0 votes
65 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (5 points)
closed by
কি ভাবে উদ্দযাপন করতে হয়
closed

1 Answer

0 votes
by (37.6k points)
selected by
 
Best answer

বিসমিহি তা'আলা
সমাধানঃ-

বিবাহের প্রথম রাতকে বর-কনের জীবনের বিশেষ রাত হিসেবে গণ্য করা হয়।সেটা সবার ক্ষেত্রেই বিশেষভাবে স্বরণীয় হয়ে থাকে।যাকে আমাদের দেশে 'বাশর-রাত' হিসেবে অভিহিত করা হয়।আরবী সাহিত্যে একে লাইলাতুল হায়াত বা লাইলাতুয-যাফাফ বলা হয়ে থাকে।

এই রাতের আলাদা কিছু মুস্তাহাব আ'মল রয়েছে,

(এবং সাধারণ সহবাসেরও কিছু মুস্তাহাব আ'মল রয়েছে) যথা-

বর বাশররাতে নববধূর কক্ষে প্রবেশ করে প্রথমে স্ত্রীর কপালের উপরের চুলে ধরে নিম্নোক্ত দু'অাটি পড়বে-

আব্দুল্লাহ ইবনু আমর রাযি থেকে বর্ণিত রয়েছে।

( ﺇِﺫَﺍ ﺗَﺰَﻭَّﺝَ ﺃَﺣَﺪُﻛُﻢُ ﺍﻣْﺮَﺃَﺓً ﺃَﻭِ ﺍﺷْﺘَﺮَﻯ ﺧَﺎﺩِﻣًﺎ، ﻓَﻠْﻴَﻘُﻞِ : ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ! ﺇِﻧِّﻲ ﺃَﺳْﺄَﻟُﻚَ ﺧَﻴْﺮَﻫَﺎ ﻭَﺧَﻴْﺮَ ﻣَﺎ ﺟَﺒَﻠْﺘَﻬَﺎ ﻋَﻠَﻴْﻪِ، ﻭَﺃَﻋُﻮﺫُ ﺑِﻚَ ﻣِﻦْ ﺷَﺮِّﻫَﺎ ﻭَﻣِﻦْ ﺷَﺮِّ ﻣَﺎ ﺟَﺒَﻠْﺘَﻬَﺎ ﻋَﻠَﻴْﻪِ، ﻭَﺇِﺫَﺍ ﺍﺷْﺘَﺮَﻯ ﺑَﻌِﻴﺮًﺍ ﻓَﻠْﻴَﺄْﺧُﺬْ ﺑِﺬِﺭْﻭَﺓِ ﺳَﻨَﺎﻣِﻪِ ﻭَﻟْﻴَﻘُﻞْ ﻣِﺜْﻞَ ﺫَﻟِﻚَ )

যখন কেউ কোনো নারীকে বিয়ে করবে বা গোলাম- বাদি ক্রয় করবে,তখন যেন সে বলে, 'আল্লাহুম্মা ইন্নি আস'আলুকা খায়রাহা ওয়া খায়রা মা জাবালতাহা আলাইহি, ওয়া আ'উযু বিকা মিন শাররিহা ওয়া শাররি মা জাবালাতাহা আলাইহি'।

এবং যখন সে কোনো উঠ বা জন্তু ক্রয় করবে,তখন যেন সে উক্ত জন্তুর গুজ ধরে এমন দু'অা বলে।

সুনানু আবি-দাউদ-২১৬০

বর উক্ত দু'অাটি বলবে, নববধূ চাইলেও এই দু'অাটি  বলতে পারবে।হ্যা উভয়ের জন্য পড়াই ভালো।(তবে বরের জন্য বিশেষভাবে পালনীয় মুস্তাহাব)

তারপর উভয় মিলে দু' রাকাত নফল নামায পড়বে।

এবং নিজেদের জন্য দু'অা করবে।

তারপর পরস্পর এক অন্যকে মিষ্টিমুখ করাবে।

অতপর যখন সহবাসের নিয়ত করবে তখন নিম্নোক্ত দু'অাটি পড়বে।

হযরত ইবনে আব্বাস রাযি থেকে বর্ণিত,

 ﻋَﻦْ ﺍﺑْﻦِ ﻋَﺒَّﺎﺱٍ ﺭَﺿِﻲَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻨْﻬُﻤَﺎ ﻗَﺎﻝَ ﻗَﺎﻝَ ﺍﻟﻨَّﺒِﻲُّ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ : ( ﻟَﻮْ ﺃَﻥَّ ﺃَﺣَﺪَﻫُﻢْ ﺇِﺫَﺍ ﺃَﺭَﺍﺩَ ﺃَﻥْ ﻳَﺄْﺗِﻲَ ﺃَﻫْﻠَﻪُ ﻗَﺎﻝَ ﺑِﺎﺳْﻢِ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺍﻟﻠَّﻬُﻢَّ ﺟَﻨِّﺒْﻨَﺎ ﺍﻟﺸَّﻴْﻄَﺎﻥَ ﻭَﺟَﻨِّﺐْ ﺍﻟﺸَّﻴْﻄَﺎﻥَ ﻣَﺎ ﺭَﺯَﻗْﺘَﻨَﺎ ، ﻓَﺈِﻧَّﻪُ ﺇِﻥْ ﻳُﻘَﺪَّﺭْ ﺑَﻴْﻨَﻬُﻤَﺎ ﻭَﻟَﺪٌ ﻓِﻲ ﺫَﻟِﻚَ ﻟَﻢْ ﻳَﻀُﺮَّﻩُ ﺷَﻴْﻄَﺎﻥٌ ﺃَﺑَﺪًﺍ ) .

যখন কেউ সহবাসের নিয়ত করবে,তখন যেন সে

নিম্নোক্ত দু'অাটি পড়ে,

'বিসমিল্লাহি আল্লাহুম্মা জাননিবনাশ-শায়ত্বানা ওয়া জাননিবিশ-শায়ত্বানা মা রাযাক্বতা না'

সহবাসের সময় এই দু'অা পড়লে শয়তান উক্ত সন্তানের কোনো ক্ষতি করতে পারবে না।

সহীহ বুখারী-৬৩৮৮

সহীহ মুসলিম-১৪৩৪

তারপর চুমা-আলিঙ্গন ইত্যাদি দ্বারা সহবাস শুরু করবে।

হযরত জাবের ইবনু আব্দুল্লাহ রাযি থেকে বর্ণিত রয়েছে।

َعَنْ جَابِرِ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ - رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا - قَال: نَهَى رَسُول اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنِ الْمُوَاقَعَةِ قَبْل الْمُلاَعَبَةِ

রাসূলুল্লাহ সাঃ চুমু-আলিঙ্গন এর পূর্বে সহবাস করতে নিষেধ করেছেন।

তারিখে বাগদাদ-১৩/২২১।

রাসূলুল্লাহ সাঃ এ হেকমতে বলেছেন যে,যাতে করে নারীরা সহবাসের পূর্বে পুরোপুরি উত্তেজিত হয়ে সহবাসের পূর্ণ স্বাদ লাভে সক্ষম হয়।

স্বামী নিজের প্রয়োজন পূর্ণ হওয়ার পর সহবাসকে পরিত্যাগ করবে না,বরং স্ত্রীর প্রয়োজনের প্রতি লক্ষ্য রাখবে।

মসনদে আবু-ইয়া'লা-৭/২০৮

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

পরিচালক

ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

...