0 votes
15 views
in হজ ও উমরা (Hajj and Umrah) by (33 points)
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ, হযরত

কোন ব্যক্তি যদি এমন নিয়ত করে থাকেন কয়েক বছর পরে হজ্জে যাবো কিন্তু তার আগেই যদি তিনি মারা যান তবে তার সন্তানদের জন্য তার পক্ষ থেকে হজ্জ করা কি ফরয?

1 Answer

0 votes
by (41,600 points)
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-
আল্লামা কা'সানি হানাফি রাহ লিখেন,
 فيجب عليه أن يوصي به،فإن لم يوص به حتى مات أثم بتفويته الفرض عن وقته مع إمكان الأداء في الجملة فيأثم لكن يسقط عنه في حق أحكام الدنيا عندنا 
হজ্বের সামর্থ্য থাকার পরও কেউ হজ্ব করতে না পারলে তার উপর ওয়াজিব হজ্বের ওসিয়ত করা।যদি সে ওসিয়ত না করে,তাহলে সামর্থ থাকাসত্তেও হজ্বকে আদায় না করার ধরুণ সে গোনাহগার হবে।এমতাবস্থায় আমাদের মাযহাব মতে ওয়ারিছদের জন্য হজ্ব করা ওয়াজিব নয়।
حتى لا يلزم الوارث الحج عنه من تركته لأنه عبادة، والعبادات تسقط بموت من عليه سواء كانت بدنية أو مالية في حق أحكام الدنيا عندنا.
উক্ত ব্যক্তির পক্ষ্য থেকে হজ্ব করা ওয়াজিব নয়।কেননা এটা একটা ইবাদত।আর দুনিয়ার বিধান হিসেবে ইবাদতগুলো সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির মূত্যুর সাথে সাথেই রহিত হয়ে যায়,চায় মালি ইবাদত হোক বা বদনি হোক।

وإن أحب الوارث أن يحج عنه حج، وأرجو أن يجزيه ذلك - إن شاء الله تعالى
যদি ওয়ারিছরা ঐ মৃত ব্যক্তির পক্ষ্য থেকে বদলী হজ্ব করতে পছন্দ করে তবে তারা করত পারবে।এবং অাশা রাখা যায় যে,হয়তো আল্লাহ কবুল করে নেবেন।(বাদায়ে সানায়ে-২/২২১)

আল্লাহ ই ভালো জানেন।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...