0 votes
23 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (52 points)
closed by
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ, শাইখ

আমি একটা একাডেমি থেকে কোর্স কিনলাম এখন যদি উক্ত কোর্সের ভিডিও লেকচার বা স্টাডি মেটারিয়ালসগুলা আরও কম দামে কারো কাছে বিক্রি করি তবে উক্ত টাকা কি আমার জন্য হালাল হবে?

*কোর্সের লেকচার অন্য কাউকে বিক্রি করা যাবে কিনা এব্যাপারে কর্তৃপক্ষের স্পষ্ট কোন আদেশ-নিষেধ নেই। তবে জানলে এরুপ কাজে নিষেধ করার সম্ভাবনা-ই বেশি।
closed

1 Answer

0 votes
by (23,600 points)
selected by
 
Best answer
উত্তর
وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته 
بسم الله الرحمن الرحيم 

শরীয়তের বিধান হলো  যেই সকল কোম্পানীর বিক্রয় সত্ব কোম্পানীর জন্য সংরক্ষিত তা তাদের অনুমতি ছাড়া কপি করা ও  ক্রয়-বিক্রয় করা শরীয়তে জায়েজ নেই। তবে যদি বাজারে এগুলো বা এগুলোর বিকল্প না পাওয়া যায়, কিংবা ক্রয় করা দুঃসাধ্য হয়ে পড়ে, তবে বাধ্য হলে ক্রয় করলে কোন অসুবিধা নেই। 
,
সুতরাং প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে একাডেমি থেকে কোর্স কেনার পর যদি উক্ত কোর্সের ভিডিও লেকচার বা স্টাডি মেটারিয়ালসগুলা আরও কম দামে কারো কাছে বিক্রয় করে দেন,তাহলে দেখতে হবে  কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে স্পষ্ট নিষেধ আছে কিনা।
যদি নিষেধ না থাকে,আর আপনার যদি প্রবল বিশ্বাস হয় যে এই বিষয়ে জানতে পারলে কর্তৃপক্ষ কিছুই বলবেনা।
তাহলে উক্ত কোর্সের ভিডিও লেকচার অন্যের কাছে বিক্রয় করা জায়েজ হবে।
চাই তা কম দামেই হোক,বা বেশি দামেই হোক।
,
আর যদি আপনার প্রবল ধারনা হয় যে এই বিষয়ে জানতে পারলে কর্তৃপক্ষ আপনাকে নিষেধ করবে,(যেমনটি আপনি প্রশ্নে উল্লেখ করেছেন) তাহলে উক্ত কোর্সের ভিডিও লেকচার অন্যের কাছে বিক্রয় করা জায়েজ হবেনা।
সুতরাং প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে আপনার জন্য উচিত 
হলো কর্তৃপক্ষের সাথে  যোগাযোগ করে এই বিষয় সম্পর্কে পুরোপুরি ভাবে  অবগত হওয়া।
কারন এই লেকচারটি সম্পুর্নভাবে তাদের মালিকানাধীন, তাই বিক্রয় করতে হলে তাদের অনুমতি লাগবেই।     

হাদীস শরীফে এসেছে   
وَعَنْ أَبِىْ حُرَّةَ الرَّقَّاشِىِّ عَنْ عَمِّه قَالَ : قَالَ رَسُوْلُ اللّٰهِ ﷺ : «أَلَا لَا تَظْلِمُوا أَلَا لَا يَحِلُّ مَالُ امْرِئٍ إِلَّا بِطِيبِ نَفْسٍ مِنْهُ». 
আবূ হুররাহ্ আর্ রক্কাশী (রহঃ) তাঁর চাচা হতে বর্ণনা করেন। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ সাবধান! কারো ওপর জুলুম করবে না। সাবধান! কারো মাল তার মনোতুষ্টি ছাড়া কারো জন্য হালাল নয়।
(মেশকাত ২৯৪৬ আহমাদ ২০৬৯৫, শু‘আবুল ঈমান ৫১০৫, ইরওয়া ১৪৫৯, সহীহ আল জামি‘ ৭৬৬২।)
,
عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: «مَنْ غَشَّنَا فَلَيْسَ مِنَّا»

হযরত আবু হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেনঃ যে ধোঁকা দেয়, সে আমার উম্মতের অন্তর্ভূক্ত নয়। {মুসান্নাফ ইবনে আবী শাইবা, হাদীস নং-২৩১৪৭, সহীহ মুসলিম, হাদীস নং-১৬৪, সুনানে দারেমী, হাদীস নং-২৫৮৩, সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-২২২৫, সহীহ ইবনে হিব্বান, হাদীস নং-৪৯০৫}

قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: «الْمُسْلِمُونَ عَلَى شُرُوطِهِمْ

হযরত আবূ হুরায়রা রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেনঃ মুসলমানগণ তার শর্তের উপর থাকবে। {সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-৩৫৯৪, সুনানে দারা কুতনী, হাদীস নং-২৮৯০, শুয়াবুল ঈমান, হাদীস নং-৪০৩৯}


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...