0 votes
14 views
in Halal & Haram by
আসসালামু আলাইকুম ওয়ারহমাতুল্লাহ উস্তায।  আমার খালা খুবই ব্যস্ত গৃহিণী, বয়স ৪৫+। উনি ইউটিউব দেখে ইয়োগা করেন মানসিকভাবে রিলিফ পাওয়ার জন্য ও ব্যায়ামের ও জন্য। উল্লেখ্য উনি খুব শান্ত ও ধার্মিক মহিলা।

 উনি যাদের ইয়োগা ফলো করেন (ঈমানবিধংসী কোয়ান্টাম মেথড) তা কেন হারাম, ইয়োগার উৎপত্তি যে হিন্দু ধর্মের থেকে, এর মধ্যে শিরক কুফরও বিদ্যমান তা উনাকে বুঝিয়েছি আলিমদের বয়ান হতে। কিন্তু ড. আব্দুল্লাহ খন্দকার জাহাঙ্গীর রহ. বলেছেন সাধারণভাবে ধ্যান মুবাহ, কোয়ান্টামের মধ্যে শিরক ও কুফর বিদ্যমান। তবে ধ্যান না করাই উত্তম। তাহলে কি এর দ্বারা বুঝা যাবে শুধুমাত্র ব্যায়ামের নিয়তে ইয়োগা করা জায়েজ হবে?

1 Answer

0 votes
by (8.8k points)

বিসমিহি তা'আলা

সমাধানঃ- 

আপনার খালার ইয়োগার পদ্ধতি কি সেটা জানাবেন।

খন্দকার আব্দুল্লাহ জাহাঙ্গীর রাহ, যেটা বলেছেন সেটা অবশ্য ঠিক।তবে প্রশান্তির জন্য ঐ পদ্ধতিই গ্রহণ করা উচিৎ যেটা রাসূলুল্লাহ সা, আমাদেরকে শিক্ষা দিয়ে গেছেন।আর সেটা হল, আল্লাহর যিকির

(মনস্তাত্ত্বিক হিসেবে)।সাথে সাথে শারীরিক ব্যয়ামের জন্য দৌড়ানো,ঘোড়দৌড়, সাতার কাটা ও তীরন্দাজী ইত্যাদি করা।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

পরিচালক

ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ

ইসলামিক ফতোয়া ওয়েবসাইটটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত। যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।
...