0 votes
23 views
in Zakat & Charity by (18 points)
আসসালামু আলাইকুম।

একজন গরীব মহিলা, তার সংসারে ৬ জন মানুষ কিন্তু উপার্জনক্ষম কেউ নাই।তার স্বামী বিদেশ কাজ করতে গিয়ে মারা গেছে। নিজের ভিটাবারি আছে এবং পাকা বিল্ডিং আছে যা অন্যের সাহায্যে করেছে।এবং তার পুরা সংসারটা একজন লোক দেখাশোনা করছেন ।তারা এতিম ও বিধবা।ছেলেমেয়ের লেখাপরার খরচ ঐ লোকই দিচ্ছেন। তার স্বামীর বিদেশি ঐ কোম্পানির মালিক ২ লক্ষ টাকা দিয়েছে এই পরিবারকে। এটাই তাদের সম্বল।এটা ব্যবসায় খাটায় রাখছে যা থেকে সামান্য টাকা পায়।

এখন প্রশ্ন হল, ঐ মহিলা কি যাকাতের উপযুক্ত ?

আর তার কাছে যেহেতু নিসাব পরিমান মাল আছে এবং তা ৪-৫ বছর ক্রস করে ফেলেছে,সে নিজেও কি যাকাত দিবে?

1 Answer

0 votes
by (22.7k points)
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-

যাকাত মূলত গরীবকেই প্রদাণ করা হয়ে থাকে।যার নেসাব পরিমাণ তথা ৭.৫ ভড়ি স্বর্ণ বা ৫২.৫ ভড়ি রুপা এর মূল্য পরিমাণ 'মালে নামী'(বাড়ন্ত মাল) নেই।

মালে নামী বলতে যে মাল শরীয়তের দৃষ্টিতে বাড়তে থাকে,সেগুলো সর্বমোট চার প্রকার,(১)সোনা(২)রুপা(৩)ব্যবসার মাল(৪)গবাদি পশু

আর যেগুলো বাড়বে না যেমন,

স্থাবর সম্পত্তি।
যেহেতু ঐ মহিলার নেসাব পরিমাণ মাল রয়েছে তাই সে যাকাতের মাল গ্রহণ করতে পারবে না।এবং তার উপর অবশ্যই যাকাত আসবে।তাকে যাকাত দিতে হবে।

ঐ মহিলা যদি তার এই টাকা দ্বারা স্থাবর কোনো সম্পত্তি ক্রয় করে নেয়,তাহলে আর তার উপর যাকাত আসবে না।

তার ছেলে-মেয়ে যদি বালেগ থাকে,এবং তাদের নেসাব পরিমাণ মাল না থাকে তাহলে তারা যাকাত গ্রহণ করতে পারবে।

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

পরিচালক

ইসলামিক রিচার্স কাউন্সিল বাংলাদেশ

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

505 questions

499 answers

70 comments

331 users

14 Online Users
0 Member 14 Guest
Today Visits : 5116
Yesterday Visits : 5458
Total Visits : 925322
...