0 votes
30 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (13 points)
reshown by
আমি রাগের মাথাই কিছু কথা বলে ফেলছি যেই গুলা বলা ঠিক কিনা এখন বুজছি না। আমি একজন কে বলে ফেলছি যে আমার যদি ইমান থাকে তাহলে তোকে আজকের এই কাহিনির জন্য মাপ করবোনা। আরো বলছি যে এই আজকে যেই কাহিনি টা হলো এইটাই যদি আমি ভুল হয়ে থাকি তাহলে আল্লাহ জেনো আমাকে সারাজীবন জাহান্নামে রাখে। এখন Situation টা এমন ছিল যে একজন আমাকে কথা দিয়ে সেইটার খিলাফ করছে তো আমি একটু রেগে তার সাথে কথা বলে ফেলছি।

1 Answer

0 votes
by (255,440 points)
edited by
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
الْمُسْتَبَّانِ شَيْطَانَانِ يَتَهَاتَرَانِ وَيَتَكَاذَبَان-
‘পরষ্পর গাল-মন্দকারী ব্যক্তিদয় দুটি শয়তান। তারা পরষ্পরের নিন্দা করে এবং মিথ্যা কথা বলে’ (মুসনাদু আহমদ, হাদিস নং ১৬৮৩৬)।

উপরোক্ত আলোচনা থেকে এটা প্রমানিত যে, গাল-মন্দ করা একটি জঘন্য খারাপ কাজ। এটি ব্যক্তির নীচুতা ও কুরুচির পরিচায়ক এবং মুমিনের চরিত্রের পরিপন্থী। রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন:
 لَيْسَ الْمُؤْمِنُ بِالطَّعَّانِ وَلاَ اللَّعَّانِ وَلاَ الْفَاحِشِ وَلاَ الْبَذِىء-
 ‘মুমিন ব্যক্তি কারো সন্মানে আঘাত করে না। কাউকে
 অভিশাপ দেয় না। অশ্লীল কাজ করে না। মন্দ কথা বলে না’ (সুনান আল-তিরমিজি, হাদিস নং ২১০৫)। 

সুপ্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন!
আপনি যেই সমস্ত কথাবার্তা বলেছেন, তা বলা আপনার জন্য উচিৎ হয়নি, জায়েয হয়নি।তবে এসমস্ত কথাবার্তার দ্বারা আপনার ঈমানে কোনো সমস্যা হবে না। হ্যা, আপনার জন্য করণীয় হল, আপনি এখন খালিছ নিয়তে আল্লাহর কাছে তাওবাহ করবেন।এবং উক্ত কথাবার্তার জন্য আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইবেন।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...