0 votes
18 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (13 points)
অবসর কাটানোর জন্য অনেকেই ইসলামি নাটক, সিরিজ দেখেন। তারা মনে করেন ইসলামিক বিষয়ের উপর নাটক দেখা কোনো সমস্যা না এবং ঘরে বসে থেকে বিনোদনের উপায় নেই এগুলো ছাড়া। এগুলোর অনেক গুলোতে স্পষ্টভাবেইবনবী, সাহাবীর চরিত্রে ব্যক্তিরা অভিনয় করে থাকে।  মোটামুটিভাবে দ্বীনচর্চা হয় এরকম অনেক পরিবারেও দেখা যায় বাচ্চাকে শান্ত রাখতে কার্টুন দেখানো হয়, ছড়া শোনানো হয় যেগুলোতে মানুষের অবয়ব স্পষ্ট থাকে এবং অনেক ক্ষেত্রে মিউজিক ও থাকে৷ শরীয়তের হুকুম কি এসব বিষয়ে?

1 Answer

0 votes
by (74,320 points)

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

জবাবঃ

শরীয়ত অনুমোদিত কয়েকটি ক্ষেত্র ব্যতীত ছবি-ভিডিও হারাম।বিস্তারিত জানুন- 2253
অবসর কাটানোর জন্য ইসলামিক নাটক,সিরিজ দেখা কখনো জায়েয হবে না।কেননা এতে মিউজিক,নারী দৃশ্য সহ প্রেম ভালাবাসার দৃশ্য থাকে।

ইসলামিক কার্টুন দেখা সম্পর্কে বলা যায় যে, 
নারী-পুরুষের ফ্রি মিক্সিং পরিবেশ ব্যতীত এবং অন্যন্য হারাম জিনিষ থেকে মুক্ত ইসলামিক ইতিহাস নিয়ে রচিত কোনো কার্টুন থাকলে শিক্ষার প্রয়োজনে শিশুদের জন্য অনুমোদন কিছুসংখ্যক ফুকাহায়ে কেরাম দিয়ে থাকেন।এমন কার্টুন প্রয়োজনে বড়রাও মাঝেমধ্যে দেখতে পারবে।তবে সব সময় আবার দেখতে পারবে না।কেননা এতে সময়ের অপচয় হবে।
হাদীসে এসেছে,ইবনু মাসউদ (রাঃ) হতে বর্ণিত আছে,
أن النبي صلى الله عليه وسلم قال : ( لَا تَزُولُ قَدَمُ ابْنِ آدَمَ يَوْمَ الْقِيَامَةِ مِنْ عِنْدِ رَبِّهِ حَتَّى يُسْأَلَ عَنْ خَمْسٍ : عَنْ عُمُرِهِ فِيمَ أَفْنَاهُ ، وَعَنْ شَبَابِهِ فِيمَ أَبْلَاهُ ، وَمَالِهِ مِنْ أَيْنَ اكْتَسَبَهُ وَفِيمَ أَنْفَقَهُ وَمَاذَا عَمِلَ فِيمَا عَلِمَ ) 
 রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ কিয়ামাত দিবসে পাঁচটি বিষয় সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ হওয়ার আগপর্যন্ত আদম সন্তানের পদদ্বয় আল্লাহ্ তা'আলার নিকট হতে সরতে পারবে না। তার জীবনকাল সম্পর্কে, কিভাবে অতিবাহিত করেছে? তার যৌবনকাল সম্পর্কে, কি কাজে তা বিনাশ করেছে; তার ধন-সম্পদ সম্পর্কে, কোথা হতে তা উপার্জন করেছে এবং তা কি কি খাতে খরচ করেছে এবং সে যত টুকু জ্ঞান অর্জন করেছিল সে মুতাবিক কি কি আমল করেছে।
(সুনানু তিরমিযি-২৪১৬)বিস্তারিত জানুন- 4677

মু'মিন একটি মুহুর্তও অযথা কাটাবে না।বরং সর্বদাই আল্লাহর ইবাদতে লিপ্ত থাকবে।নামায পড়বে,কুরআন তিলাওয়াত করবে,নয়তো যিকির করবে।যদি ইবাদত করতে করতে মন ক্লান্ত হয়ে যায়,তখন মনকে উৎফুল্ল করতে বৈধ বিনোধনের ব্যবস্থা শরীয়তে রয়েছে।বৈধ বিনোধন সম্পর্কে জানতে ভিজিট করুন- 673


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...