0 votes
35 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (2 points)
বিদেশ থেকে টাকা আসলে সেই টাকার উপর সরকার ২% বোনাস দিয়ে থাকে, আমার প্রশ্ন হল এই বোনাস টাকাগুলো কি হালাল? অথবা করণীয় কি।

1 Answer

0 votes
by (32.2k points)
বিসমিহি তা'আলা
জবাবঃ-
হুন্ডি বা চোরাই পথে লেনদেন না করে, ব্যাংকের মাধ্যমে লেনদেন করতে উৎসাহিত করতে সরকার এই ২% বোনাসের সিস্টেম জারি করেছে।
এতেকরে রেমিটেন্স তথা বৈদেশিক মুদ্রার সুষ্ট হিসাব রাখা সম্ভব হবে।যদ্ধরূণ ভবিষ্যতে দেশের টাকার মান বাড়বে।সুতরাং সরকারি এ উদ্যোগ প্রশংসনীয়।

এখন ফেকহী দিক নিয়ে আমরা একটু চিন্তাভাবনা করি।
প্রশ্ন হল, এই ২% কি সুদ হবে?
প্রতিউত্তরে বলা যায় যে,
সুদ হলো,ঋণ দিয়ে বিনিময়ে কিছু গ্রহণ করা।যেমন উসূলে ফিকহের সুপ্রসিদ্ধ মূলনীতি
كل قرض جر نفعا فهو ربا
প্রত্যেক ঐ ঋণ যা মুনাফাকে টেনে নিয়ে আসে সেটাই সুদ।

এখানে কিন্তু ব্যাংকে ঋণ রাখা হচ্ছে না।বরং বৈধ পদ্ধতিতে লেনদেনের জন্য সরকার পুরুস্কার দিচ্ছে।

আর সরকারি পুরুস্কার বৈধ।কেননা সরকারী আয়ের সকল উৎস হারাম নয়।বরং বলতে অধিকাংশ উৎসই হালাল।

সুতরাং ব্যাংক মারফত বিদেশ থেকে রেমিটেন্স আনতে সরকার যে ২% বোনাস দিচ্ছে সেটা জায়েযই হবে।
অাল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, Iom.
by (2 points)
জাযাকাল্লাহ।

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...