0 votes
13 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (2 points)
edited by
আসসালামু আলাইকুম।


স্ত্রী  যদি  স্বামীকে বলেঃ

 "তুমি  মুক্ত, স্বাধীন।

তোমাকে  মুক্ত  করে  দিলাম, স্বাধীন  করে  দিলাম।
তোমার  যা খুশি তাই  করো।তোমার  বিষয়  তোমার  হাতে।

নতুন  কাউকে খুঁজে  নাও,নতুন কাউকে বিয়ে করো।

আমার  নিকট তোমার  কোন  কাজ  নাই।  "

★★তার স্বামী, তাকে তালাক দিয়ে  দেক সেই  নিয়তে স্ত্রী  তার স্বামীকে এসব বলে নাই।

[ ★কখনো দুষ্টমি করে বলেছিল।

★ কখনো রাগে,ঝগড়ার সময়  অথবা
অন্য  যে কোন  কারনে এগুলো বলেছিল।  ]

১) এতে কি বৈবাহিক  সম্পর্কে কোন  সমস্যা হয়েছে?তালাক  হয়েছে?

২) এসব  বাক্য স্ত্রী  বলার কতক্ষণ  পর এই কথার কার্যকারীতা শেষ  হবে???
স্ত্রীর এরূপ কথার প্রভাব শেষ হবে কত সময় পর????

স্ত্রীর এইসব কথা মূল্যহীন
কয় মিনিট  পরে হবে?

প্লিজ  বলেন।

৩)  স্ত্রীর এসব কথার  প্রেক্ষিতে  স্বামী  কি বাক্য বললে অথবা  কি করলে বৈবাহিক সম্পর্কের সমস্যা  হয়ে যাবে, তালাক হয়ে যাবে???
   দয়া করে একটু বইলা দেন,প্লিজ।

  প্লিজ বইলা দেন। প্লিজ।

1 Answer

0 votes
by (12,000 points)
edited by

 

بسم الله الرحمن الرحيم

জবাব,

আমরা https://ifatwa.info/12454/?show=12454#q1245 নং ফতওয়াতে উল্লেখ করেছি যে,

তালাক প্রদান করা সম্পূর্ণ স্বামীর অধীকার।হ্যা শরীয়ত কিছু কিছু ক্ষেত্রে স্ত্রীকে নিজের উপর তালাক প্রদানের অনুমোদন দিয়েছে।যেমন,স্বামী কর্তৃক স্ত্রীকে তালাক প্রদানের অনুমতি প্রদান করলে,স্ত্রী নিজেকে তালাক দিতে পারবে।তাছাড়া স্বামী খোরপোষ না দিলে,স্ত্রী কাযী সাহেবের নিকট অভিযোগ দায়ের করতে পারবে।কিংবা স্বামী নিখোঁজ হলে বা ধ্বজভঙ্গ হলে কোর্ট বিবাহ ভঙ্গের রায় দিতে পারবে।বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন-https://www.ifatwa.info/4506

যদি স্বামী তার স্ত্রীকে ইতিপূর্বে তালাক প্রদানের অনুমতি দিয়ে থাকে।তাহলে স্ত্রী নিজে নিজের উপর তালাক প্রদান করতে পারবে।তালাক হওয়ার জন্য স্বামীকে তালাক নামা পাঠানো শর্ত নয়।তবে দুজন স্বাক্ষীর সামনে অথবা কাযীর সামনে তালাক দিতে হবে।যাতে করে পরবর্তীতে কেনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয়।

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী বোন/ভাই!

১.জ্বী না এতে কোন সমস্যা হবে না ।তবে এজাতীয় কথা জবানে উচ্চারণ না করাই উত্তম।

২.স্ত্রী স্বামীকে তালাক দেওয়ার কোন অধিকার রাখে না। তবে স্বামী যদি তাকে তালাক দেওয়ার অধিকার দেয় তাহলে সে নিজের উপর নিজে তালাক নিতে পারে কিন্তু স্বামীকে তালাক দিতে পারে না।বিধায় আপনার উক্ত কথাগুলি অর্থহীন ও মূল্যহীন।

৩.স্বামী যদি স্ত্রীর এমন কথার প্রেক্ষিতে তালাকের নিয়তে বলে যে, আমি তোমাকে মুক্ত করে দিলাম, তোমাকে ছেড়ে দিলাম, তুমি স্বাধীন ইত্যাদী বলে বা সরাসরি তালাকের শব্দ বলে তালাক দ্য়ে তাহলে স্ত্রীর উপর তালাক পতিত হবে। কেনায়া তালাক সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন: https://ifatwa.info/27081/?show=27081#q27081


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী মুজিবুর রহমান
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...