0 votes
19 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (89 points)
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ,

মুহতারাম, পত্রিকায় সংবাদের সাথে ও বিজ্ঞাপন হিসেবে যেসব ছবি ( নারী ও পুরুষ উভয়ের) ছাপানো হয় সেগুলোর ক্ষেত্রে আহকাম কি?

এসব ছবি সম্বলিত পত্রিকা ঘরে রাখার কারণে, " রহমতের ফেরেশতা ঘরে প্রবেশ করবে না"- এই ঘোষণা কি কার্যকর হবে?

1 Answer

0 votes
by (32.2k points)

বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-

সংবাদপত্র ছাপানো

বিনা প্রয়োজনে ছবি তুলা হারাম।প্রয়োজনে জায়েয।তবে শুধুমাত্র প্রয়োজন পর্যন্তই সীমাবদ্ধ থাকবে। 

বিজ্ঞাপনী হিসেবে নারী-পুরুষদের ছবি  ছাপানো কখনো জায়েয হবেনা।এটা স্পষ্টত হারামই হবে।

সংবাদপত্রে কাজ করা

ছবি ছাপানোর কাজ করা জায়েয হবে না।তবে যদি কোনো চাকুরীতে ছবি ছাপানোর সাথে  অন্য কাজও থাকে।এবং অন্য কাজের তুলনায় ছবি ছাপানোর কাজ কম।তাহলে এমতাবস্থায় উক্ত চাকুরীতে রুখসত থাকবে। সর্বোপরি কোনো বৈধ চাকুরী তালাশ করাই তাকওয়ার দাবী।বৈধ চাকুরী খুজে নেয়ার পূর্ব পর্যন্ত ইস্তেগফারের সাথে উক্ত কাজ বৈধ হবে।

সংবাদপত্র ক্রয় করা ও পড়া

উসূলে ফিকহের মূলনীতি হলো,

الأمور بمقاصدها-(شرح المجلة لسليم رستم باز)

প্রত্যেক কাজ তার উদ্দেশ্যর উপর নির্ভরশীল।

সুতরাং সংবাদ জানার উদ্দেশ্যে পত্রিকা ক্রয় করলে, এখানে পত্রিকা ক্রয়ের মূল উদ্দেশ্য হল,খবর পড়া ও জানা। ছবি দেখা মূখ্য উদ্দেশ্য নয়।

সুতরাং পত্রিকা ক্রয় করা জায়েয।তখন ছবিগুলো পত্রিকা পড়া তথা সংবাদ জানার তা'বে হিসেবে গণ্য হবে।ছবিকে কেটে ফেলতে হবে বা কিছু দ্বারা ঢেকে দিতে হবে।

(ফাতাওয়ায়ে মাহমুদিয়্যাহ-১৯/৪৮২)

পত্রিকার ছবি ঘরে উন্মোক্ত থাকলে তা রহমতের ফিরিস্তাদের জন্য প্রতিবন্ধক হবে। সুতরাং পত্রিকার ছবিকে হয়তো কেটে ফেলতে হবে নতুবা জ্বালিয়ে দিতে হবে কিংবা মিটিয়ে দিতে হবে।অথবা অসম্মানজনক স্থানে রাখতে হবে।

প্রয়োজনে পত্রিকা পড়া যাবে তবে ছবির দিকে দৃষ্টি দেয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।(আহসানুল ফাতাওয়া-৮/১৮৯)

ছবির বিধান সম্পর্কে আরো জানতে ভিজিট করুন- 974

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, Iom.

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

Related questions

...