0 votes
66 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (15 points)
আসসালামু আলাইকুম শাইখ।

*বর্তমান সময়ে, আমার জানা মতে, বাংলাদেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি-পরীক্ষায় অংশ-গ্রহণের জন্য বোনদেরকে মুখ খুলে যেতে বাধ্য করা হয়, পরিপূর্ণ পর্দা করে যেতে চাইলে পরীক্ষায় অংশ-গ্রহণ করতে দেওয়া হয় না (কোথাও কোথাও ব্যতিক্রম থাকতেও পারে )।

*এছাড়াও মেডিক্যাল কলেজসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে পরিপূর্ণ পর্দা মেনে পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়াও সাধারনত কঠিন হয়ে থাকে।

**যেহেতু কিছু কিছু ক্ষেত্রে দ্বিনদার বোনদেরও আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়াটা জরুরী বোধ করি, যেমন চিকিৎসা-বিজ্ঞান (অন্তত অসুস্থ দ্বিনি মা-বোনদের চিকিৎসার জন্য এটা খুবই জরুরী বোধ করি )।
*এরকম প্রতিকুল পরিস্থিতিতে আমামাদের দ্বিনী বোনদের কী করণীয়?

1 Answer

+1 vote
by (154,240 points)
জবাব
وعليكم السلام ورحمة الله وبركاته 
بسم الله الرحمن الرحيم 


(০১)
পর্দা করা মহান আল্লাহ তায়ালার   ফরজ বিধান।
যাহা অকাট্য ভাবে প্রমানীত।    
আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ
 
وَقُلْ لِلْمُؤْمِنَاتِ يَغْضُضْنَ مِنْ أَبْصَارِهِنَّ وَيَحْفَظْنَ فُرُوجَهُنَّ وَلَا يُبْدِينَ زِينَتَهُنَّ إِلَّا مَا ظَهَرَ مِنْهَا ۖ وَلْيَضْرِبْنَ بِخُمُرِهِنَّ عَلَىٰ جُيُوبِهِنَّ ۖ وَلَا يُبْدِينَ زِينَتَهُنَّ إِلَّا لِبُعُولَتِهِنَّ أَوْ آبَائِهِنَّ أَوْ آبَاءِ بُعُولَتِهِنَّ أَوْ أَبْنَائِهِنَّ أَوْ أَبْنَاءِ بُعُولَتِهِنَّ أَوْ إِخْوَانِهِنَّ أَوْ بَنِي إِخْوَانِهِنَّ أَوْ بَنِي أَخَوَاتِهِنَّ أَوْ نِسَائِهِنَّ أَوْ مَا مَلَكَتْ أَيْمَانُهُنَّ أَوِ التَّابِعِينَ غَيْرِ أُولِي الْإِرْبَةِ مِنَ الرِّجَالِ أَوِ الطِّفْلِ الَّذِينَ لَمْ يَظْهَرُوا عَلَىٰ عَوْرَاتِ النِّسَاءِ ۖ وَلَا يَضْرِبْنَ بِأَرْجُلِهِنَّ لِيُعْلَمَ مَا يُخْفِينَ مِنْ زِينَتِهِنَّ ۚ وَتُوبُوا إِلَى اللَّهِ جَمِيعًا أَيُّهَ الْمُؤْمِنُونَ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ [٢٤:٣١

ঈমানদার নারীদেরকে বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নত রাখে এবং তাদের যৌন অঙ্গের হেফাযত করে। তারা যেন যা সাধারণতঃ প্রকাশমান, তা ছাড়া তাদের সৌন্দর্য প্রদর্শন না করে এবং তারা যেন তাদের মাথার ওড়না বক্ষ দেশে ফেলে রাখে এবং তারা যেন তাদের স্বামী, পিতা, শ্বশুর, পুত্র, স্বামীর পুত্র, ভ্রাতা, ভ্রাতুস্পুত্র, ভগ্নিপুত্র, স্ত্রীলোক অধিকারভুক্ত বাঁদী, যৌনকামনামুক্ত পুরুষ, ও বালক, যারা নারীদের গোপন অঙ্গ সম্পর্কে অজ্ঞ, তাদের ব্যতীত কারো আছে তাদের সৌন্দর্য প্রকাশ না করে, তারা যেন তাদের গোপন সাজ-সজ্জা প্রকাশ করার জন্য জোরে পদচারণা না করে। মুমিনগণ, তোমরা সবাই আল্লাহর সামনে তওবা কর, যাতে তোমরা সফলকাম হও। {সূরা নূর-৩১}

আরো জানুনঃ 
,
★সুতরাং মহিলাদের গায়রে মাহরাম পুরুষদের সামনে চেহারা খোলা জায়েজ নেই।
কিন্তু বাধ্য হলে জায়েজ আছে। 

قَاعِدَة الضرورات تبيح الْمَحْظُورَات

তীব্র প্রয়োজন হারামকে হালাল করে দেয়। [কাওয়ায়েদুল ফিক্বহ, কায়দা নং-১৭০] 

قَاعِدَة الضرورات تقدر بِقَدرِهَا

জরুরত তার সীমায় সীমিত থাকবে। [কাওয়ায়েদুল ফিক্বহ, কায়দা নং-১৭১] 
,
★সুতরাং প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে প্রতিষ্ঠানের নিয়ম পালনার্থে পরীক্ষার জন্য চেহারা খুলে যাওয়া যাবে।

আরো জানুনঃ 

চেহারা খোলা রাখা যেতে পারে।তবে শর্ত হল, সমস্ত শরীরকে অবশ্যই ঢেকে রাখতে হবে।
,
স্বরণ রাখতে হবে যে,এ অনুমতি জরুরত পর্যন্তই সীমাবদ্ধ থাকবে।যতদিন না আমাদের দেশে একক শিক্ষা ব্যবস্থা চালু হচ্ছে ততদিন ইস্তেগফারের সাথে এ শিক্ষায় শিক্ষা কার্য চালিয়ে যাবার পরামর্শ ফুকাহায়ে কিরামগণ দিয়ে থাকেন।

(০২)
এহেন পরিস্থিতিতে ডাক্তারী পড়াশোনার বিধান জানুনঃ 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...