0 votes
43 views
in পরিবার,বিবাহ,তালাক (Family Life,Marriage & Divorce) by (29 points)
reshown by
অতিরিক্ত স্বপ্নদোষের কারণে লিঙ্গ দূর্বল হয়ে পড়ছে।মাঝে মাঝে মনে হয় যৌন ক্ষমতা হারিয়ে ফেলছি।এক্ষেত্রে আমি কি দ্রুত বিবাহ করব নাকি বিবাহ থেকে বিরত থাকব?

1 Answer

0 votes
by (51,160 points)
বিসমিহি তা'আলা
বিবাহঃ
যদি ইতিপূর্বে পর্যাপ্ত বয়স আপনার হয়ে গিয়ে থাকে,তাহলে আপনার জন্য রোগ দেখা দেয়ার সাথে সাথেই বিয়ে করা উচিৎ ছিলো।এখনো সময় আছে দূত বিয়ে করুন।সর্বোপরি এ বিষয়ে বিষেশজ্ঞ ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।তার পরামর্শ অনুযায়ী চলার চেষ্টা করুন।সময়মতো ঔষধ সেবন করুন।

হাদীসে এসেছে,
عن علقمة، قال: كنت مع عبد الله، فلقيه عثمان بمنى، فقال: يا أبا عبد الرحمن إن لي إليك حاجة فخلوا، فقال عثمان: هل لك يا أبا عبد الرحمن في أن نزوجك بكرا، تذكرك ما كنت تعهد؟ فلما رأى عبد الله أن ليس له حاجة إلى هذا أشار إلي، فقال: يا علقمة، فانتهيت إليه وهو يقول: أما لئن قلت ذلك، لقد قال لنا النبي صلى الله عليه وسلم: «يا معشر الشبابمن استطاع منكم الباءة فليتزوج، ومن لم يستطع فعليه بالصوم فإنه له وجاء»
‘আলক্বামাহ (রহ.) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, যখন আমি ‘আবদুল্লাহ্ (রাঃ)-এর সঙ্গে ছিলাম, ‘উসমান (রাঃ) তাঁর সঙ্গে মিনাতে দেখা করে বলেন, হে আবূ ‘আবদুর রহমান! আপনার সাথে আমার কিছু দরকার আছে। অতঃপর তারা দু’জনে এক পাশে গেলেন। তারপর ‘উসমান (রাঃ) বললেন, হে আবূ ‘আবদুর রহমান! আমি কি আপনার সঙ্গে এমন একটি কুমারী মেয়ের বিয়ে দিব, যে আপনাকে আপনার অতীত কালকে স্মরণ করিয়ে দিবে? ‘আবদুল্লাহ্ যখন দেখলেন, তার এ বিয়ের দরকার নেই তখন তিনি আমাকে ‘হে ‘আলক্বামাহ’ বলে ইঙ্গিত করলেন। আমি তাঁর কাছে গিয়ে বলতে শুনলাম, আপনি আমাকে এ কথা বলছেন (এ ব্যাপারে) রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদেরকে বলেছেন, হে যুবকের দল! তোমাদের মধ্যে যে বিয়ের সামর্থ্য রাখে, সে যেন বিয়ে করে এবং যে বিয়ের সামর্থ্য রাখে না, সে যেন ‘সওম’ পালন করে। কেননা, সওম যৌন ক্ষমতাকে দমন করে।(সহীহ বোখারী-৫০৬৫)

অবস্থাভেদে বিয়ে করা ফরয,ওয়াজিব,সুন্নত ও হারাম হয়।
যৌনক্ষমতা সম্পর্কে আপনি অতিসত্বর ডাক্তার সাথে পরামর্শ করুন।যদি ডাক্তার বলে আপনার যৌনক্ষমতা ঠিক আছে বা ঠিক হয়ে যাবে,তাহলে এখনি বিয়ে করে ফেলুন।যৌনক্ষমতা ও মহরের সামর্থ্য থাকাবস্থায় বিয়ে করা সুন্নত।যিনা-ব্যভিচারের আশংকা থাকলে ওয়াজিব আর পূর্ণ ঈয়াকিন থাকলে তখন বিয়ে করা ফরয হয়ে যায়।
আল্লাহ-ই ভালো জানেন।


উত্তর লিখনে
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ, IOM.


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (29 points)
বয়স ২৫।ওজন ৫০ এর নিচে।।স্বাস্থের এই অবনতির জন্য বিবাহ করারও সাহস করছি না।আর বাসায় বিবাহের কথা বলার পরও তাদের এখন বিবাহ করানোর কোনো আগ্রহ নেই।
by (51,160 points)
ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।আপনার ভবিষ্যৎ কে রক্ষা করতে এখন বিয়ের প্রয়োজন।সেটা আপনার পরিবারকে বুঝান।নতুবা আপনার সামনে অনেক বিপদ রয়েছে।সেটা সম্পর্কে তাদেরকে অবগত করুন।নিজ এলাকার ইমাম সাহেবের মাধ্যমে তাদেরকে বুঝানোর চেষ্টা করুন।আল্লাহ আপনার সহায় হোক।
by (29 points)
edited by
আমার দ্রুত বিবাহ করা উচিৎ হবে নাকি?? বা যে সমস্যা হচ্ছে তার জন্য কি ইস্তিখারার সালাত আদায় করতে পারবো???এভাবে ইস্তিখারার সালাত আদায় করা কি জায়েজ হবে?
by (29 points)
reshown by
আমার দ্রুত বিবাহ করা উচিৎ হবে নাকি?? বা যে সমস্যা হচ্ছে তার জন্য কি ইস্তিখারার সালাত আদায় করতে পারবো???এভাবে ইস্তিখারার সালাত আদায় করা কি জায়েজ হবে?

একটু জানালে উপকার হবে
by (51,160 points)
আপনি দূত বিয়ে করে ফেলুন।ইস্তেখারা অর্থ হলো,দু'টি ভালোর মধ্যে কোনো একটি পছন্দ করার জন্য আল্লাহর কাছে সাহায্য চওয়া।এখানে কিন্তু আপনাকে বিয়ের কথাই বলা হচ্ছে।তাই এটা  ইস্তেখারার স্থান নয়।বরং সালাতুল হাজতের স্থান

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...