0 votes
64 views
in পবিত্রতা (Purity) by (4 points)
আস সালামু আলাইকুম ।  ইতিকাফ অবস্থায়   যদি স্বপ্নদোষ হয়, তবে গোসলের পর একই বেডিং এ শয়ন করি তবে কি  শরীর নাপাক হবে?  এক্ষেত্রে করনীয় কি?  ওইসময় তো একাধিক বিছানা বেডিং সাথে থাকে না।
এক্ষেত্রে গোসল করার সময়  পরিধানের কাপড়
পরিবর্তন না করলে কি কোনো সমস্যা হবে?  অজুখানায় গোসল করতে হয় এবং তা খোলামেলা থাকে।

1 Answer

0 votes
by (306,320 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
িইতিকাফ অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে বেডের যে অংশে বীর্য লাগবে, সেই অংশকে ধৌত করে পরিস্কার করে নিলেই বেড পবিত্র হয়ে যাবে। আর পরনের যে কাপড়ে বীর্য লাগবে, কাপড়ের সেই অংশকে প্রথমে আলাদা ভাবে ধৌত করে নিয়ে উক্ত কাপড় পরিহত অবস্থায় গোসল করা যাবে, এতেকরে গোসলে কোনো সমস্যা হবে না। এবং ফরয গোসল সম্পন্ন করার পর ঐ বেডেই শয়ন করা যাবে, যে বেডে স্বপ্নদোষ হয়েছিল। এতেকরে বেডে শয়ন করার জন্য শরীর বা কাপড় কিছুই নাপাক হবে না। 

পবিত্রকরণ এর দিক দিয়ে নাজাসত আবার দুই প্রকারঃ যথা-
(ক) দৃশ্যমান নাজাসত
(খ)অদৃশ্যমান নাজাসত

(ক)কাপড়ে প্রথম প্রকার তথা দৃশ্যমান নাজাসত লাগলে সেই নাজাসতকে দূর করে দিলেই কাপড় পবিত্র হয়ে যাবে।এক্ষেত্রে নাজাসত দূর করতে ধৌত করার কোনো পরিমাণ নেই।যতবার ধৌত করলে নাজাসত দূর হবে ততবারই ধৌত করতে হবে।যদি একবার ধৌত করলে তা চলে যায় তবে একবারই ধৌত করতে হবে।

(খ)কাপড়ে দ্বিতীয় প্রকার তথা অদৃশ্যমান নাজাসত লাগলে, কাপড়কে তিনবার ধৌত করে তিনবারই নিংড়াতে হতে।এবং শেষ বার একটু শক্তভাবে নিংড়ানো হবে যাতে করে পরবর্তীতে আর কোনো পানি বাহির না হয়।(ফাতাওয়ায়ে হাক্কানিয়া;২/৫৭৪,জা'মেউল ফাতাওয়া;৫/১৬৭)


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...