আইফতোয়াতে ওয়াসওয়াসা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে না। ওয়াসওয়াসায় আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও করণীয় সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

0 votes
83 views
in ঈমান ও বিশ্বাস (Faith and Belief) by (16 points)
আসসালামু আলাইকুম। একটু তারাতারি জানাবেন প্লিজ।

১, এর আগের প্রশ্নে মুফতি সাহেব আমাকে বলেছিলেন সতর্কতা বশত ইমান নবায়ন করে নিতে।
" ইয়া আল্লাহ, আমি যত শিরক, কুফর করেছি আর ইমানের ক্ষতি বা ভংগ হয়ে জাওয়ার মত জা কিছু করেছি বা বলেছি তার জন্য আমি তাওবা করছি,  আমি কালেমার সব শর্ত  বিশ্বাস করি,  স্বিকার করি। তারপর কালেমা তায়্যেবা আর কালেমা শাহাদাত পরে ইমান নবায়ন করে নিলাম" এভাবে বললে কি কোন সমস্যা হবে? মুখে জোরে উচ্চারন করতে হবে নাকি নিজে শোনা জাওয়ার মত করে বললেই হবে?

২, আমি কালেমার সব শর্ত বিশ্বাস করি, স্বিকার করি এই লাইন টা মুখে না বললে কি সমস্যা হবে?

৩, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু তে "লা" তে টান না দিলে কি অর্থ পাল্টে জায়?  না টেনে বলে ফেললে কি গুনাহ হবে?
by (16 points)
ইমান নবায়নের পর গোসল করতে হবে? 

1 Answer

0 votes
by (636,800 points)
জবাবঃ-
وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته 
بسم الله الرحمن الرحيم

আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেনঃ


وَمَنْ يَرْتَدِدْ مِنْكُمْ عَنْ دِينِهِ فَيَمُتْ وَهُوَ كَافِرٌ فَأُولَئِكَ حَبِطَتْ أَعْمَالُهُمْ فِي الدُّنْيَا وَالْآَخِرَةِ وَأُولَئِكَ أَصْحَابُ النَّارِ هُمْ فِيهَا خَالِدُونَ


আর তোমাদের মধ্যে কেউ যদি নিজের ধর্ম থেকে ফিরে যায়। আর সে অবিশ্বাসী অবস্থায় মারা যায়তাহলে দুনিয়া ও আখেরাতে তাদের সকল নেক আমল বরবাদ হয়ে যাবে। এই লোকেরাই হল জাহান্নামের অধিবাসীতারা চিরকাল সেখানে থাকবে। (বাকারা ২ : ২১৭)

 

ফাতাওয়ায়ে আলমগীরীতে আছেঃ

 

 واسلامه أي المرتد أن يأتي   بكلمة  الشهادة ويتبرأ عن الأديان كلها سوي  الإسلام وأن  يتبرأ عما انتقل  إليه

যার সারমর্ম হলো প্রথমেই মুরতাদ ব্যক্তিকে  কালেমায়ে শাহাদাত পাঠ করতে হবেতারপর ইসলাম ধর্মকে অন্যান্য ধর্মের উপর প্রাধান্য দিতে    হবেতারপর তাকে পূর্বের মতবিশ্বাসকাজকর্ম থেকে ফিরে আসতে  হবে। (ফাতাওয়ায়ে আলমগীরী ২/২৫৩ মাতবুয়ায়ে মাজিদাহ কোয়েটাহ)      

 

শরীয়তের বিধান অনুযায়ী কোনো মুরতাদ ব্যক্তি যদি ইসলাম গ্রহন করতে চায় তাহলে তাকে প্রথমে কালেমায়ে শাহাদাত পড়তে হবে।

أشهد أن لا إله الا الله  وأشهد أن محمدا عبده ورسوله 

অর্থাৎ তাকে বলতে হবে যে আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে আল্লাহ ছাড়া কোনো ইলাহমাবুদ নেই,আমি আরো সাক্ষ্য দিচ্ছি যে মুহাম্মাদ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আল্লাহ তায়ালার বান্দা এবং তার রাসুল।

অতঃপর ইসলাম ব্যতিত অন্য ধর্ম বাতিল বলে তাকে ফিরে আসতে হবে। অতঃপর তাকে তওবা করতে হবে যে আমার পূর্বের যাবতীয় কর্মকান্ড থেকে মহান আল্লাহর কাছে তওবা করিতেছি। আমি লজ্জিত অনুতপ্তআমি আর কোনো দিন এহেন কাজ করিবোনাএহেন বিশ্বাস স্থাপন করিবোনা। (তারপর থেকে ইসলাম ধর্মের যাবতীয় বিধান তাকে মনেপ্রানে,কাজেকর্মে মানতে হবে।) এর পর থেকে তাকে মুসলমান হিসেবে গন্য করা হবে।(ফাতাওয়ায়ে খতমে নবুয়্যত ১/৩০০) 


বিস্তারিত জানুনঃ- 

★সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন,
(০১)
এভাবে বললে কোনো সমস্যা হবেনা। 
নিজে শোনার মতো আওয়াজে বললেই হবে।

কালেমায়ে শাহাদাত/কালেমায়ে তায়্যিবাহ আরবী অথবা বাংলা অর্থ মুখে উচ্চারণ করতে হবে।

(০২)
এই লাইনটা মুখে না বললে সমস্যা নেই।
তবে কালেমায়ে শাহাদাত/কালেমায়ে তায়্যিবাহ আরবী অথবা বাংলা অর্থ মুখে উচ্চারণ করতে হবে।

(০৩)
এক্ষেত্রে অর্থ পরিবর্তন হয়।
তাই ইচ্ছাকৃতভাবে এমনটি বলা যাবেনা।

অনিচ্ছাকৃত ভাবে বলে ফেললে গুনাহ হবেনা।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (16 points)
 এভাবে ইমান নবায়নের পর গোসল করতে হবে?
by (636,800 points)
আপনাকে তো মুফতি সাহেব সতর্কতামূলক ঈমান নবায়ন করতে বলেছিলেন,আপনার তো ঈমান চলে যায়নি।

তাই গোসল আবশ্যক নয়।

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন। এই প্রশ্ন ও উত্তরগুলো আমাদের ফেসবুকেও শেয়ার করা হবে। তাই প্রশ্ন করার সময় সুন্দর ও সাবলীল ভাষা ব্যবহার করুন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি স্থানীয় মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

Related questions

...