0 votes
37 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (14 points)
কুরআন মাজীদ সংরক্ষণের সময় একটি মুসহাফ এর উপর আরেকটি মুসহাফ রাখা যাবে কি?মুসহাফ গুলো কি ঘরের সবচেয়ে উচ্চ স্থানে রাখা অপরিহার্য? ট্রান্সিলারেশন (আরবির উচ্চারন বাংলায়)সম্বলিত কুরআন পড়া কি জায়েজ?  কুরআন মাজীদে চিন্হ রাখার জন্য পেনসিলের দাগ দেয়া যাবে কি?

1 Answer

0 votes
by (32k points)
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-

জ্বী, একটি মুসহাফকে অন্য আরেকটি মুসহাফের উপর রাখা যাবে।কেননা উভয়টাই তো কুরআন।তবে অন্যকোন কিতাবকে মুসহাফের উপর রাখা যাবে না।কেননা সেটা আদবের খেলাফ।

কুরআনে কারীম সম্মানিত  জিনিষ।কেননা এটা আল্লাহর কালাম।তাই তাকে সম্মান ও মর্যাদাপূর্ণ স্থানে রাখাই উচিৎ।যেহেতু উপরকে মানুষ সম্মানী ভাবে,তাই কুরআনে কারীমকে উপরেই রাখাই সম্মানের দাবী।

যারা আরবী জানেন।তারা সরাসরি আরবী কুরআন থেকে পড়বেন।এবং যারা জানেন না,তাদের উপর অত্যাবশ্যকীয় দায়িত্ব ও কর্তব্য হল,আরবীতে কুরআনকে শিখে নেয়া।এবং শেখার আপামর চেষ্টা করা।

যদি কারো সামনে আরবী কুরআন শিক্ষার কোনো মাধ্যম না থাকে তাহলে অবশ্যই তিনি উচ্ছারণের সাহায্য নিতে পারেন।

মনে রাখতে হবে,উচ্ছারণের সাহায্য নিয়ে কখনো বিশুদ্ধ ভাবে কুরআন তেলাওয়াত করা সম্ভবপর হবে না।

তাই সরাসরি আরবী কুরআন পড়া এবং পড়ার চেষ্টা করাই উচিৎ।

এটা সকল মুসলমানের ঈমানী দায়িত্ব ও কর্তব্য।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

...