0 votes
79 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ শায়খ    
"যদি কোন ব্যক্তি কষ্ট অভাবে পতিত হয়ে তার অভাবের কথা আল্লাহর নিকট পেশ করে তাহলে অচিরেই আল্লাহ তাকে নিকটবর্তী বা  দূরবর্তী রিযিক দান করবেন । অন্য একটি বর্ণনায় এসেছে - তাকে দ্রুত মৃত্যু বা দ্রুত সচ্ছলতা দান করবেন। "

 (তিরমিযি ৪/৪৮৭, আবু দাউদ ২/৪০, আলবানী সিলসিলা সাহীহাহ, ৬/৬৭৬৷ সহীহ)

এই হাদিসটির শেষ দু লাইনের ব্যাখ্যা জানতে চাচ্ছিলাম।

1 Answer

0 votes
by (32.1k points)
বিসমিহি তা'আলা
জবাবঃ-

হাদীসের আরবী ইবারত হল এই-

হযরত ইবনে মাসউদ রাযি থেকে বর্ণিত।

 وعن ابن مسعود قال: قال رسول الله - صلى الله عليه وسلم -: " «من أصابته فاقة، فأنزلها بالناس لم تسد فاقته، ومن أنزلها بالله أوشك الله له بالغناء، إما بموت عاجل، أو غنى آجل» ". رواه أبو داود والترمذي

রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেন,যদি কেউ অভাবে পতিত হয়,অতঃপর সে মানুষের নিকট তার হাজতের কথা আলোচনা করে,তবে তার অভাব কখনো দূর হবে না।কিন্তু যদি সে আল্লাহর নিকট তার অভাবের কথা পেশ করে তাহলে অচিরেই আল্লাহ তাকে  রিযিক দান করবেন । হয়তো তার নিকটাত্মীয় ধনী কারো মৃত্যুর মাধ্যমে তাকে ওয়ারিছ বানিয়ে অথবা তাকে ধনসম্পদের মালিক বানিয়ে। "(আবু-দাউদ-১৬৪৫)

কোনো কোনো বর্ণনায় এসেছে

(بِرِزْقٍ عَاجِلٍ) بِالْعَيْنِ الْمُهْمَلَةِ (أَوْ آجِلٍ)

অচিরেই আল্লাহ তাকে নিকটবর্তী বা  দূরবর্তী রিযিক দান করবেন ।

তুহফাতুল আহওয়াযি-২৩২৬

মিরকাতুল মাফাতিহ গ্রন্থে উক্ত হাদিসের ব্যখায় লিখায় হয়েছে
(إما بموت عاجل) قيل: بموت قريب له غني، فيرثه،

" أو غنى " بكسر وقصر: أي: يسار " آجل " أي: بأن يعطيه مالا ويجعله غنيا

এর অর্থ হলঃ

আল্লাহ নিকটাত্মীয় ধনী কারো মৃত্যু দিবেন,অতঃপর সে ঐ ব্যক্তির ওয়ারিছ হবে।

অথবা আল্লাহ তাকে মাল দিবেন,এবং সে ধনী হয়ে যাবে।

মিরকাত-১৮৫২ নং হাদিসের ব্যখ্যা।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

...