেন কেননা সব বিসমিল্লাহ ই তো এক হোক সেটা কুরআন দেখে পড়ুক কিংবা না দেখে।অর্থাৎ বিসমিল্লাহ আলাদা হওয়া বা আলাদা করা সম্ভব না,তাই না?

আর নামাযের প্রত্যেক পাঠ এর মালিক আল্লাহ একা, হোক সেটা আউযুবিল্লা, বিসমিল্লাহ কিংবা বৈঠক এ বসে থাকা এবং বসে থাকা অবস্থায় আঙুল নাড়িয়ে শয়তানকে বাড়ি দেয়া।

এই সব কিছুর মালিক আল্লাহ একা, তাই না?
শায়েখের কাছে অনুরোধ রইলো উত্তরটি প্রশ্নের ভাষার মতোই ভেঙে ভেঙে দিবেন যাতে বুঝতে সহজ হয়।

1 Answer

0 votes
by (39.3k points)
বিসমিহি তা'আলা

সমাধানঃ-

সবকিছুর মালিকই আল্লাহ তা'আলা। আমরা দুচোখ দ্বারা যা কিছু দেখি বা দেখিনা, এ সব কিছুর মালিক একমাত্র আল্লাহ তা'আলা-ই।এতে অন্য কেউ শরীক নয়।

কুরআন, আল্লাহ তা'আলার কালাম।তা দেখে পড়েন বা মুখস্থ পড়েন,সর্বাবস্থায় ইবাদত-ই হবে।আপনি এর সওয়াব পাবেন।

নামায আল্লাহর জন্য।আল্লাহর হুকুমকে বাস্তবায়ন করতে আমরা নামায পড়ি।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ, IOM.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

...