0 votes
25 views
in Halal & Haram by (16 points)
আসসালামুয়ালাইকুম শায়খ ,মহিলাদের ঘরে তালিমের আদব কি ?তালিমে কিছু বিষয় দেখা যায় ..যেমন পশ্চিম দিকে ফিরে সম্মিলিত মুনাজাত করা ..হাত মোসাফা এর দোআ পড়া ..এগুলো একটু ক্লিয়ার করে দিলে ভালো হয় ..জাযাকাল্লাহু খাইরান

1 Answer

0 votes
by (16.9k points)
বিসমিহি তা'আলা

781

ওয়া আলাইকুম আসসালাম!

তা'লিমের আ'দব হচ্ছে...........

ওজু সহকারে তা'লিমে বসা।

দিলের কানে আ'মলের নিয়তে শ্রবণ করা।

আত্তাহিয়্যাতুর সূরতে বসা।

সম্মিলিত মোনাজাত জায়েয রয়েছে।তবে সর্বাবস্থায় জরুরী মনে করা বেদআত।

মোনাজাত ওবং মোসাফাহার সাথে তা'লিমের কোনো সম্পর্ক নাই।এগুলি ভিন্ন ভিন্ন পৃথক বিষয়।

মোসাফাহা করা সুন্নত।এবং এ সময়ে নিম্নোক্ত দু'আ পড়া সুন্নত।

মুসাফাহার দু'আ সম্পর্কে বর্ণিত রয়েছে.....

হাদীস শরীফে এসেছে যে-

ﺇﺫﺍ ﺍﻟﺘﻘﻰ ﺍﻟﻤﺴﻠﻤﺎﻥ ﻓﺘﺼﺎﻓﺤﺎ ﻭﺣﻤﺪﺍ ﺍﻟﻠﻪ ﻋﺰ ﻭﺟﻞ ﻭﺍﺳﺘﻐﻔﺮﺍﻩ ﻏﻔﺮ ﻟﻬﻤﺎ .

যখন দুইজন মুসলিমের সাক্ষাত হয় এবং তারা একে অপরের সঙ্গে মুসাফাহা করে, আল্লাহ তাআলার হামদ ও শোকর করে এবং আল্লাহর কাছে মাগফিরাত কামনা করে তো আল্লাহ তাআলা উভয়কে মাগফিরাত দান করেন।’ (সুনানে আবু দাউদ হাদীস ৫১৬৯)

হযরত আনাস রা. থেকে বর্ণিত, নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন-

ﻣَﺎ ﻣِﻦْ ﻣُﺴْﻠِﻤَﻴْﻦِ ﺍﻟْﺘَﻘَﻴَﺎ ﻓَﺄَﺧَﺬَ ﺃَﺣَﺪُﻫُﻤَﺎ ﺑِﻴَﺪِ ﺻَﺎﺣِﺒِﻪِ ﺇِﻻ ﻛَﺎﻥَ ﺣَﻘًّﺎ ﻋَﻠَﻰ ﺍﻟﻠَّﻪِ ﺃَﻥْ ﻳَﺤْﻀُﺮُ ﺩُﻋَﺎﺀَﻫُﻤَﺎ ، ﻭَﻻ ﻳُﻔَﺮِّﻕُ ﺑَﻴْﻦَ ﺃَﻳْﺪِﻳﻬِﻤَﺎ ﺣَﺘَّﻰ ﻳَﻐْﻔِﺮَ ﻟَﻬُﻤَﺎ

‘যখনই দুজন মুসলিমের সাক্ষাত হয় এবং তারা পরস্পর হাত মিলায় তো আল্লাহ তাআলার উপর তাদের এই হক জন্মে যে, আল্লাহ তাদের দুআ কবুল করবেন এবং তাদের হাতগুলো পৃথক হওয়ার আগেই তাদেরকে ক্ষমা করে দিবেন।’ (মুসনাদে আহমদ ৩/১৪২, হাদীস ১২৪৫১)

উপরোক্ত হাদীসগুলোর কারণে আমাদের পূর্বসূরী বুযুর্গরা মুসাফাহার সময় একে অপরের জন্য মাগফিরাতের দুআ করতেন। এই দুআর জন্য প্রসিদ্ধ আরবী বাক্যটি খুবই উপযুক্ত-

ﻳَﻐْﻔِﺮُ ﺍﻟﻠﻪُ ﻟَﻨَﺎ ﻭَﻟَﻜُﻢْ

অর্থাৎ ‘আল্লাহ তাআলা আমাদের সকলকে ক্ষমা করুন।’(মাসিক আল-কাউছার)

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, IOM.

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনার দ্বীন সম্পর্কীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য রয়েছে আমাদের  অভিজ্ঞ ওলামায়কেরাম ও মুফতি সাহেবগনের একটা টিম যারা ইনশাআল্লাহ প্রশ্ন করার ২৪-৪৮ ঘন্টার সময়ের মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

402 questions

383 answers

45 comments

258 users

14 Online Users
0 Member 14 Guest
Today Visits : 5149
Yesterday Visits : 4653
Total Visits : 502387

Related questions

...