0 votes
14 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (16 points)
আসসালামু আলাইকুম।  আমার বাবা একটা ব্যাংকে চাকরি করতেন।তিনি অবসরে আসার আগেই মারা গেছেন। এখন তার পেনশনের যে টাকা ব্যাংক দিবে তা কীভাবে বণ্টন করতে হবে ইসলামিক নিয়ম অনুযায়ী।  উল্লেখ্য আমার মা জীবিত এবং আমরা চার বোন এক ভাই। মায়ের শরীয়তের জ্ঞানের অভাবে তিনি এই টাকা নিজের মনে করে ছেলেমেয়ে কে মন মত দিবেন, নিজের কাজকর্ম করবেন, এমনটাই তার বক্তব্য।  কিন্তু আমি জানি ওয়ারিস এর ব্যাপারে ইসলাম অনেক সেনসিটিভ। এই টাকা ওয়ারিসদের মধ্যে সুষ্ঠু বন্টন না হলে কি আমার পিতা এর জন্য শাস্তি ভোগ করবেন??

দ্বিতীয়ত ব্যাংকে চাকরি হারাম হলে এই টাকা একজন উত্তরাধিকার হিসেবে আমার নেয়া কতটুকু যুক্তিসংগত ?

1 Answer

0 votes
by (226,360 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
হযরত আবু উমামা রাযি থেকে বর্ণিত,রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেনঃ
ﺇِﻥَّ ﺍﻟﻠَّﻪَ ﻗَﺪْ ﺃَﻋْﻄَﻰ ﻛُﻞَّ ﺫِﻱ ﺣَﻖٍّ ﺣَﻘَّﻪُ ، ﻓَﻠَﺎ ﻭَﺻِﻴَّﺔَ ﻟِﻮَﺍﺭِﺙٍ
নিশ্চয় আল্লাহ তা'আলা প্রত্যেক হক্বদারকে তার প্রাপ্য হক্ব (নির্ধারণ)করে দিয়েছেন।সুতরাং ওয়ারিছদের জন্য আর কোনো ওসিয়্যাত নেই।
অর্থাৎ-মূত্যুর পরে কাউকে কিছু দানের সিদ্ধান্ত নিলে সেটা ওসিয়ত হয়ে যায়,আর নিজ ওয়ারিছদের মধ্য থেকে কারো জন্য ওসিয়ত করা জায়েয নয়।তবে ওয়ারিছ ব্যতীত অন্য কারো জন্য এক তৃতীয়াংশ মালে ওসিয়ত করা জায়েয আছে। (সুনানে আবু-দাউদ-২৮৭০সুনানে তিরমিযি-২১২০সুনানে নাসাঈ-৪৬৪১ইবনে মাজাহ-২৭১৩)

হযরত আনাস ইবনে মালেক রাযি থেকে বর্ণিত,
عَنْ أَنَسِ بْنِ مَالِكٍ قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: «مَنْ فَرَّ مِنْ مِيرَاثِ وَارِثِهِ، قَطَعَ اللَّه ُمِيرَاثَهُ مِنَ الْجَنَّةِ يَوْمَ الْقِيَامَةِ»
রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেনঃ যে ব্যক্তি তার ওয়ারিছদেরকে মিরাছ প্রদান থেকে পলায়ন করবে(তথা-ওয়ারিছদেরকে মিরাছ থেকে বঞ্চিত করবে)আল্লাহ তা'আলা ক্বিয়ামতের দিন তাকে জান্নাতের মিরাছ থেকে বঞ্চিত করবেন। (সুনানে ইবনে মাজাহ-২৭০৩)

হযরত ইবনে আব্বাস রাযি থেকে বর্ণিত,
ﻋَﻦِ اﺑْﻦِ ﻋَﺒَّﺎﺱٍ - ﺭَﺿِﻲَ اﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻨْﻬُﻤَﺎ - ﻋَﻦِ اﻟﻨَّﺒِﻲِّ - ﺻَﻠَّﻰ اﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ - ﻗَﺎﻝَ: «ﻻَ ﻭَﺻِﻴَّﺔَ ﻟِﻮَاﺭِﺙٍ، ﺇِﻻَّ ﺃَﻥْ ﻳَﺸَﺎءَ اﻟْﻮَﺭَﺛَﺔُ»
রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেনঃ ওয়ারিছদের জন্য কোনো ওসিয়ত নেই,তবে যদি অন্যান্য সমস্ত ওয়ারিছরা রাজি থাকে তাহলে জায়েয আছে। (মিশকাত-৩০৭৪)

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
আপনার পিতার সম্পত্তি থেকে আপনারা হিস্যা পাবেন। এক্ষেত্রে আপনার মায়ের কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ গ্রহণযোগ্য হবে না। তিনিও আপনার পিতার সম্পত্তি থেকে হিস্যা পাবেন। তিনি পাবেন, ৮ ভাগের এক ভাগ। আপনারা ভাই বোন বাদবাকী সব পেয়ে যাবেন। ভাই যা পাবে, বোন তার অর্ধেক পাবে। 
আপনার পিতার যদি ব্যাংকের হারাম কোনো সেক্টরে চাকুরী করে থাকেন, তাহলে আপনারা সেই টাকার ওয়ারিছ হবেন না। কেননা হারাম মালের ওয়ারিছ সন্তানরা হয় না। বরং উক্ত মালকে সদকাহ করতে হয়। 
ব্যাংক চাকুরী সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন- https://www.ifatwa.info/398
পেনশন ও প্রভিডেন্ট ফান্ড সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন- https://www.ifatwa.info/1246


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

Related questions

...