+1 vote
15 views
in বিবিধ মাস’আলা (Miscellaneous Fiqh) by (64 points)
চকলেট-চুইঙ্গাম কি দাঁড়িয়ে খাওয়া যাবে?
এতে তো ফ্লেভার ছাড়া আর কিছু নেই!

1 Answer

0 votes
by (58,880 points)
জবাব
بسم الله الرحمن الرحيم 

,
হাদীস শরীফে এসেছেঃ
  
عن انس رضى الله عنه ان النبى صلى الله عليه وسلم انه نهى ان يشرب الرجل قائما قال: قتادة: فقلنا لأنس رضى الله عنه فالاكل؟ قال: ذالك اشر و اخبث

‘হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাঁড়িয়ে পান করা থেকে নিষেধ করেছেন। হজরত কাতাদা (রা.) বলেন, বর্ণনার সময় আমি হজরত আনাস (রা.)-কে জিজ্ঞেস করেছি, খাওয়ার ব্যাপারে বিধান কী? হজরত আনাস (রা.) উত্তর দিলেন, দাঁড়িয়ে আহার করা এর চেয়েও নিকৃষ্ট কাজ। (মুসলিম, হাদীস নং-৩৭৭৬, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-১১৮৮৮)
,

عن ابن عباس رضى الله عنهما قال: سمتع النبى صلى الله عليه وسلم  من زمزم ، فشرب وهو قائم 

‘হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, আমি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে যমযমের পানি পান করিয়েছি, তিনি দাঁড়িয়ে পান করেছেন।’ (বুখারী, হাদীস নং-১৫২৯, মুসলিম, হাদীস নং-৩৭৭৬)
,
হজরত নাজাল (রা.) বলেছেন যে, একবার হজরত আলী (রা.) কুফার ‘বাবুর রাহবা’ নামক স্থানে গিয়েছিলেন এবং সেখানে দাঁড়িয়ে পানি পান করেছেন। অতপর বলেছেন,
انى رأيت رسول الله صلى الله عليه وسلم فعل كما رأيتمونى فعلت 
‘তোমরা আজ আমাকে যেভাবে পান করতে দেখলে, আমি দেখেছি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এভাবে পান করেছেন। (বুখারী, হাদীস নং- ৫১৮৪, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং- ১১৯৯)
,

হজরত আনাস (রা.) বলেছেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দাঁড়িয়ে পান করা থেকে নিষেধ করেছেন।’ (মুসলিম, হাদীস নং-৩৭৭২, তিরমিযী, হাদীস নং-১৮০০)

عَنْ عَمْرِو بْنِ شُعَيْبٍ، عَنْ أَبِيهِ، عَنْ جَدِّهِ، قَالَ: رَأَيْتُ رَسُولَ اللهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ يَشْرَبُ قَائِمًا وَقَاعِدًا

 আমর বিন শুয়াইব তিনি তার পিতা, তিনি তার দাদা থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, আমি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে দাঁড়িয়ে ও বসে পান করতে দেখেছি। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১৮৮৩]

عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ أَبِي عَمْرَةَ، عَنْ جَدَّةٍ لَهُ يُقَالُ لَهَا كَبْشَةُ الْأَنْصَارِيَّةُ، أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ: «دَخَلَ عَلَيْهَا، وَعِنْدَهَا قِرْبَةٌ مُعَلَّقَةٌ، فَشَرِبَ مِنْهَا، وَهُوَ قَائِمٌ،

কাবশাতুল আনছারিয়্যা রাঃ থেকে বর্ণিত।একদা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার নিকট প্রবেশ করলেন। তার নিকট একটি ঝুলন্ত পানির পাত্র ছিল। তখন রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তা থেকে দাঁড়িয়েই পান করলেন। [সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-৩৪২৩]

عَنِ ابْنِ عُمَرَ قَالَ: كُنَّا نَأْكُلُ عَلَى عَهْدِ رَسُولِ اللهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ وَنَحْنُ نَمْشِي، وَنَشْرَبُ وَنَحْنُ قِيَامٌ.

হযরত ইবনে উমর রাঃ থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমরা রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের যুগে হেটে, দাঁড়িয়ে খাবার গ্রহণ ও পান করেছি। [সুনানে তিরমিজী, হাদীস নং-১৮৮০]

এই হাদীস গুলোর আলোকে আলোকে ওলামায়ে কেরাম বলেছেন, বিনা ওযরে দাঁড়িয়ে পান করা মাকরূহে তানযীহী এবং দাঁড়িয়ে আহার করা মাকরূহে তাহরীমী।

وَالصَّوَابُ فِيهَا أَنَّ النَّهْيَ مَحْمُولٌ عَلَى كَرَاهَةِ التَّنْزِيهِ، وَأَمَّا شُرْبُهُ قَائِمًا فَبَيَانٌ لِلْجَوَازِ، وَأَمَّا مَنْ زَعَمَ النَّسْخَ أَوِ الضَّعْفَ فَقَدْ غَلِطَ غَلَطًا فَاحِشًا، وَكَيْفَ يُصَارُ إِلَى النَّسْخِ مَعَ إِمْكَانِ الْجَمْعِ بَيْنَهُمَا لَوْ ثَبَتَ التَّارِيخُ، وَأَنَّى لَهُ بِذَلِكَ وَإِلَى الْقَوْلِ بِالضَّعْفِ مَعَ صِحَّةِ الْكُلِّ، وَأَمَّا قَوْلُهُ: (فَمَنْ نَسِيَ فَلْيَسْتَقِئْ) فَمَحْمُولٌ عَلَى الِاسْتِحْبَابِ فَيُسْتَحَبُّ لِمَنْ شَرِبَ قَائِمًا أَنْ يَتَقَيَّأَهُ لِهَذَا الْحَدِيثِ الصَّحِيحِ الصَّرِيحِ، فَإِنَّ الْأَمْرَ إِذَا تَعَذَّرَ حَمْلُهُ عَلَى الْوُجُوبِ حُمِلَ عَلَى الِاسْتِحْبَابِ. وَقَالَ الْقَاضِي رَحِمَهُ اللَّهُ: هَذَا النَّهْيُ مِنْ قَبِيلِ التَّأْدِيبِ وَالْإِرْشَادِ إِلَى مَا هُوَ الْأَخْلَقُ وَالْأَوْلَى، وَلَيْسَ نَهْيَ تَحْرِيمٍ حَتَّى يُعَارِضَهُ مَا رُوِيَ أَنَّهُ فَعَلَ خِلَافَ ذَلِكَ مَرَّةً أَوْ مَرَّتَيْنِ.(مرقاة المفاتيح، باب الاشربة، الفصل الاول، رقم الحديث-4266، ج-4/ص-402)

সারমর্মঃ যেই হাদীস গুলোতে দাঁড়িয়ে পান করা থেকে নিষেধ করা হয়েছে,সেখানে মাকরুহে তানযিহি তথা অনুত্তম উদ্দেশ্য।      
,
★সুতরাং প্রশ্নে উল্লেখিত ছুরতে চকলেট, চুইঙ্গাম দাঁড়িয়ে খাওয়া নাজায়েজ নয়।
এতে কোনো গুনাহ হবেনা। 


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...