আইফতোয়াতে ওয়াসওয়াসা সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে না। ওয়াসওয়াসায় আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা ও করণীয় সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন

0 votes
55 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (2 points)
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ।
১) মেয়েরা চুমকিওয়ালা জামা পড়তে পারবে, যেগুলোতে চুমকি, ডলার,স্টোন লাগানো থাকে সে জামাগুলো পড়া যাবে কি না?

যদিও গায়রে মাহরাম মানা হয়।এরকম শুনা যায় যে চুমকিওয়ালা,ডলার লাগানো জামা পড়া যাবে না,এটা কি সঠিক?
২)কোরো সাথে বিবাহের জন্য ইস্তেখারা করলে মনে কোন পরিবর্তন বুঝতে না পারলে করণীয় কি হবে? হ্যাঁ/ না কোন কিছুই বুঝতে না পারলে কিভাবে ডিসিশন নিবে?

৩)সহশিক্ষা ছাড়তে চাইলে পরিবারকে কিভাবে বুঝানে যেতে পারে? যদিও ওনারা এটা মানতে চাইবেন না,তথাপি যাতায়াত, দৃষ্টি হেফাজত, ক্লাস,প্রেজেন্টেশন,ভাইবা,গ্রুপ ওয়ার্ক, ইত্যাদি তে প্রচুর ফিতনা রয়েছে।

উনারা মনে করেন আগেও এমন ছিলো.. পর্দা মেনেও অনেকে পড়ছে,নিজে ভালো থাকলে সবই ভালো,ইত্যাদি বলে থাকেন..

1 Answer

0 votes
by (746,320 points)
ওয়া আলাইকুমুস-সালাম ওয়া রাহমাতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু। 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
আলহামদুলিল্লাহ!
(১)
মেয়েরা চুমকিওয়ালা জামা পড়তে পারবে, যেগুলোতে চুমকি, ডলার,স্টোন লাগানো থাকে সে জামাগুলো পড়তে পারবে।তবে গায়রে মাহরামের সামনে বের হওয়া যাবে না।প্রদর্শন করা যাবে না।

(২)
কোরো সাথে বিবাহের জন্য ইস্তেখারা করলে, যতক্ষণ মনের মধ্যে কোন পরিবর্তন লক্ষণ করা যাবে না,ততক্ষণ ইস্তেখারা চালিয়ে যাবেন।

(৩)
নিম্নোক্ত শর্তাদির সাথে কলেজ-ভার্সিটিতে শিক্ষা গ্রহণের পরামর্শ দেয়া যেতে পারে।
১/শিক্ষা অর্জন দেশ ও মুসলিম জাতীর খেদমতের উদ্দেশ্যে হতে হবে।
২/চোখকে সব সময় নিচু করে রাখতে হবে,প্রয়োজন ব্যতীত কোনো শিক্ষক/শিক্ষিকার দিকে তাকানো যাবে না।মহিলা/পুরুষ তথা অন্য লিঙ্গের  সহশিক্ষার্থীদের সাথে তো কোনো প্রকার সম্পর্ক রাখা যাবেই না।সর্বদা অন্য লিঙ্গর শিক্ষার্থী থেকে নিজেকে নিরাপদ দূরত্বে রাখতে হবে।(ফাতাওয়া উসমানী ১/১৬০-১৭১)(শেষ)
এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন- https://www.ifatwa.info/434

সু-প্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনী ভাই/বোন!
আপনার জন্য উপরোক্ত শর্তাদির উপর অটল অবিচল থেকে জেনারেল শিক্ষাকে গ্রহণ করা এবং পাশাপাশি দ্বীনি শিক্ষা চালিয়ে যাবেন।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন। এই প্রশ্ন ও উত্তরগুলো আমাদের ফেসবুকেও শেয়ার করা হবে। তাই প্রশ্ন করার সময় সুন্দর ও সাবলীল ভাষা ব্যবহার করুন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি স্থানীয় মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

Related questions

...