+1 vote
58 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (14 points)
closed by

আমি গত রাত্রে প্রায় ফজরের পূর্ব মুহুর্তে একটি স্বপ্ন দেখি যা প্রায় এমন:

একজন পানিতে ডুবে যাওয়া মহিলাকে বাচাতে 2 জন পুরুষ পানিতে নামলো কিন্তু তারা 3 জনই বাচতে পারেনি। 3 জন একই সাথে গলাগলি অবস্থায় মারা গেলো (আত্মহত্যা নয়)লাশ উদ্ধারের পর একজন ব্যাক্তিকে দেখলাম বারবার শুধু মৃত মহিলাটার উপর বদ নজর দিচ্ছিলো এবং অই লাশটির সাথে যীনা করবে সিদ্ধান্ত নিলো। কিন্তু আমি তাকে অনেক বুঝালাম তবুও সে বুঝলো না এবং যখন সে বুঝতে পারলো আমি এবং আমার বন্ধুরা তাকে আটকাবো বা মারবো ঠিক তখনি সে এখান থেকে চলে গেলো এবং লাশকাটা ঘরে চলে গেলো। এরপরে আমিও লাশকাটা ঘরে যাই এবং গিয়ে দেখি একদিকে লাশটি কাটা হচ্ছে এবং একইসাথে অই বদ লোকটি যীনায় লিপ্ত অই লাশটির সাথে ।আমি কাছে যেতে যেতে তাদের কাজ শেষ করে লাশ ফেলে চলে যায় পাটিতে মোড়ানো অবস্থায় এবং আমাকে বলে যায় " যা তর কবুর নিয়া যা" দয়া করে এটির ব্যাখ্যা দিবেন?

closed

1 Answer

+1 vote
by (170,760 points)
selected by
 
Best answer
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ

হযরত ইবনে যামল(/যিমল)রাযি. থেকে বর্ণিত,তিনি বলেন,
ﻋَﻦِ ﺍﺑْﻦِ ﺯَﻣْﻞٍ ، ﺭَﺿِﻲَ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻨْﻪُ ﻗَﺎﻝَ : ﻛَﺎﻥَ ﺭَﺳُﻮﻝُ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﺇِﺫَﺍ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﺼُّﺒْﺢَ ﺍﺳْﺘَﻘْﺒَﻞَ ﺍﻟﻨَّﺎﺱَ ﺑِﻮَﺟْﻬِﻪِ ، ﻭَﻛَﺎﻥَ ﻳُﻌْﺠِﺒُﻪُ ﺍﻟﺮُّﺅْﻳَﺎ ، ﻓَﻴَﻘُﻮﻝُ : " ﻫَﻞْ ﺭَﺃَﻯ ﺃَﺣَﺪُﻛُﻢْ ﺭُﺅْﻳَﺎ ؟ " ﻓَﻘَﺎﻝَ ﺍﺑْﻦُ ﺯَﻣْﻞٍ : ﻓَﻘُﻠْﺖُ : ﺃَﻧَـﺎ ﻳَﺎ ﻧَﺒِﻲَّ ﺍﻟﻠَّﻪِ . ﻓَﻘَﺎﻝَ : " ﺧَﻴْﺮٌ ﺗَﻠَﻘَّﺎﻩُ ، ﻭَﺷَﺮٌّ ﺗَﻮَﻗَّﺎﻩُ ، ﻭَﺧَﻴْﺮٌ ﻟَﻨَﺎ ، ﻭَﺷَﺮٌّ ﻷَﻋْﺪَﺍﺋِﻨَﺎ ، ﻭَﺍﻟْﺤَﻤْﺪُ ﻟِﻠَّﻪِ ﺭَﺏِّ ﺍﻟْﻌَﺎﻟَﻤِﻴﻦَ ، ﺍﻗْﺼُﺺ
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাহিস সালাম যখন ফজরের নামায পড়তেন,তখন তিনি মানুষের দিকে মুখ ফিরিয়ে বসতেন,রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাহিস সালাম এর স্বপ্ন শোনা বড়ই পছন্দনীয় ছিলো।
অতঃপর উপস্থিত জনতাকে লক্ষ্য করে বললেন,তোমাদের মধ্যে কি কেউ আজ স্বপ্ন দেখেছো?
ইবনে যামল বললেন, হে 'রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সালাম' আমি দেখেছি। তখন রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহিস সালাম নিম্নোক্ত দু'আ টি পড়লেন,
ﺧَﻴْﺮٌ ﺗَﻠَﻘَّﺎﻩُ ، ﻭَﺷَﺮٌّ ﺗَﻮَﻗَّﺎﻩُ ، ﻭَﺧَﻴْﺮٌ ﻟَﻨَﺎ ، ﻭَﺷَﺮٌّ ﻷَﻋْﺪَﺍﺋِﻨَﺎ ، ﻭَﺍﻟْﺤَﻤْﺪُ ﻟِﻠَّﻪِ ﺭَﺏِّ ﺍﻟْﻌَﺎﻟَﻤِﻴﻦَ ،
(আ'মলুল ইয়াওমি ওয়াল-লাইল-৭৬৬)

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন! ইবনে সিরীন বলেন, بصفة عامة مجامعة الأموات في المنام، خير مالم يتم الإنزال فإن تم يصبح الحلم من الشيطان ولا معنى له،والله تبارك وتعالى أعلم. সাধারণত মৃত মানুষের পরস্পর সহবাস ভালোর ও নিয়ামতের আ'লামত,যতক্ষণ না বীর্যপাত হয়।তবে যদি বীর্যপাত হয়ে যায়,তাহলে সেটার কোনো ব্যখ্যা নেই।কিন্তু যদি বীর্যপাত হয়ে যায়,তাহলে এই স্বপ্ন শয়তানের পক্ষ্য থেকে যার কোনো ব্যখ্যা নাই।আল্লাহ-ই ভালো জানেন। জা'ফর আস-সাদিক বলেন, قال جعفر الصادق رؤيا مجامعة الأموات ما لم ينزل الرائي خير ومنفعة وحصول مراد فإن أنزل بطلت رؤياه وكان من فعل الشيطان. মৃত মানুষের সাথে সহবাস দেখা,ভালো ও উত্তমতার আ'লামত।যতক্ষণ না স্বপ্নদ্রষ্টার বীর্যপাত ঘটে।যদি বীর্যপাত ঘটে যায়,তাহলে এমন স্বপ্ন বাতিল বলে বিবেচিত হবে।যার কেনো অর্থ নেই। সুতরাং যেহেতু ঐ মৃত মানুষ মহিলার সাথে সহবাসকে সমাপ্ত করে ফেলেছে।নিশ্চিত যে,তার বীর্যপাত হয়ে গেছে।তাই এ স্বপ্নর কোনো ব্যখ্যা হতে পারে না।এ স্বপ্ন সম্ভবত শয়তানের পক্ষ্য থেকে হয়েছে বা মনের কোনো চিন্তা বা কোনো কল্পনা জল্পনা থেকে হয়েছে।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by (170,760 points)
উত্তর দেয়া হয়েছে।
by (14 points)
জাজাকাল্লাহ খাইরান❤️
কিন্তু যারা সহবাস করছিলো তাদের মধ্যে একজন মৃত এবং একজন জীবিত ছিলো...
বাস্তবে কাউকেই চিনিনা

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...