আইফতোয়াতে ওয়াসওয়াসা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে না। ওয়াসওয়াসায় আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও করণীয় সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

0 votes
70 views
in ঈমান ও বিশ্বাস (Faith and Belief) by (5 points)
আমার এক ভাই মোটেই নামাজ পড়েন না। আম্মা এই দুঃখে উঠে বললেন, "ভাইয়ের নামাজ না পড়ার পিছনে কি মানুষের দোষ  (কোনো মানুষ জাদু করলো) নাকি আল্লাহ এর দোষ? "
না'উযুবিল্লাহ। আম্মা এই ধরনের "আল্লাহ এর দোষ" কথা বলার কারনে ঈমান কি চলে যাবে? যদিও কথাটা কুফরি।
(আমার আম্মা ইসলাম সম্পর্কে কম জানেন)

1 Answer

0 votes
by (725,040 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
আলহামদুলিল্লাহ!
যে ব্যক্তি জেনেশুনে কুফরি কথা নিজ জবান দ্বারা উচ্ছারণ করবে, যেই কথা দ্বারা কুফরি অত্যাবশ্যক হয়, তাহলে এমন ব্যক্তির জন্য ঈমান নবায়ন করা ওয়াজিব হয়ে যায়। তবে ভুলে(একটি বলার উদ্দেশ্য ছিলো,কিন্তু মুখ থেকে অন্যটি বের হয়ে যায়) কোনো কুফরি কথা মুখ থেকে উচ্ছারিত হয়ে গেলে, এদ্বারা ঈমান চলে যাবে না। সুতরাং তখন ঈমান নবায়ন করতে হবে না। হ্যা, তখন সতর্কতামূলক ইস্তেগফার করা উচিৎ।এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- 96278 

لما فی الفتاویٰ الشامية:
"ومن تکلم بها مخطئًا أو مکرهًا لایکفر عند الکل". (باب المرتد جلد 4 ص: 224 ط: سعید)

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
 "ভাইয়ের নামাজ না পড়ার পিছনে কি মানুষের দোষ  (কোনো মানুষ জাদু করলো) নাকি আল্লাহ এর দোষ? "

প্রশ্নের বিবরণমতে যেহেতু আপনার 'মা' না জেনে না বুঝে অনিচ্ছাকৃত এমনটা বলেছেন, তাই আপনার মায়ের ঈমানে সমস্যা হবে না।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন। এই প্রশ্ন ও উত্তরগুলো আমাদের ফেসবুকেও শেয়ার করা হবে। তাই প্রশ্ন করার সময় সুন্দর ও সাবলীল ভাষা ব্যবহার করুন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি স্থানীয় মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

Related questions

...