0 votes
205 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by
edited
শায়খ, আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ ।
ঘরে অলস বসে থাকতে থাকতে ও অনলাইনে কিছু কিতাবী দ্বীনি পড়াশুনা করতে করতে পাশাপাশি বিরক্তির সাথে জেনারেলের পড়া কন্টিনিউ করতে করতে অন্তরটা পাথরের মত শক্ত হয়ে গেছে।
ইলম অর্জন করছি, কিন্তু আল্লাহর সাথে কোন সুন্দর সম্পর্কই নেই যেন ভিতরে ভিতরে। দুনিয়ার আরাম আয়েশে অন্তর কঠিন থেকে কঠিন হয়ে গেছে। এখন নিজের ইসলাহ কিভাবে করব?
মাস্তুরাতের সাপ্তাহিক তালিমে যাচ্ছি, মাঝেমাঝে সালাফদের কিতাব পড়লে একটু অন্তরে নূর অনুভব করছি। কিন্তু ইসলাহর জন্য একটা বড় ডোজ প্রয়োজনবোধ করছি। তার উপায় জানতে চাচ্ছি ...!!
উল্লেখ্য, ব্যক্তিগতভাবে খুব অলস ব্যক্তি আমি। একটা দীর্ঘমেয়াদি অসুস্থতায় ভুগছি আমি। এটা থেকে কিছুটা সুস্থ থাকার জন্য খুব লম্বা সময় ঘুমাই, আর অনেক খাওয়া দাওয়াও করি, ওষুধের ডোজেই বেশি খিদে লাগে। চাইলেও অলসতা কাটিয়ে ঘুুুুমের ওষুধ এর সাথে টেক্কা দিয়ে কম ঘুমাতে পারিনা, কম খেতেও পারিনা!
হয়ত এগুলোই আমার অন্তরের কাঠিন্যের কারণ। এখন কি করতে পারি আমি শায়খ! একটু পরামর্শ দিতেন যদি!

1 Answer

0 votes
by (39.3k points)
ওয়া আলাইকুম আসসালাম।

সমাধানঃ-

আলহামদুলিল্লাহ!

আল্লাহ আপনার দ্বীনী সফর কে কবুল করুক।এবং সত্যান্বেষণে সালমান ফারসি রাযি. এর দৃঢ়তা-অবিচলতা দান করুক।আমীন।

মুহতারামাহ!

পাঁচ ওয়াক্ত নামায যথাসময়েই আদায় করুন।সকাল-সন্ধ্যা  নিয়মিত তাসবিহ পাঠ করুন।বিভিন্ন তাসবীহ  রাসূলুল্লাহ সাঃ থেকে বর্ণিত রয়েছে,সে গুলো পড়ুন।

সর্বোত্তম তাসবিহ হল, "লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহ"।

নিয়মিত কুরআনে কারীম পাঠ করুন।

সর্বোপরি সত্যবাদীদের সাথী হোন।নেককার সত্যবাদী লোকের সংস্পর্শতা গ্রহণ ছাড়া দ্বীনী রাস্তায় বিচরণ অত্যান্ত জঠিল ও কঠিন।

আল্লাহ তা'আলা ঘোষনা করেন,

"তোমরা সত্যবাদীদের সাথী হও"

সামর্থ্যানুযায়ী দ্বীনের রাস্তায় খরছ করুন।

নেককার-পরহেজগার জীবন সাথী গ্রহণ করুন।ইহা সফলতার অন্যতম মাধ্যম হতে পারে,যদি আল্লাহ চান।

জাযাকিল্লাহ!

আল্লাহ আপনার মনের সকল কামনা-বাসনা পূর্ণ করুক!আমীন।

পরামর্শ প্রদাণে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

পরিচালক

ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...