0 votes
20 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (33 points)

#নিয়মিত_চিরুনী_করা_নিষেধ

হুমায়দ ইব্ন আবদুর রহমান হিমইয়ারী (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, এমন এক ব্যক্তির সাথে, আমার সাক্ষাত হল, যিনি আবু হুরায়রা (রাঃ)-এর মত চার বছর রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর সংসর্গ লাভ করেছিলেন। তিনি বলেনঃ রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদেরকে রোজ চিরুনী করতে নিষেধ করেন।


সুনানে আন-নাসায়ী,
হাদিস নং ৫০৫৪
হাদিসের মান: সহিহ হাদিস

( এ ছাড়াও সুনানে আন-নাসায়ী এর ৫০৫৫ এবং ৫০৫৮ নাম্বার হাদিসে রাসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিয়মিত চিরুনী করে নিষেধ করেন। সেই হাদিস গুলোর মানও সহিহ ) 

Facebook এ এই লেখাটা পেলাম। 

নিয়মিত চিরুনী করা বিষয়ে সঠিক মাসআলা  জানতে চাচ্ছছি । 

1 Answer

0 votes
by (41.1k points)
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-
চুলকে সুন্দর রাখা এবং তেল দিয়ে রাখা মুস্তাহাব।কেননা হাদীস শরীফে এসেছে,হযরত আবু হুরায়রা রাযি থেকে বর্ণিত,
عن أبي هريرة رضي الله عنه أن النبي صلى الله عليه وسلم قال ( مَنْ كَانَ لَهُ شَعْرٌ فَلْيُكْرِمْهُ )
রাসূলুল্লাহ সাঃ বলেন,যে চুল রাখবে সে যেন তার চুলের সম্মান করে।(সুনানু আবি-দাউদ-৩৬৩২)
قوله : " فليكرمه " : " أي فليزينه ولينظفه بالغسل والتدهين والترجيل ولا يتركه متفرقاً، فإن النظافة وحسن المنظر محبوب.."
সম্মান করার অর্থ হল,সে যেন ধৌত করার দ্বারা ও তেল ব্যবহারের দ্বারা এবং চিরুনি করার দ্বারা চুলকে পরিস্কার ও পরিপাটি করে সজ্জিত রাখে।চুলগুলোকে যেন এলোমেলো না ছেড়ে দেয়।কেননা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা শরীয়ত কর্তৃক পছন্দনীয়।(আউনুল মা'বুদ-৯/১১৮৩)

তবে চুলের যত্ন নিতে সীমালঙ্ঘন করা অপছন্দনীয়।কেননা এতে অনর্থক অপচয় এবং সময় নষ্ট করা হবে।অথচ রাসূলুল্লাহ সাঃ চুলের যত্নে সীমালঙ্ঘন করাকে অপছন্দ করেছেন।
(نَهَى رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ التَّرَجُّلِ إِلَّا غِبًّا)
রাসূলুল্লাহ সাঃ দৈনিক চিরুনি দিতে নিষেধ করেছেন।(সুনানু আবি-দাউদ-৩৬২৮,সুনানু তিরমিযি-১৬৭৮)

ইবনুল আছির রাহ বলেন,
قال ابن الأثير رحمه الله : الترجل والترجيل: تسريح الشعر وتنظيفه وتحسينه.."
তারাজ্জুল এবং তারজিল এর অর্থ হল,চুলকে সুন্দর ও পরিপাটি করে রাখা।(গারিবুল হাদীস-২/৪৯৪)

ইমাম আহমদ রাহ,বলেন,
وقوله : " إلا غباً " قال الإمام أحمد رحمه الله " يدهن يوماً ويوماً لا "
একদিন চুলকে চিরুনি দেয়া হবে এবং একদিন দেয়া হবে না।(আল-মুগনি-১/৬৭)

মোল্লা আলী ক্বারী রাহ ৪৪৪৮নং হাদীসের ব্যখ্যায় বলেন,
 والمراد به النهي عن المواظبة عليه والاهتمام به ; لأنه مبالغة في التزيين وتهالك في التحسين.............. والظاهر عن عبارته أن تمشيط اللحية كل يوم ليس داخلا في النهي،
ভাবার্থ-উক্ত হাদীসে চুলের যত্নে সীমালঙ্ঘন করাকে  নিষেধ করা হয়েছে।সারকথা, দৈনিক চিরুনি করার নিষেধাজ্ঞা উক্ত হাদীসে উদ্দেশ্য নয়।বরং উদ্দেশ্য হল,চুলের যত্ন করতে গিয় সময়কে অপচয় না করা।

ইমাম শাওকানী রাহ বলেন,
"والحديث يدل على كراهة الاشتغال بالترجيل في كل يوم؛ لأنه نوع من الترفه. وقد ثبت من حديث فضالة بن عبيد عند أبي داود قال : (إن رسول الله صلى الله عليه وسلم كان ينهانا عن كثير من الإرفاه) .والإرفاه : الاستكثار من الزينة وأن لا يزال يهيئ نفسه"
এই হাদীস দৈনিক চুলে চিরুনি দেয়াকে মাকরুহ বুঝায়।কেননা দৈনিক চিরুনি অধিক সুন্দর্য গ্রহণকে বুঝায়।হাদীসে রর্ণিত রয়েছে,রাসূলুল্লাহ সাঃ অধিক সুন্দর্য গ্রহণ থেকে নিষেধ করেছেন।(নাইলুল আওতার-১/১৫৯)আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ, Iom.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...