0 votes
223 views
in Family Life,Marriage & Divorce by (47 points)
closed by
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ।

স্বামীর নেওয়া সিদ্ধান্তটি এমন হতে পারে যেমন বোনটি আমাকে যেভাবে বলেছেন সেভাবেই বলিঃ

তার মৃত শ্বশুর জীবিতাবস্থায় ২০ লক্ষ টাকা ধার-বাকি করে মারা গেছেন। শ্বশুরের মৃত্যুর পর তার আরো ছেলে থাকা সত্বেও শুধুমাত্র সেই বোনটির স্বামী একার দায়িত্বে সেটা পরিশোধ করতে চান। যেখানে তার অন্য দেবর ভাসুরদের উপরেও এই দায়িত্ব পড়ে। আবার সেই বোনটির স্বামী তার ভাইয়ের জন্যে লাখ লাখ টাকা দিয়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও খুলে দিতে চান নিজের টাকা ব্যয় করে। এসব কাজগুলা স্বামী একার কাধে নেওয়াই সে বোনটি তার সংসারের জন্যে বাড়তি খরচ বলে মনে করছেন। ফলে তার মনঃপূত হচ্ছেনা। এখন প্রশ্ন হল এব্যপারে কি সে অমত করতে পারে ? ইসলাম এব্যাপারে কি অনুমতি দেয় ? যদি দ্বিমত করার অনুমতি থাকে তবে সেই বোনের কি করনীয়?

জাযাকাল্লাহু খাইর।
closed

1 Answer

0 votes
by (16.9k points)
selected by
 
Best answer
ওয়া আলাইকুম আসসালাম।

জবাবঃ

স্বামী যদি তার নিজ সম্পত্তি থেকে এসব করতে চায় তাহলে এখানে স্ত্রী বাধা দিতে পারবে না।কেননা স্বামী তার সম্পত্তিতে সে স্বাধীন। এখানে কারো হস্তক্ষেপ শরীয়ত সমর্থন করবে না।

তাছাড়া নিজ পিতার ঋণ সে একাই নিস্পত্তি করে একা সওয়াবের অংশীদার হতে চাচ্ছে।এটাতো ভালো ও উত্তম কাজ।এছাড়া আপন ভাইদেরকে প্রতিষ্টিত করাও উত্তম এবং নেকির কাজ।

এখানে স্ত্রীর জন্য বাধা প্রদান করা উচিৎ হবে না।

আপন ভাইয়েরা অভাবী থাকলে তাদেরকে দেখভাল করা বিত্তশালী ভাইয়ের দায়িত্ব ও কর্তব্য।পর্যায়বেধে কখনো ফরযও হয়ে যায়।

স্ত্রীর ভরণপোষণ যদি স্বামী আদায় না করে, এক্ষেত্রে স্ত্রী তার ভরণপোষণ অাদায়ের অভিযোগ করতে পারবে।কেননা স্ত্রীর ভরণপোষণ দেওয়া স্বামীর উপর ওয়াজিব।

ভাইয়েরা বিত্তশালী হওয়ার পরও যদি ঐ ব্যক্তি নিজের সবকিছু ভাইদের দিয়ে দেয়,নিজের জন্য কিছুই অবশিষ্ট রাখে না,তাহলে এমতাবস্থায় স্ত্রী তার স্বামীকে কল্যাণের নিয়তে বোঝাতে পারবে।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন

পরামর্শ প্রদাণে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

400 questions

383 answers

44 comments

257 users

14 Online Users
0 Member 14 Guest
Today Visits : 3455
Yesterday Visits : 5238
Total Visits : 496040

Related questions

...